এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > কবে মুখ্যমন্ত্রীকে ‘ফেয়ারওয়েল’ দিয়ে নতুন সরকারের শপথ সপ্তমীতেই নিশ্চিত করলেন হেভিওয়েট নেতা

কবে মুখ্যমন্ত্রীকে ‘ফেয়ারওয়েল’ দিয়ে নতুন সরকারের শপথ সপ্তমীতেই নিশ্চিত করলেন হেভিওয়েট নেতা



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – যত দিন যাচ্ছে, ততই বিহারের রাজনীতির জমজমাট হতে শুরু করেছে।লালুপ্রসাদ যাদব না থাকলেও বিজেপি এবং নীতীশ কুমারের দলের জোটকে কার্যত কটাক্ষ করে জনসভায় উপস্থিত হতে দেখা যাচ্ছে তাঁর পুত্র তেজস্বী যাদবকে। যেনতেন প্রকারেন নীতীশ কুমারের সরকার এবার গঠন করতে না দেওয়াই তেজস্বী যাদবের কাছে প্রধান লক্ষ্য। আর এবার বিহারের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের ফেয়ারওয়েল কবে হবে, তা জানিয়ে দিবেন লালুপ্রসাদ যাদবের পুত্র তেজস্বী যাদব।

যা বিহারের বিধানসভা নির্বাচনের আগে সেখানকার রাজনৈতিক পরিস্থিতিকে ক্রমাগত উত্তপ্ত করে তুলল বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। ঠিক কি এমন বললেন তেজস্বী যাদব? সূত্রের খবর, এদিন একটি জনসভায় আরজেডির তেজস্বী যাদব বলেন, “মুখ্যমন্ত্রীজী আপনি ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন। বিহারের দেখভাল করতে পারছেন নাঋ দুর্নীতি দমন করতে পারছেন না। আপনি বিহারের মানুষকে কাজ দিতে পারেননি। ঘর ছেড়ে তাদের অন্য রাজ্যে যেতে হয়েছে। এবার আপনাকে গদি ছাড়া করবে।” আর এরপরই মুখ্যমন্ত্রীকে ফেয়ারওয়েল দেওয়ার কথা জানিয়ে দেন এই হেভিওয়েট নেতা।

তিনি বলেন, “লালুজী 9 তারিখ মুক্তি পাবেন। উনি একটি মামলায় ইতিমধ্যেই জামিন পেয়েছেন। 9 নভেম্বর অন্য একটি মামলায় জামিন পেয়ে যাবেন। সেদিন মুক্তি পাবেন। ওইদিন আমার বাবার জন্মদিন। পরদিন 10 তারিখ বিহার ভোটের গণনা হবে। সেদিন ফেয়ারওয়েল হয়ে যাবে নীতীশ কুমারের।” অর্থাৎ লালুপ্রসাদ যাদবের পুত্র নিজের বক্তব্যের মধ্য দিয়ে কার্যত স্পষ্ট করে দিলেন যে, এবারের বিধানসভা নির্বাচনে জয়লাভ করতে পারবে না নীতীশ কুমার এবং তার দল। তাই ভোটের গণনার দিন তার ফেয়ারওয়েল হয়ে যাবে বলে দাবি করলেন তেজস্বী যাদব।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিকে বিহারের অনুন্নয়ন নিয়েও এদিন নীতীশ কুমারকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন তেজস্বী যাদব। তিনি বলেন, “যারা 15 বছর ধরে বিহারের শিল্পায়ন করতে পারেনি, মানুষকে কাজ দিতে পারেনি, তারা আগামী পাঁচ বছরেও কিছু করতে পারবে না।” এদিকে তেজস্বী যাদব এই ধরনের কথা বললে তার পাল্টা প্রতিক্রিয়া দিয়েছে জেডিইউ এবং বিজেপি। এদিন এই প্রসঙ্গে বিজেপির মুখপাত্র বলেন, “নীতিশের জমানায় বড় সাফল্য হল শান্তি-শৃঙ্খলা স্থাপন করা। লালু জমানায় যে জঙ্গলরাজ চলেছিল, খুন অপহরণ চলেছিল, তা বন্ধ করা।”

তিনি আরও বলেন, “এখন সেসব নিতান্তই অতীত। বিহারে মহিলাদের ক্ষমতায়নের জন্য কাজ করে চলেছেন নীতীশ কুমার এবং তিনি রাস্তা, সেতু, রেলপথ সহ পরিকাঠামো উন্নয়ন করে শিল্প সহায়ক করে তুলেছেন।” স্বাভাবিক ভাবেই বিহারের বিধানসভা নির্বাচনের আগে এখন শাসক-বিরোধী তরজা ক্রমাগত ঊর্ধ্বে উঠতে শুরু করেছে। তবে যেভাবে লালুপ্রসাদ যাদবের পুত্র তেজস্বী যাদব ভোটের ফলাফল বেরোনোর দিন যেভাবে নীতীশ কুমারের ফেয়ারওয়েল হবে বলে জানিয়ে দিলেন, তাতে তার এই মন্তব্য কতটা বাস্তব হয়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!