এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বাম-কংগ্রেস জোট ভেঙে যাওয়ার সুবিধা কার বিজেপি না তৃনমূলের?

বাম-কংগ্রেস জোট ভেঙে যাওয়ার সুবিধা কার বিজেপি না তৃনমূলের?



আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল ও বিরোধী দল বিজেপিকে সরাতে হলে হাতে হাত ধরে চলা উচিত বলে প্রথম থেকেই সওয়াল করে এসেছেন বামেদের আলিমুদ্দিন স্ট্রিট ও কংগ্রেসের বিধান ভবনের নেতারা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বাম ও কংগ্রেস এই দুই দলের মধ্যে আসন সমঝোতা নিয়ে ঠিকমত দফারফা না হওয়ায় তাদের সেই জোট ভেস্তে গিয়েছে। বর্তমানে পৃথক পৃথক ভাবে এই রাজ্যের সমস্ত কেন্দ্রে প্রার্থী দিয়েছে তারা।

ফলে এবার লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের অনেক লোকসভা কেন্দ্রতেই চতুর্মুখী লড়াইয়ের আভাস পাচ্ছে রাজনৈতিক মহল। কিন্তু রাজ্যে এই বাম এবং কংগ্রেসের জোট না হওয়াতে ঠিক লাভবান হবে কারা? একাংশের মতে, বাম এবং কংগ্রেসের যে সমস্ত নীচুতলার নেতা-কর্মীরা জোটের পক্ষে সওয়াল করেছিলেন, তাদের আশায় ছাই পরাতে অনেকেই শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিরোধী শক্তিকে টিকিয়ে রাখতে বিজেপিকে ভোট দিতে পারেন। ফলে সেদিক থেকে অনেকটাই লাভবান হতে পারে রাজ্যের গেরুয়া শিবির।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

ইতিমধ্যেই এই ব্যাপারে আশার আলো দেখে বিজেপিও বিভিন্ন কেন্দ্রে জোর প্রচার শুরু করে দিয়েছে। এমনকি বাম এবং কংগ্রেসের ভোটব্যাংককে নিজেদের দিকে টানতে উদ্যোগীও হয়েছে তারা। তবে বাম এবং কংগ্রেসের এই জোট না হওয়াতে কোনোভাবেই বিজেপি উপকৃত হবে না। বরং এতে তাদেরই লাভ হবে বলে আশা করতে শুরু করেছে রাজ্যের শাসক দল ঘাসফুল শিবির।

তৃণমূলের দাবি, বাংলার মানুষ কখনোই সাম্প্রদায়িক শক্তির পক্ষে সমর্থন করবে না। আর তাই সেদিক থেকে এই দুই দলের জোট না হওয়ায় তাদের সিংহভাগ নেতাকর্মী তৃণমূলকেই সমর্থন করবেন। তবে রাজনৈতিক মহলের অনেকে অবশ্য মনে করছেন, বাম এবং কংগ্রেসের জোট বা সমঝোতা না হওয়ায় কিছুটা হলেও রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল লাভবান হতে পারে। তবে শেষ পর্যন্ত রাজনীতির অংক ঠিক কোন দিকে মোড় নেবে তা নিশ্চিত করে বলতে পারবে না কেউই। তাই এই ভোট ভাগাভাগিতে কে শেষ হাসি হাসে তা দেখবার জন্য নজর রাখতেই হবে আগামী 23 মের দিকে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!