এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > দিলীপ ঘোষের হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দিলেন এই হেভিওয়েট বাম বিধায়ক

দিলীপ ঘোষের হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দিলেন এই হেভিওয়েট বাম বিধায়ক



ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে বিজেপি। এদিন ফের তার প্রমান পাওয়া গেলো। সোমবার আরামবাগে বিজেপির আইন অমান্য কর্মসূচি ছিল।আর সেখানে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ উপস্থিত ছিলেন। এদিন তাঁর হাত ধরেই সদ্য ফরওয়ার্ড ব্লক থেকে বহিস্কৃত হওয়া গোঘাটের প্রাক্তন বিধায়ক তথা ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা বিশ্বনাথ কারক বিজেপিতে যোগ দেন।

বিজেপিকে রথযাত্রার অনুমতি দেয়নি রাজ্য সরকার সেই কারণে আইনি সাহায্যের পাশাপাশি এবার আইন অমান্য কর্মসূচি নিয়েছে বিজেপি। সোমবার আরামবাগে বিজেপির আইন অমান্য কর্মসূচি ছিল। আর সেখানেই বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীবাবুর হাত ধরে গেরুয়া শিবিরে পা রাখেন এই হেভিওয়েট বাম বিধায়ক। জানা যাচ্ছে এদিন তাঁর হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন দিলীপবাবু।

বিজেপিতে যোগ দিয়ে স্বভাবতই খুশি বিশ্বনাথবাবু। এদিন তিনি কি কারণে বিজেপিতে যোগ দিলেন তার কারণ হিসাবে জানান যে, ‘‘গণতন্ত্র রক্ষার লক্ষ্যে বিজেপিতে যোগ দিলাম।” পাশাপাশি পুরানো দলের প্রতি কোনো ক্ষোভ নেই বলেও জানিয়ে দিলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, বিশ্বনাথবাবু এতটাই প্রভাবশালী রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব ছিলেন যে ২০১১ সালের প্রবল তৃণমূল ঝড়ের মধ্যেও গোঘাট আসনটি নিজের ঝুলিতে রেখেছিলেন। সাথেই সেখানকার বিধায়ক হন। আর এরপর যদিও ২০১৬ সালে তিনি প্রার্থী হন কিন্তু পরাজিত হন.তাছাড়া এবারের পঞ্চায়েত ভোটে প্রার্থী-পদে মনোনয়ন জমা দিতে যাওয়ার সময়ে বিশ্বনাথবাবুকে মারধর এবং মুখে কালি মাখানোর অভিযোগ উঠেছিল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। যদিও তৃণমূল সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছিল।

রাজনৈতিকমহলের মতে ,পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূলের সঙ্গে ঝামেলার কারণেই তিনি বিজেপিতে যোগদান করে থাকতে পারেন। কেননা এখন বাংলায় মূলত তৃণমূলের সঙ্গে লড়াই হচ্ছে বিজেপির।তার শত্রুর শত্রু বন্ধু হয়।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিকে ব্যাপারটিকে গুরুত্ত্ব দিতে নারাজ ফরওয়ার্ড ব্লকের রাজ্য সভাপতি নরেন চট্টোপাধ্যায়। এই নিয়ে এদিন তিনি বলেন, “দলবিরোধী কাজের জন্য বিশ্বনাথবাবুকে আগেই বহিষ্কার করা হয়েছে। ফলে, তিনি বর্তমানে দলের কেউ ছিলেন না।”
বিজেপির তরফ থেকে অবশ্য দাবি করা হয়েছে যে এই যোগদানের ফলে বিজেপির পাল্লা ভারী হলো।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!