এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > কার ‘অঙ্গুলিহেলনে’ কর্নাটকে চলবে সরকার স্পষ্ট করে দিলেন কুমারস্বামী

কার ‘অঙ্গুলিহেলনে’ কর্নাটকে চলবে সরকার স্পষ্ট করে দিলেন কুমারস্বামী



নানা চাপানউতোর পরিস্থিতি পেরিয়ে এদিন ঘটা করে সম্পন্ন হল কুমারস্বামীর মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান। তবে কর্নাটকের রশি হাতে ধরার সঙ্গে সঙ্গেই নানা কানাঘুষো শুরু হয়ে গেছে রাজনৈতিকমহলে। জানা যাচ্ছে, কয়েকজন তাবড় তাবড় এমএলএল এর জোরেই নাকি সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছেন কুমারস্বামী। তাই নাকি তার আগামী দিনগুলো খুব বেশি সুখের হবে না। অন্যদিক থেকে কানাঘুষো শুরু হয়েছে যে কুমারস্বামীর পেছনে বসে নাকি ছড়ি ঘোরাবে প্রাক্তন জেডিএস নেতা তথা বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী দেবেগৌড়া।  রাজ্যের কয়েকজন শীর্ষ নেতৃত্বদের দেবেগৌড়ার সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার ঘটনায় জল্পনা আরো বেড়েছে। এসব জল্পনায় মাটি ফেলে দিলেন এদিন কুমারস্বামী নিজেই। আওয়াজ তুলে জানালেন তিনি মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্যের লাগাম তাঁর হাতেই থাকবে। এর পাশাপাশি তিনি জানান যে রাজনীতি বিষয়ে তিনি তাঁর বাবার কাছ থেকে অবশ্যই পরামর্শ নেবেন। আরো জানালেন যে বিজেপি তাঁদের জোট সরকারের ভবিষ্যত নিয়ে যতই সন্দেহ প্রকাশ করুক না কেন, কুমারস্বামীর বিশ্বাস আছে নিজের প্রতি যে রাজ্যকে ঠিকঠাক ভাবেই পরিচালনা করতে পারবেন তিনি।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

জানা গেছে, এদিনের কুমারস্বামীর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিল বিজেপি বিরোধী বাঘা বাঘা নেতারা। কুমারস্বামী মনে করেন তাঁর মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথগ্রহণ দেশের রাজনীতিতে একটি নতুন অধ্যায়ের সূচনা হল। আর কংগ্রেস-জেডিএস এর জোট সরকার নিয়ে যে উচ্ছ্বাস দেখা গেছে তাতে কুমারস্বামী আরো আত্মবিশ্বাসী হয়ে পড়েছেন। তিনি জানেন সামনের পথে চড়াই উতরাই আছে তবে জোট সরকারকে দিয়ে কীভাবে রাজ্য সফলভাবে চালাতে হয় তা তিনি ভালোভাবেই জানেন। অতীত তাকে সে শিক্ষাই দিয়েছে।  ভোটের আগে কে তাকে নিয়ে কী মন্তব্য করেছে তা ভুলতে চান তিনি। তিনি সোজা পথে চলে রাজ্য সামলাবেন। এছাড়া তিনি আরো জানান যে, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়ার জামানা কোনো প্রকল্প তিনি বাতিল করবেন না ক্ষমতায় এসেছেন বলে,বরং তাতে যোগ করবেন আরো নতুন কিছু প্রকল্প।

তবুও বিজেপি অভিযোগে সরব হয়েছে কুমারস্বামী সিংহাসনে বসার সঙ্গে সঙ্গেই। বিধানসভা নির্বাচনের আগে জেডিএস নাকি কথা দিয়েছিলো রাজ্যের দায়িত্বভার গ্রহণ করে নাকি ২৪ ঘন্টার ভিতর কৃষকদের ঋণ মুকুব করে দেবে। এই প্রতিশ্রুতি নাকি ভঙ্গ করেছে কুমারস্বামী। এমনটাই দাবী গেরুয়াশিবিরের। পাল্টা জবাবে কুমারস্বামী জানান যে,কর্নাটকে জোট সরকার রাজত্ব করছে,শুধু জেডিএস চালাচ্ছে না। তাই যা সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে সেটা দলের সব কর্তাব্যক্তিদের সাথে আলোচনা করেই। সেভাবেই এগোবেন তাঁরা। তবে প্রথমে কৃষকেদের ঋণ মুকুব নিশ্চয়ই হবে। এই বলে এদিন আশ্বাস দেন কর্নাটকের নতুন মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!