এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > এবার বিজেপি ছাড়তে চলেছেন বাংলার এই হেভিওয়েট নেতা, জোর জল্পনা!

এবার বিজেপি ছাড়তে চলেছেন বাংলার এই হেভিওয়েট নেতা, জোর জল্পনা!



প্রায় বেশ কিছুদিন ধরেই বিজেপির সঙ্গে তার বনিবনা হচ্ছিল না। আর এবার নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে স্বপক্ষে প্রচার করতে যখন ব্যস্ত গোটা গেরুয়া শিবির, ঠিক তখনই দল ছাড়ার হুঁশিয়ারি দিলেন নেতাজির প্রপৌত্র চন্দ্র বসু। শুধু তাই নয়, সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবিতে নেতাজি সুভাষচন্দ্রের হাতে বিজেপির পতাকা ধরিয়ে দেওয়া নিয়ে চরম বিতর্ক তৈরি হয়। এদিন সেই প্রসঙ্গে মুখ খুলে নিজের দল ভারতীয় জনতা পার্টির সমালোচনা করেন চন্দ্র বসু।

আর একের পর এক বিভিন্ন ইস্যুতে বিজেপির সম্পর্কে সমালোচনা করায় এখন চন্দ্র বসু বিজেপি ত্যাগ করতে পারেন বলে মনে করছে একাংশ। সূত্রের খবর, সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে যে, সম্প্রতি নাগরিকত্ব আইনের পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপির অবস্থান নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিয়েছেন নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর পরিবারের এই সদস্য। যেখানে তিনি বলেন, “দল যদি আইন সংশোধন না করে, তাহলে আমি বিজেপি ছাড়ার চিন্তাভাবনা করব।”

শুধু তাই নয়, নিজের সুর চড়িয়ে বিজেপি নেতা আরও বলেন, “নাগরিকত্ব নিয়ে যে আন্দোলন সারা ভারতবর্ষে, এটা সমাধান করা খুব সহজ। সরকার যদি স্পষ্ট করে জানিয়ে দেয়, হিন্দু, মুসলমান, খ্রিস্টান সবাই নাগরিকত্ব পাবে, তাহলেই বিষয়টি সমাধান হয়ে যায়। ধমক দিয়ে কোনো আইন কার্যকর করা যায় না।” সুভাষচন্দ্র বসুর হাতে বিজেপির পতাকা ধরিয়ে দেওয়া নিয়েও এদিন সরব হন চন্দ্র বসু।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তিনি বলেন, “সুভাষচন্দ্র বসুর রাজনৈতিক ব্যক্তি হলেও, তিনি ছিলেন। রাজনীতির উর্ধ্বে আমি মনে করি না, কোনো রাজনৈতিক দলই আজ নেতাজিকে তাদের বলে দাবি করতে পারে।” অন্যদিকে তিনি বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সময় নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহ নেতাজির ভাবাদর্শে কাজ করার কথা বললেও বর্তমানে তা হচ্ছে না বলেও দাবি করেন এই বিজেপি নেতা। এদিকে চন্দ্র বসু এদিন বিজেপিকে বিঁধে নানা প্রশ্ন করলেও, তাকে পাল্টা কটাক্ষ করেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

তিনি বলেন, “ওনাকে কে নেতা বানিয়েছে, কটা ভোট পেয়েছিলেন, আগে একটা পঞ্চায়েতে জিতে আসুন, তারপরে বড় বড় কথা বলবেন।” আর এই ঘটনা থেকেই পরিষ্কার যে বিজেপির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন হতে চলেছে নেতাজির নাতি চন্দ্র বসুর। তবে গোটা পরিস্থিতি এখন কোন দিকে মোড় নেয়! সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!