এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > একসাথে লোকসভা ও বিধানসভা ভোট নিয়ে আইন কমিশনকে কি জানালো তৃণমূল কংগ্রেস

একসাথে লোকসভা ও বিধানসভা ভোট নিয়ে আইন কমিশনকে কি জানালো তৃণমূল কংগ্রেস



বেশ কিছুদিন আগেই কেন্দ্রের তরফে আইন কমিশনকে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল যে, একই সাথে সমগ্র রাজ্যের বিধানসভা ও দেশের লোকসভা ভোট করানো হোক। আর সেই বিষয়টিতে দেশের বাকি রাজনৈতিক দলগুলির মতামত জানতে তিনদিনের জন্য একটি সম্মেলনের ব্যাবস্থা করেছে আইন কমিশন। যেখানে উপস্থিত ছিলেন দেশের বেশকিছু রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিরা। সরকারের যুক্তি, সারা বছর নির্বাচন লেগেই থাকার কারনে বিভিন্ন রাজ্যে জারি হওয়া নির্বাচনী আচরনবিধি লাগু হওয়ায় থমকে যায় উন্নয়ন। তাই সব ভোট একসাথে করা হলে আর এই অসুবিধের সম্মুখীন হতে হবে না। সূত্রের খবর, আইন কমিশনের এই সম্মেলনে উপস্থিত তৃনমূল কংগ্রেসের প্রতিনিধি হিসাবে কল্যান বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের এই যুক্তির সম্পূর্ন বিরোধীতা করে বলেন, “2019 এ যদি সব রাজ্যের বিধানসভা ও দেশের লোকসভার ভোট হয়, তবে 2020 তে যদি কেন্দ্রের শাসকদল সংখ্যাগরিষ্টতা হারায় তবে কি ফের রাজ্যে বিধানসভা ভোট হবে?” তৃনমূলের দাবি, কোনোওভাবেই রাজ্যের কাধে এভাবে ভোট চাপিয়ে দিতে পারে না কেন্দ্র।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তাছাড়া লোকসভা ও বিধানসভা দুটোই পৃথক পৃথক সংবিধান স্বীকৃত। সংবিধানের তরফে মানুষকে দেওয়া এই অধিকার খর্ব করার ক্ষমতা কারোর নেই। সূত্রের খবর, সিপিএমের অতূল অঞ্জনও এই ব্যাপারে কেন্দ্রের বিরোধীতা করেছেন। বিজেপির সহযোগী দল হিসাবে গোয়া ফরওয়ার্ড পার্টিও মোদী সরকারের বিরুদ্ধেই মুখ খুলেছে। তবে এনডিএ শরিক অকালি দলের নরেশ গুজরাল অবশ্য কেন্দ্রের এই প্রস্তাবে সায় দিয়েছেন। আশ্চর্য্যজনকভাবে কংগ্রেসের তরফে কেউ এদিনের এই সম্মেলনে উপস্থিত না হলেও দলের আর পি এন সিংহ অবশ্য এ ব্যাপারে সমস্ত দলের সাথে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন। তবে কেন্দ্রের এই “এক দেশ এক নির্বাচন” নিয়ে তাঁরা বিজেপির বিরুদ্ধে রাজনৈতিক অভিসন্ধির অভিযোগ তুলেছেন। জানা গেছে, 2018 র শেষে রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তীশগঢ়, মিজোরাম এবং 2019 এ লোকসভা ভোটের সময়ই বিজেপি শাসিত হরিয়ানা, ঝাড়খন্ড, মহারাষ্ট্রে বিধানসভা ভোট হওয়ার কথা। এখানেই কংগ্রেসের দাবি, পরাজয় নিশ্চিত জেনেই একসাথে বিধানসভা ও লোকসভা ভোট করানোর পক্ষে বিজেপি। অন্যদিকে বিরোধীদের এই সব দাবি উড়িয়ে বিজেপি জানাচ্ছে, এই “এক দেশ এক নির্বাচনে” তাঁদের পাশে রয়েছেন ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েকের দল। পাশাপাশি তামিলনাডু, অন্ধ্রপ্রদেশ, তেলেঙ্গানার মত রাজ্যগুলিকে পাশে পেলে লোকসভা ভোটের সাথেই 10 থেকে 12 টি রাজ্যে করিয়ে নেওয়া যাবে বিধানসভা ভোট। তবে সরকার বা বিরোধীরা যাই বলুক না কেন! এই “এক দেশ এক নির্বাচন” ইস্যুতে আইন কমিশন সব রাজনৈতিক দলের বক্তব্য শুনে শেষপর্যন্ত কি সিদ্ধান্ত নেয় সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!