এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > বিজেপি > ক্ষমতায় এলে পুলিশকে দিয়ে ‘পা চাটানোর’ কথা বলে রাজ্য জুড়ে তীব্র বিতর্ক তুলে দিলেন বিজেপি নেতা

ক্ষমতায় এলে পুলিশকে দিয়ে ‘পা চাটানোর’ কথা বলে রাজ্য জুড়ে তীব্র বিতর্ক তুলে দিলেন বিজেপি নেতা



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – গতকাল শুক্রবার রাজ্য জুড়ে বিজেপির ‘গণতন্ত্র বাঁচাও বাংলা বাঁচাও’ কর্মসূচিতে রাজ্য পুলিশের প্রতি বিতর্কিত মন্তব্য করতে দেখা গিয়েছিল রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষকে। রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়ও পুলিশের বিরুদ্ধে অনুরূপ বিতর্কিত মন্তব্য করলেন। জামুরিয়া, আসানসোল থেকে পুলিশের বিরুদ্ধে চরম বিতর্কিত মন্তব্য করে, হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি পুলিশকে দিয়ে পা চাটানোর মতো কটূক্তি করলেন। বাদ গেল না পুলিশকর্মীদের অন্যান্য পারিবারিক সদস্যরাও। সেইসঙ্গে তাঁর আক্রমণের লক্ষবস্তু হলেন আসানসোলের মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারি।

গতকাল শুক্রবার আসানসোলের বি.এন. আর. এ রবীন্দ্র ভবনের পার্শবর্তী স্থানে বিজেপির পশ্চিম বর্ধমান জেলা কমিটির আহ্বানে ‘গণতন্ত্র বাঁচাও বাংলা বাঁচাও’ প্রতিবাদ বিক্ষভে যোগ দানের জন্য আসানসোলে গিয়েছিলেন রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সেইসঙ্গে বিজেপির রাঢ়বঙ্গ পর্যবেক্ষক রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি ছাড়াও বিজেপির এই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন পশ্চিম বর্ধমান জেলা বিজেপি সভাপতি লক্ষণ ঘড়ুই, বিজেপির রাজ্য যুব মোর্চার সম্পাদক বাপ্পা চট্টোপাধ্যায়, বিজেপি নেতা এস.এন. লম্বা, সুব্রত মিশ্র প্রমুখেরা সহ আসানসোল পৌরসভার বিজেপি কাউন্সিলরেরা। রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস, রাজ্য পুলিশকে গতকাল চরমভাবে আক্রমণ করলেন রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ্য সরকারকে অভিযুক্ত করে তীব্র ভাষায় তিনি বললেন, ” রাজ্যে কোনও গণতন্ত্র নেই। তৃ্ণমূল কংগ্রেসের নেতাদের কথায় পুলিশ চলছে। আমাদের দলের নেতা ও কর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দেওয়া হচ্ছে। আমরা ক্ষমতায় আসতে চলেছি। তখন এইসব কিছুর বদলা নেব।”

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

শুধু পুলিশের প্রতিই বিষেদাগার নয় রাজ্য পুলিশের পরিবারের অন্যান্য সকল সদস্যদের প্রতিও বিরূপ মন্তব্য করতে ছাড়লেন না বিজেপি নেতা রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়। এই প্রসঙ্গে হুঁশিয়ারির সুরে তাঁকে বলতে শোনা গেল, ” ক্ষমতায় এলে পুলিশের ছেলেদের বিরুদ্ধেও মিথ্যা মামলা দেওয়া হবে। যেমনটা হচ্ছে আমাদের বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে।” বিজেপি নেতা রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়ের পুলিশ ও পুলিশের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে করা এই বিতর্কিত মন্তব্যের পর ব্যাপক শোরগোল পড়ে যায় রাজ্যের বিভিন্ন রাজনৈতিক মহলে।

রাজ্যের পুলিশের উপর বিষেদ্গারের পর তাঁর আক্রমণের লক্ষবস্তু হলেন, আসানসোল পৌরনিগমের মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারি। মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে তিনি প্রবল ভাবে আক্রমণ করে জানালেন, আসানসোলের মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারি একজন মাফিয়া। পুলিশের প্রতি তিনি তিনি জানালেন, পুলিশের যদি সাহস থাকে তবে মেয়রের বিরুদ্ধে মামলা করুক। তবে তিনি বুঝবেন মেরুদন্ড আছে পুলিশের। প্রসঙ্গত, তিনি আরও বললেন যে, ৬ মাস পরেই রাজ্যের ক্ষমতায় আসতে চলেছেন তাঁরা। এরপর বিখ্যাত হিন্দি সিনেমা ‘শোলে’র জনৈক ডাকাত চরিত্র কালিয়ার সঙ্গে তিনি মেয়রের তুলনা করে বললেন, ” অব তেরা কেয়া হোগা কালিয়া? ”

অন্যদিকে আসানসোলের স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব ও প্রশাসনকে আক্রমণ করে রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়ের বললেন, “এই খনি এলাকা থেকে অবৈধভাবে কয়লার পাচার হচ্ছে। তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা ও পুলিশের একাংশ এর পিছনে রয়েছে। ”

রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়ের একাধিক বিতর্কিত মন্তব্য প্রসঙ্গে আসানসোল পৌরনিগমের মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারি প্রতুত্তর করলেন, ” বিজেপি নেতা কর্মীদের বিদ্য বুদ্ধি নেই। ভগবানের কাছে প্রার্থনা করব, ওদের শুভবুদ্ধি হোক। তবে আমরাও বলতে পারবো “রাজু বান গ্যায়া জেন্টালম্যান ”।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!