এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > লাভ জিহাদলাভ জিহাদ বন্ধ করতে আইন আনছে উত্তরপ্রদেশ সরকার,

লাভ জিহাদলাভ জিহাদ বন্ধ করতে আইন আনছে উত্তরপ্রদেশ সরকার,



আপনাদের সুবিধার্থে খবরের শেষে বিধানসভা ২০২১ উপলক্ষে আমাদের করা সর্বশেষ সমীক্ষার প্রতিটির লিঙ্ক দেওয়া আছে।

আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বর্তমানে দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে লাভ জিহাদের নাম শোনা যাচ্ছে। লাভ জিহাদ হল আক্ষরিক অর্থে মুসলমান এবং হিন্দুর মধ্যে প্রেম বিবাহ এবং বিবাহের পর হিন্দু মেয়েটিকে বাধ্যতামূলকভাবে ধর্ম পরিবর্তন করা। আর এভাবে ধর্ম পরিবর্তন আটকাতে এবার নতুন আইন আনছে উত্তরপ্রদেশ সরকার। লাভ জিহাদের কারণে বিভিন্ন জায়গায় ঝামেলা দেখা যায়। কিছু কিছু সময় এই ঝামেলা অত্যান্ত বাড়াবাড়ি পর্যায়ে পৌঁছে যায়। যদিও বর্তমানে এই লাভ জিহাদ শব্দবন্ধটি কোন আইনেই সংজ্ঞায়িত করা নেই। কিন্তু এই লাভ জিহাদের কবলে পড়ে অনেক মেয়েরাই বিপদে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

সেই সূত্রেই এবার উত্তরপ্রদেশ সরকার লাভ জিহাদ বন্ধ করতে স্বরাষ্ট্র দপ্তরের তরফ থেকে আইন দপ্তরের কাছে প্রস্তাব রাখা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী ব্রিজেশ পাঠক জানিয়েছেন, রাজ্যজুড়ে ক্রমশ বেড়ে চলেছে লাভ জিহাদের মতন ঘটনা। এর ফলে রাজ্যের সামাজিক স্থিতি যেমন  নষ্ট হচ্ছে, ঠিক তেমনই রাজ্যের বদনাম হচ্ছে। তাই এ ধরনের ঘটনা আটকাতে কড়া আইনের প্রয়োজন বলে মনে করা হচ্ছে। স্বরাষ্ট্র দপ্তর থেকে এ ব্যাপারে প্রস্তাব এসেছে। সব দিক খতিয়ে দেখে আইন তৈরী হবে। অন্যদিকে এলাহাবাদ হাইকোর্ট ইতিমধ্যে একটি পুরনো মামলার পরিপ্রেক্ষিতে জানিয়েছে যে বিয়ের জন্য ধর্ম পরিবর্তন কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী এলাহাবাদ হাইকোর্টের এই রায়কে স্বাগত জানিয়েছিলেন। পাশাপাশি তিনি পাল্টা বলেছিলেন, যারা এবার থেকে লাভ জিহাদ করবে, তাঁদের ছবি পোস্টার করে রাস্তায় টাঙিয়ে দেওয়া হবে। নিজেদের পরিচয় লুকিয়ে কিছু সংখ্যালঘু মুসলিম হিন্দু মেয়েদের সম্মান নিয়ে খেলা করছে বলে যোগী আগেই দাবী করেছিলেন। অন্যদিকে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর কড়া নির্দেশ এর পরপরই এবার লাভ জিহাদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চলেছে। পাশাপাশি মধ্যপ্রদেশ এবং কর্ণাটক সরকারও লাভ জিহাদের বিরুদ্ধে আইন আনার কথা ইতিমধ্যেই ভেবে ফেলেছে। তবে বিপরীত কথা শোনা যাচ্ছে রাজস্থানের কংগ্রেস মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলটের গলায়।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

ইতিমধ্যেই তিনি অভিযোগ করেছেন, দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে এবং দেশের মধ্যে বিভাজন আনতে লাভ জিহাদ শব্দের আমদানী করেছে বিজেপি। বিবাহ পুরোটাই ব্যক্তি স্বাধীনতার বিষয়, তাই সে বিষয়ে কোনো আইন অসাংবিধানিকভাবে প্রয়োগ করার চেষ্টা হলে কোন আদালতেই তা গ্রাহ্য হবার কথা নয়। কারণ ভালোবাসা এবং জিহাদ দুটি আলাদা শব্দ। তাই এই দুটিকে একসাথে মিলিয়ে একটি অন্যরকম ছবি প্রস্তুত করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে গেরুয়া শিবিরের পক্ষ থেকে। অন্যদিকে যারা কট্টর হিন্দু, তাঁরাও ইতিমধ্যেই দাবি করতে শুরু করেছেন সংখ্যালঘু ছেলেরা ইচ্ছাকৃতভাবে লাভ জিহাদের নাম করে হিন্দু মেয়েদের বিয়ে করে ধর্মান্তরিত করছে।

তবে কেন্দ্রীয় সরকার কিন্তু সংসদে জানিয়ে দিয়েছে এখনো পর্যন্ত সংবিধানের এক্তিয়ারে এরকম লাভ জিহাদ সম্পর্কিত কোনো রকম আইন নেই। পাশাপাশি বিশেষজ্ঞদের মতে, লাভ জিহাদ কথাটি একটি অলীক কল্পনা। যথারীতি এই শব্দটি ধর্মীয় ঘৃণা এবং ভুল ধর্মীয় তথ্য ছড়াচ্ছে। পাশাপাশি মানুষের ব্যক্তি স্বাধীনতাতেও এই আইন হস্তক্ষেপ করবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে নিঃসন্দেহে এই আইন সংখ্যালঘুদের হিন্দু মেয়েদের সঙ্গে বিবাহ বন্ধ করার জন্যই লাগু করা হচ্ছে বলে দাবি অনেকের। ভারতবর্ষে একটি একটি করে রাজ্য লাভ জিহাদ বন্ধ করতে আইন আনতে চলেছে। তবে এখনো পর্যন্ত এ ব্যাপারে দেশের সংখ্যালঘু প্রধানরা বিশেষ কোনো প্রতিক্রিয়া জানাননি।

একনজরে দেখে নিন আমাদের সর্বশেষ বিধানসভা ২০২১ ওপিনিয়ন পোল –

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – দ্বিতীয় পর্ব – 

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – প্রথম পর্ব – 

# মালদহ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# উত্তর দিনাজপুরে জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# জলপাইগুড়ি ও কালিম্পঙ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# আলিপুরদুয়ার ও দার্জিলিং জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# কুচবিহার জেলার ওপিনিয়ন পোল –

আপনার মতামত জানান -
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!