এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ‘কয়লা ধুলে ময়লা যায় না’ মমতাকে কড়া আক্রমণ মোদীর!

‘কয়লা ধুলে ময়লা যায় না’ মমতাকে কড়া আক্রমণ মোদীর!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – তৃতীয় দফার নির্বাচনকে কেন্দ্র করে যখন উত্তেজনা চরম পর্যায়ে পৌঁছে গেছে রাজ্যে, তখন একই দিনে দুই জায়গায় সভা করছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। একদিকে কোচবিহার এবং অন্যদিকে দক্ষিণবঙ্গের ডোমজুড়ে দলীয় প্রার্থীদের সমর্থনে সভা করতে দেখা গেছে তাকে। বলা বাহুল্য, এইবার বিজেপির টার্গেট রাজ্যের 200 আসন দখল করে বাংলার ক্ষমতা দখল করা।

আর সেই লক্ষ্য নিয়ে রাজ্যে প্রায়শই আসতে দেখা যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে। যেখানে রাজ্যের তৃণমূল সরকার বিড়ম্বনা বাড়িয়ে দিয়ে দুর্নীতিকে প্রধান হাতিয়ার করে মন্তব্য করতে দেখা যাচ্ছে বিজেপির নেতা নেত্রীদের। আর এবার রাজ্যে এসে সভা করে কয়লা ধুলে ময়লা যায় না বলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

সূত্রের খবর, আজ ডোমজুড়ের সভা থেকে তৃণমূল নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন প্রধানমন্ত্রী। যেখানে তিনি বলেন, “আপনি বাংলার মানুষের বিশ্বাস ভঙ্গ করেছেন। বাংলায় ভাবুক, আবেগপ্রবণ লোক আছে। আপনি বাংলার মানুষের মন ভেঙে দিয়েছেন। দিদি মনে রাখবেন, পাপের ধন প্রায়শ্চিত্তে যায়। কয়লা ধুলে ময়লা যায় না।”

স্বাভাবিক ভাবেই প্রধানমন্ত্রীর এই মন্তব্যকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক শোরগোল পড়ে গিয়েছে। সারদা থেকে শুরু করে নারদা, বিভিন্ন ঘটনায় তৃণমূলের অনেক নেতা থেকে শুরু করে জনপ্রতিনিধিদের নাম জড়িয়েছে। ইতিমধ্যেই এই বিষয় নিয়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। আর ভোটের ময়দানে কাটমানি থেকে শুরু করে বিভিন্ন ইস্যুতে তৃণমূলের বিড়ম্বনা বাড়িয়ে দিতে দেখা যাচ্ছে বিজেপি নেতাদের।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

সেক্ষেত্রে কয়লা ধুলে ময়লা যায় না বলে পরোক্ষে তৃণমূলের দুর্নীতির বিষয়ে তুলে ধরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে দিলেন নরেন্দ্র মোদী বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।বিজেপির পক্ষ থেকে প্রতি সময় দাবি করা হচ্ছে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অনেক স্বপ্ন নিয়ে বাংলার মানুষ ক্ষমতায় এসেছিলেন। কিন্তু ক্ষমতায় আসার পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে। বর্তমানে তৃণমূল দলটা তোলাবাজিতে পরিপূর্ণ হয়ে গেছে।

তাই এই পরিস্থিতিতে রাজ্য পরিবর্তনের পরিবর্তন করতে গেলে বিজেপিকে ক্ষমতায় আনতে হবে। সেক্ষেত্রে বিজেপিকে ক্ষমতায় আনার লক্ষ্যে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন জায়গায় সভা-সমিতি করে তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে দেখা যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে। আর তৃতীয় দফার নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজ্যে যখন উত্তেজনা চরমে পৌঁছেছে, তখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফের আরও একবার এক হাত নিলেন প্রধানমন্ত্রী।

যেখানে দুর্নীতি ইস্যুতে মন্তব্য করে তৃণমূল সরকার মানুষের স্বপ্ন পূরণ করতে পারেনি বলে দাবি করতে দেখা গেল নরেন্দ্র মোদীকে। তাই প্রধানমন্ত্রীর এই মন্তব্য যে ভোটের ময়দানে তৃণমূলের অস্বস্তি ব্যাপকভাবে বাড়িয়ে দেবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। সব মিলিয়ে কটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!