এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > লোকসভা নির্বাচন ২০১৯ – হেভিওয়েটের পুত্রের রাজনীতিতে পদার্পন ঘিরে তীব্র জল্পনা

লোকসভা নির্বাচন ২০১৯ – হেভিওয়েটের পুত্রের রাজনীতিতে পদার্পন ঘিরে তীব্র জল্পনা



নাম – শৌর্য ডোভাল। নিবাস- উত্তরাখন্ড
বাবা’র নাম- অজিত ডোভাল
শিক্ষাগত যোগ্যতা- লন্ডন বিজনেস স্কুল আর শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমবিএ ।
সাদা পাজামা-পঞ্জাবী , জওহর কোট পরিহিত এই যুবা’র পোস্টারে উত্তরাখন্ডের পাহাড়ি রাস্তা ভরে গেছে। গত নভেম্বরে উত্তরাখণ্ড বিজেপির কর্মসমিতিতে তাঁকে সামিল করা হয়েছে। প্রসঙ্গতঃ অল্প কদিন আগেই তাঁর সমালোচনায় মুখ খুলেছিলেন খোদ কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। অভিযোগ ছিলো শৌর্য ডোভালের ‘ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশন’-এ যে সব দেশি-বিদেশি সংস্থা থেকেই অর্থ আসে তাদের সাথে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিভিন্ন মন্ত্রকের সরাসরি সম্পর্ক রয়েছে। উল্লেখ্য ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশন’র পরিচালনা কমিটির তালিকায় রয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারামন, বাণিজ্যমন্ত্রী সুরেশ প্রভু, জয়ন্ত সিন্‌হা ,হরদীপ সিংহ পুরী প্রমুখ বিজেপি নেতৃবর্গ।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

 

এই সংগঠন ইতিমধ্যে ‘বেমিসাল গঢ়বাল’ ও ‘বুলন্দ গঢ়বাল’ নামে দুটি অভিযান শুরু করেছে। অনুমান করা হচ্ছে এইভাবেই আগামী লোকসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে চলেছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভালের ছেলে শৌর্য। ডোভালদের আদি ভিটে পৌড়ী গঢ়বাল কেন্দ্র থেকেই প্রতিদ্বন্দ্বীতা করার সভবনা তাঁর। যদিও সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে শৌর্য নিজে বললেন , লোকসভা নির্বাচনে তিনি প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন কী না এখনই সেই বিষয়ে কিছু স্থির করেননি। তাঁর যাবতীয় তৎপরতা উত্তরাখন্ডকে সব দিক থেকে সৌন্দর্যায়নকে কেন্দ্র করে। রাজনৈতিক মহলের মতে নিজ মুখে স্বীকার না করলেও উত্তরাখণ্ডের পথে পথে এখন তাঁরই পোস্টার। সেখানে তাঁর অভিযানের কথা জানিয়ে দু’টি নম্বরও দেওয়া রয়েছে। যার মধ্যে একটিতে ‘মিস্‌ড কল’ দিলে অভিযানে যোগ দেওয়া যাবে। আর একটি নম্বরে ফোন করলে অভিযানের ঠিকুজি কুষ্ঠি সবই জানা যাবে। শৌর্য ডোভালের রাজনীতিতে যোগয়ানের সম্ভবনা প্রসঙ্গে এক কগ্রেস নেতা নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বললেন, অজিত ডোভালের নীতি এমনিতেই মুখ থুবড়ে পড়েছে। তাঁর ছেলের রাজনীতিতে আসাটা তাঁর ব্যক্তিগত বিষয়। কিন্তু বিজেপিই সব সময়ে কংগ্রেসকে পরিবারতন্ত্রের খোঁটা দেয়। অথচ কেন্দ্রীয় স্তর থেকে রাজ্য স্তরে বিজেপিতেও পরিবারতন্ত্র কম নয়। সে বসুন্ধরা রাজের ছেলেই হোন বা অনুরাগ ঠাকুর, কিংবা জয়ন্ত সিন্‌হা। জানা যাচ্ছে মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহানের ছেলেও রাজনীতিতে যোগ দিচ্ছেন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!