এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > LIVE: তৃণমূলের একুশের শহীদ সমাবেশ- বাংলাকে শাসন করবে বাংলার মানুষ, বহিরাগতরা নয়

LIVE: তৃণমূলের একুশের শহীদ সমাবেশ- বাংলাকে শাসন করবে বাংলার মানুষ, বহিরাগতরা নয়



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –আজ তৃণমূল কংগ্রেসের শহীদ দিবস। ১৯৯৩ সালে তৎকালীন যুব কংগ্রেস নেত্রী মমতা বান্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে মহাকরণ অভিযান উপলক্ষে ধুন্ধুমার কান্ড হয় কলকাতার রাজপথে। শহীদ হন যুব কংগ্রেস কর্মীরা। পরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূল কংগ্রেস তৈরী করলেও – শহীদ দিবস পালন করেন প্রতি বছর ২১ শে জুলাই। করোনা অতিমারীতে এবার ধর্মতলার বদলে অনলাইনে হচ্ছে তৃণমূলের শহীদ দিবস। বক্তব্য রাখছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় –

# এ বছর ধর্মতলায় শহীদ দিবস করতে না পারায় ব্যথিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
# কিন্তু, করোনা অতিমারীতে মানুষের প্রাণ তাঁর কাছে আগে বলেই এই সিদ্ধান্ত বলে জানালেন
# আগামী বছর একুশের মহাযুদ্ধে বিশাল ব্যবধানে জেতার পর একুশে জুলাই ঐতিহাসিক সমাবেশ করার অঙ্গীকার তাঁর
# শহীদদের ভোলে নি তৃণমূল কংগ্রেস, রাজ্যসভার সাংসদ দোলা সেনকে ব্যক্তিগতভাবে প্রত্যেক শহীদ পরিবারে পাঠিয়েছিলেন তিনি

# তমনোষ ঘোষ ও অনিল অধিকারীর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ
# আমপান, কোভিড চললেও উন্নয়ন থেমে নেই
# আমপানে প্রায় সব ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণম পৌঁছে দেওয়া হয়েছে
# বিজেপি সিপিএম কংগ্রেস এই নিয়ে শুধু রাজনীতি করছে

 


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

# তৃণমূল একুশে ক্ষমতায় ফিরলে সারাজীবন ফ্রীতে রেশন, শিক্ষা, স্বাস্থ্য
# ইনকাম অন্য জায়গা থেকে করব, বাটোয়ারা করে দেব সাধারণ মানুষের মধ্যে
# বিজেপি কেন্দ্র থেকে সাংবাদিক থেকে সাধারণ মানুষকে ভয় দেখিয়ে রেখেছে
# দেশে এনকাউন্টার-রাজ চলছে
# তৃণমূলকে ভয় দেখিয়ে থামিয়ে রাখা যাবে না
# বাংলাকে শাসন করবে বাংলার মানুষ, বহিরাগতরা নয়
# এনপিআর-এনআরসি নিয়ে আন্দোলন মানুষ ভুলবে না
# শুধু লড়াই লাগিয়ে দেওয়া এদের কাজ

# আমি হিন্দু ঘরের মেয়ে হলেও, মুসলিমরাও আমার ভাই
# প্রধানমন্ত্রীকে আজকের দিনে আমি ছোট করব না
# আমপানের পর এক ঘন্টার জন্য এসে মাত্র ১০০০ কোটি দিলেন
# সেই টাকা তো আমরা সাথেসাথেই দিয়ে দিয়েছি
# পরিযায়ী শ্রমিকদের আমরা সব টাকা দিয়ে ফিরিয়ে এনেছি
# কৃষক বন্ধু স্কীমে নাম লেখান, পরে কিষান ক্রেডিট কার্ড পেয়ে যাবেন
# বিনা পয়সায় আমরা শস্যবীমার টাকা দেয়
# বিনা পয়সায় কৃষি জমি মিউটেশন করে দেওয়া হয়
# ট্রাইবালদের জমি জোর করে কিনে নেওয়া যাবে না
# বাংলা আবাস যোজনার মাধ্যমে বিপুল পরিমান ঘর দেওয়া হয়েছে
# মাটিকে কিভাবে কাজে লাগানো যায় তা বাংলায় পথ দেখাচ্ছে, আড়াই লক্ষ গ্রামীণ লোককে আমরা কর্মসংস্থান করতে পারব

# দিল্লি কলকাতার মত ছোট, গুজরাট বাংলার অর্ধেক
# বাংলায় ১০ কোটি পপুলেশন, তার সাথে আন্তর্জাতিক বহু সীমানা দিয়ে ঘেরা
# কত মানুষ বাংলায় আসে ট্রেন-প্লেনে আসছে
# আমরা টেস্টিং বেশি করছি, তাই সংখ্যাটা একটু বেড়েছে, ভয় পাওয়ার কিছু নেই
# ১৮ হাজার বেড এখনো কোভিডের জন্য খালি আছে, অগাস্টের মধ্যে তা সাড়ে ২৩ হাজার হয়ে যাবে
# তা সত্ত্বেও বাংলা অন্য রাজ্যের থেকে ভালো করছে

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!