এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কবে থেকে চালু হতে পারে লোকাল ট্রেন? রাজ্য সরকারের তরফে এল বড়সড় ইঙ্গিত, জানুন বিস্তারিতভাবে

কবে থেকে চালু হতে পারে লোকাল ট্রেন? রাজ্য সরকারের তরফে এল বড়সড় ইঙ্গিত, জানুন বিস্তারিতভাবে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট লকডাউন এর প্রাথমিক পর্ব থেকে দেশজুড়ে বন্ধ হয়ে গেছে গণ পরিবহণ ব্যবস্থা। ধীরে ধীরে আনলক পর্বে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেও এখনো পর্যন্ত লোকাল ট্রেন চলাচল শুরু হয়নি রাজ্যে। অন্যদিকে রাজ্যে ট্রেন চালানোর দাবি তুলেছে ইতিমধ্যেই বিরোধীরা। ট্রেন না চলায় বিভিন্ন স্টেশনে প্রায় প্রতিদিনই বিক্ষোভ, হাঙ্গামার ঘটনা চোখে পড়ছে। পরিস্থিতি সামলাতে এবার রেলের তরফ থেকে নবান্নে চিঠি দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। সম্প্রতি লোকাল ট্রেন চালানো নিয়ে রাজ্য সরকারের কাছে রেলের তরফ থেকে চিঠি দিয়ে জিজ্ঞাসা করা হয় কবে তাঁরা লোকাল ট্রেন চালাতে চাইছে? রাজ্য সরকার অবশ্য নেতিবাচক উত্তরই দিয়েছে।

অন্যদিকে জানা গেছে পূর্ব রেলের জেনারেল ম্যানেজারের তরফ থেকে রাজ্যের ডেপুটি চিফ সেক্রেটারিকে ইতিমধ্যে চিঠি পাঠানো হয়েছে এবং জানানো হয়েছে, লোকাল ট্রেন না চলার কারণে ক্ষিপ্ত জনতা রেলের সম্পত্তি নষ্ট করছে। তাই এবার রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্ত জানা জরুরী বলে মনে করা হচ্ছে। প্রসঙ্গত, গত 21 শে মার্চ থেকে দেশজুড়ে লোকাল ট্রেন পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। একদিকে সাধারণ মানুষ যেরকম অসুবিধার মধ্যে পড়েছে, ঠিক সেরকমই অন্যদিকে ভারতীয় রেল পড়েছে প্রবল ক্ষতির মুখে।

রেলের তথ্য অনুযায়ী শিয়ালদা ডিভিশনের লোকাল ট্রেন চালিয়ে রেলের বার্ষিক আয় হয় প্রায় সাড়ে 400 কোটি টাকা। ঠিক সেভাবেই হাওড়ায় আয় হয় 228 কোটি টাকা। যা এ বছরের মার্চের 21 তারিখের পর থেকে প্রায় পুরোপুরি বন্ধ হয়ে গেছে। ইতিমধ্যেই বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ পশ্চিমবঙ্গে ট্রেন চালানোর দাবি করেছেন। অন্যদিকে দিন দুয়েক আগে রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলকে লোকাল ট্রেন চালানোর অনুরোধ জানিয়ে চিঠি লিখেছিলেন বিজেপি সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

একইভাবে বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়ও লোকাল ট্রেন চালানোর দাবি তুলেছেন। অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রীকে ট্রেন চালানোর অনুরোধ করে ইতিমধ্যে বাম ও কংগ্রেসের পক্ষ থেকে যথাক্রমে সুজন চক্রবর্তী ও আবদুল মান্নান মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছেন বলে জানা গেছে। যেভাবে মেট্রো চলাচল শুরু হয়েছে, ঠিক সেভাবেই যাতে লোকাল ট্রেন চালানো শুরু হয় সে অনুরোধ করেছেন তাঁরা। কিন্তু রাজ্য সূত্রে জানা যাচ্ছে, লোকাল ট্রেন চালু করার ব্যাপারে রাজ্য সরকার এখনই আগ্রহী নয়। অন্তত পুজোর আগে তো কোনভাবেই নয়। সে ক্ষেত্রে জানা গেছে, দুর্গাপুজোর পর করোনা সংক্রমণ রাজ্যে কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, তা দেখে লোকাল ট্রেন চালানোর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্য সরকার।

অন্যদিকে দীর্ঘদিন ধরে লোকাল ট্রেন বন্ধ থাকার কারণে আমজনতার ধৈর্যের বাঁধ ভেঙেছে বলে মনে করা হচ্ছে। শুধুমাত্র রেল কর্মীদের জন্য বিভিন্ন রুটে ট্রেন চলাচল করলেও সাধারণ যাত্রীরা কোনো বাধা না মেনে সেই ট্রেনে উঠে পড়ছে। ফলস্বরূপ, রেল পুলিশের সঙ্গে গন্ডগোল শুরু হচ্ছে সাধারণ যাত্রীদের। তবে কানাঘুষো লোকাল ট্রেন চালু হবার কথা শোনা গেলেও রাজ্য সরকার এদিন স্পষ্ট করে দিয়েছে, এই মুহূর্তে লোকাল ট্রেন চালানোর কোনো প্রশ্ন নেই। আপাতত দেখার, করোনা সংক্রমণের গতি কোন দিকে মোড় নেয় কারণ করোনার ওপরই নির্ভর করছে রাজ্যের ট্রেন চলাচল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!