এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কুণালকে “পকেটমার” বললেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী! জোর শোরগোল

কুণালকে “পকেটমার” বললেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী! জোর শোরগোল



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –এতদিন তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করার পর মুকুল রায় থেকে শুরু করে শোভন চট্টোপাধ্যায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক মন্তব্য করতে শুরু করেছিলেন। তবে অনেকদিন আগে শোভন চট্টোপাধ্যায় বিজেপিতে নাম লেখালেও সেভাবে দলের কোনো কর্মসূচিতে যোগদান করতে দেখা যায়নি তাকে। শুধু তাই নয়, প্রাক্তন দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে তিনি বিস্ফোরক মন্তব্য করবেন বলে মনে করা হলেও, সেভাবে সেরকম কিছুই করতে দেখা যায়নি তাকে।

তবে সাম্প্রতিককালে দলের মিটিং মিছিলে উপস্থিত হতে শুরু করেছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। আর তিনি যখন বিজেপির হয়ে মিটিং মিছিলে যোগদান করছেন, ঠিক তখনই তৃণমূলের পক্ষ থেকে তাকে আক্রমণ করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ। আর সেই কুণাল ঘোষের জবাব দিতে গিয়ে তাঁকে “পকেটমার” বলে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার হেস্টিংসে বিজেপির নতুন কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। আর সেখানেই তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষকে আক্রমণ করেন তিনি। শোভন চট্টোপাধ্যায় বলেন, “তৃণমূল একটা পকেটমারকে ধরে এনে মুখপাত্র করেছে। আগে কোনদিন রাজনীতিতে ছিল না। সাংবাদিকতা করত। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ওকে সাংসদ করেছে। মানুষ সব জানে। বাসে উঠলে দেখবেন কোনো পকেটমার ধরা পড়লে সে অন্য লোককে উদ্দেশ্য করে চিৎকার করতে থাকে, পকেটমার ধরা পড়েছে। একথা বলে এভাবে সে দৃষ্টি ঘুরিয়ে দিতে চায়। কুনাল সেই কাজটা করার চেষ্টা করছে। চিট ফান্ড কেলেঙ্কারিতে ওর ভূমিকার কথা সবাই জানে। দীর্ঘদিন জেল খেটেছে। তার অভিযোগের উত্তর আমি কি দেব। মনে রাখবেন কুণাল ঘোষের সার্টিফিকেট আমার প্রয়োজন নেই। মানুষ সব বুঝতে পারছে। আমি 36 বছর ধরে জনপ্রতিনিধি রয়েছি কলকাতার। তাই মানুষ জানে আমার ভূমিকার কথা।”


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

একাংশ বলছেন, শোভন চট্টোপাধ্যায় কথা বলে বুঝিয়ে দিতে চাইলেন যে, কুনাল ঘোষ যে অভিযোগ করছে, সেই অভিযোগে তিনি নিজেই ইতিমধ্যে জেল খেটেছেন। স্বাভাবিকভাবেই তার অভিযোগের কোনো উত্তর শোভন চট্টোপাধ্যায় যে দেবেন না, তাও নিজের বক্তব্যের মধ্য দিয়ে পরিষ্কার করে দেওয়ার চেষ্টা করলেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী।রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, শোভন চট্টোপাধ্যায় তৃণমূলের দুর্দিনের সঙ্গী। তাই তিনি এখন তৃনমূল ত্যাগ করে গেরুয়া শিবিরে নাম লিখিয়েছেন। সেদিক থেকে ভেতরের অনেক খবর শোভন চট্টোপাধ্যায়ের জানা। তাই তিনি এখন যদি বিজেপির হয়ে ব্যাটিং করে এরকম বোমা ফাটাতে শুরু করেন, তাহলে তৃনমূল যে বড় চাপের মুখে পড়বে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!