এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > খড়গপুরে ভোট করাতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর আগমন-জানুন বিস্তারিত

খড়গপুরে ভোট করাতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর আগমন-জানুন বিস্তারিত



আগামী 25 শে নভেম্বর পশ্চিমবঙ্গের তিনটি কেন্দ্রে বিধানসভা উপনির্বাচন হতে চলেছে। আর এই উপনির্বাচনকে ঘিরে পশ্চিমবঙ্গের তিন জেলায় সাজো সাজো রব। রাজ্যের প্রতিটি দলই উপনির্বাচন গুলিতে নিজেদের দক্ষতা দেখাতে প্রস্তুতি নিচ্ছে। এই উপলক্ষে তাঁরা জোরদার নির্বাচনী প্রচার শুরু করে দিয়েছে। তবে এই উপনির্বাচনেও বিরোধীরা কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবি জানিয়েছে সুষ্ঠু ভোট পরিচালনা করার জন্য। আর সেই দাবি মাথায় রেখে কেন্দ্রের তরফ থেকে উপ নির্বাচনের জন্য কেন্দ্রীয় বাহিনী পাঠানো হয়েছে।

নির্বাচন কমিশনের কথা অনুযায়ী আগামী 25 নভেম্বর খড়গপুর বিধানসভা উপনির্বাচন। তার আগেই সেখানে কেন্দ্রীয় বাহিনী এসে রুটমার্চ ও এরিয়া ডোমিনেশন এর কাজ শুরু করেছে। খড়গপুর প্রশাসনের সাথে কেন্দ্রীয় বাহিনীর এক দফা বৈঠক হয় এদিন।কেন্দ্রীয় বাহিনীর পক্ষ থেকে খড়গপুর নিমপুরা এলাকায় এদিন কেন্দ্রীয় বাহিনী টহল দেয়। এলাকার সমস্ত গাড়ি, মোটরসাইকেল তল্লাশি চালায়। পরে তাঁরা ইন্দা এলাকায় পৌঁছায় টহল দেওয়ার জন্য।

কেন্দ্রীয় বাহিনীর পক্ষ থেকে খড়গপুর ঢোকার সমস্ত রাস্তায় টহল দেওয়া হবে বলে জানা গেছে। পরবর্তীকালে আরো কেন্দ্রীয় বাহিনী আসবে এই শহরে। গোটা শহর জুড়ে চলবে কেন্দ্রীয় বাহিনীর রুটমার্চ।বিধানসভা উপনির্বাচনে এবার খড়গপুর বিধানসভা কেন্দ্রে দাঁড়িয়েছেন বিজেপির প্রেম চাঁদ ঝা, অন্য দিকে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী প্রদীপ সরকার, যিনি খড়গপুর পুরসভার চেয়ারম্যান। এই আসনে জেতার জন্য এই মুহূর্তে বিজেপি ও তৃণমূল কংগ্রেস দুই দলই মরিয়া।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

 

কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা এলাকায় টহল দেওয়া শুরু করলেও বিজেপির দাবি কেন্দ্রীয় বাহিনীকে পরিচালনা করে রাজ্য পুলিশ। ফলে শহরের বিভিন্ন এলাকায় অপরাধমূলক কাজ চললেও তা কেন্দ্রীয় বাহিনীর চোখে পড়ে না। সেই সব জায়গার তালিকা করে বিজেপি নির্বাচন কমিশনের কাছে জমা দিতে চলেছে এবং সাথে আবেদন করতে চলেছে এই সব এলাকায় টহলদারি ঠিক করার জন্য।

আপাতত বলা যায়, খড়্গপুরে উপনির্বাচনে বিজেপি ও তৃণমূল কংগ্রেসের মধ্যে একটা প্রেস্টিজ ফাইট হতে চলেছে। উল্লেখ্য, খড়গপুর বিজেপির শক্ত ঘাঁটি বলেই পরিচিত। কেন্দ্রীয় বাহিনী ও রাজ্য পুলিশ এই বিতর্ককে দূরে সরিয়ে রেখে নির্বাচনী প্রচারে মনোনিবেশ করছে রাজ্যের প্রত্যেকটি দল। খড়গপুর বিজেপির শক্ত ঘাঁটি হওয়ায় লড়াই জমবে বলে মনে করা হচ্ছে।

অন্যদিকে, রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের দাবি, এই বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন এযাবৎকালের মধ্যে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন। তৃণমূল কংগ্রেস যদি খড়গপুর উপনির্বাচনে উল্লেখযোগ্য ফল করে, তাহলে রাজ্যে বিজেপির থেকে তাঁরা যে বেশ কয়েক কদম এগিয়ে যাবে, সে বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। আপাতত সমগ্র পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে রাজ্যের ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!