এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান > মন্ত্রীর নির্দেশ অমান্য করে ২১ শে জুলাইয়ের জন্য যাত্রী হেনস্থা শুরুর বিস্ফোরক অভিযোগ

মন্ত্রীর নির্দেশ অমান্য করে ২১ শে জুলাইয়ের জন্য যাত্রী হেনস্থা শুরুর বিস্ফোরক অভিযোগ



আজ ২১ শে জুলাই তৃণমূলের বার্ষিক অনুষ্ঠান শহীদ দিবস। ধর্মতলায় মঞ্চ প্রস্তুত। জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি কী বার্তা দেন তাই নিয়ে আগ্রহ তুঙ্গে। গতকাল অর্থাৎ শুক্রবার সংসদে অনাস্থা প্রস্তাবে বিজেপি-র জিতলেও মমতা সেটাকে বিশেষ আমল দেননি। এই পরিস্থিতিতে শহীদ দিবসের মঞ্চ থেকে তৃণমূল সুপ্রিমো কংগ্রেসের সঙ্গে নির্বাচনী বোঝাপড়া বিষয়ে অবস্থান স্পষ্ট করেন কি না সেই দিকে তাকিয়ে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

স্বাভাবিকভাবেই শহীদ দিবস নিয়ে তৃণমূলের কর্মী -সমর্থকদের উৎসাহ চোখে পড়ার মতো। রাজ্যের নানা প্রান্ত থেকে দলের কর্মী সমর্থকদের সভাস্থল ধর্মতলায় উপস্থিত করার জন্য নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর সঙ্গে মাথা চাড়া দিয়েছে বিতর্কও। জানা গেছে, তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকদের আনতে বিভিন্ন রুট থেকে তুলে নেওয়া হচ্ছে বাস। বিপাকে পড়ছেন যাত্রীরা। অভিযোগ, ১৭ জুলাই থেকেই শাসক দলের হস্তক্ষেপে খণ্ডঘোষে বিভিন্ন রুট থেকে যাত্রীদের নামিয়ে বাস তুলে নেওয়া হয়েছে। এদিন সন্ধ্যায় খণ্ডঘোষ-বাঁকুড়া রুটে কেশবপুর স্টপেজে একটি যাত্রীবাহী বাস দাঁড় করিয়ে যাত্রীদের রাস্তায় নামিয়ে দেওয়া হয়। তারপর বাস নিয়ে যাওয়া হয় দলীয় কাজে। দুপুরেও একই কায়দায় লোদনায় পর পর ছ’টি বাস তুলে নেওয়া হয়। ১৮ জুলাইও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। এদিকে নির্ধারিত সভার চারদিন আগে থেকে বাস তুলে নেওয়ার ঘটনায় ক্ষুব্ধ যাত্রীরা। গত বছরেও খণ্ডঘোষ এবং রায়নার বিভিন্ন রুটে প্রস্তাবিত সভার চার-পাঁচদিন আগেই বাস তুলে নেওয়া হয়েছিল বলে অভিযোগ করেছেন যাত্রীদের একাংশ।।
বাস তুলে নেওয়ার ঘটনার জেরে স্বাভাবিকভাবেই এলাকার সাধারণ মানুষের জনজীবন ব্যহত হয়েছে। বর্ধমানের তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি স্বপন দেবনাথ প্রত্যেক ব্লকের সভাপতিকে সভার দিনেই বাস নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন। অভিযোগ, সেই নির্দেশ অমাণ্য করেই গত ১৭ জুলাই থেকে খণ্ডঘোষে বিভিন্ন রুট থেকে বাস তুলে নেওয়া হচ্ছে। এই প্রসঙ্গে খণ্ডঘোষ ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি অপার্থিব ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, “পাত্রসায়র, ইন্দাস, বাঁকুড়া এলাকার তৃণমূল কর্মীরা বাস তুলে নিয়েছেন। যার ফলে বাঁকুড়া-বর্ধমান রুটে বাস কমে গিয়েছে। খণ্ডঘোষ থেকে কোনও বাস আটকানো হয়নি।”

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!