এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > কাঠুয়া-কাণ্ডে সুপ্রিম কোর্ট অবমাননা বিতর্কে নাম জড়িয়ে গেল ফিরহাদ হাকিমের

কাঠুয়া-কাণ্ডে সুপ্রিম কোর্ট অবমাননা বিতর্কে নাম জড়িয়ে গেল ফিরহাদ হাকিমের



কাঠুয়া-কাণ্ডে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পরেও জনসমক্ষে তা অবমাননা করলেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ববি হাকিম। রাজ্যের দায়িত্বশীল একজন মন্ত্রীর এহেন কর্তব্যে গাফিলতিতে সরব হয়ে উঠলো রাজনৈতিক মহল সহ আইনজীবি মহলও। এদিন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ববি হাকিম কাঠুয়া-কাণ্ডের প্রতিবাদে কলকাতায় ন্যাশনাল লাইব্রেরিতে আয়োজিত একটি সভায় উপস্থিত হয়েছিলেন। সেখানে মঞ্চের পিছন দিকে টাঙানো ব্যানারে ছাপানো ছিলো কাঠুয়ায় গণধর্ষিতা বালিকার নাম ও ছবি। উল্লেখ্য গত ২৪ শে এপ্রিল একটি পর্যবেক্ষণে সুপ্রিম কোর্টের দুই বিচারপতি মদন বি লোকুর ও দীপক গুপ্তার বেঞ্চ জানায়, মৃতেরও মর্যাদা রয়েছে। তাই ধর্ষিতা জীবিত থাকুন বা মৃত, তাঁর ব্যক্তিগত গোপনীয়তার অধিকার ও মর্যাদা রক্ষার জন্য তাঁর নামধাম, ছবি কখনওই প্রকাশ করা উচিত নয়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এই ঘটনায় সমালোচনায় সামিল হয়েছেন কলকাতার বিষিষ্ট আইনজীবিদের একাংশ। আইনজীবী অরুণাভ ঘোষ এই প্রসঙ্গে জানালেন, ”সুপ্রিম কোর্টের ওই বক্তব্যের পর মন্ত্রী (ববি হাকিম)-র এটা করা উচিত হয়নি।” বাম নেতা এবং আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য তাঁর প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বললেন, ”ওঁর (ববি হাকিম) মতো অনেকেই আদালতের রায়-টায় সম্পর্কে খবরাখবর রাখেন না। এটা ওঁর অজ্ঞানতারই প্রমাণ। খুবই অনভিপ্রেত ঘটনা।” মন্ত্রী নিজে অবশ্য এই ঘটনা জানার পরে স্বীকার করে নিয়েছেন যে আদালতের নির্দেশ সম্পর্কে তাঁর কিছু জানা ছিলোনা। ববি হাকিম এই বিষয়ে বললেন, ”শীর্ষ আদালতের ওই বক্তব্যের কথা আমি জানতাম না। কাঠুয়ার ঘটনা অত্যন্ত নিন্দনীয় ঘটনা। ওই নৃশংস ঘটনার প্রতিবাদ জানানোর দরকার বলেই ওখানে গিয়েছিলাম আয়োজকদের আমন্ত্রণে।”

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!