এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > কাটমানির অভিযোগে লিফলেট ছড়ানো হল কোলাঘাট তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে

কাটমানির অভিযোগে লিফলেট ছড়ানো হল কোলাঘাট তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – শ্রমিক নেতা ও ম্যানেজারের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ জানিয়ে লিফলেট পড়ে থাকতে দেখে গেল কোলাঘাট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে। তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের জেনারেল ম্যানেজার কৃষ্ণেন্দু চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে ও তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের বর্তমান দায়িত্বপ্রাপ্ত শ্রমিক নেতা দিব্যেন্দু রায়ের বিরুদ্ধে বিষেদাগার করে তৃণমূল ট্রেড ইউনিয়নের নামে পাওয়া গেল এই লিফলেট গুলি।

গতকাল সোমবার সকালে কোলাঘাট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভেতরের বেশ কিছু স্থানে এরকম একাধিক লিফলেট পড়ে থাকতে দেখা যায়। তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের অন্দরে বেশ কিছু বিষয় নিয়ে অভিযোগ জানাতে দেখা গেলো এই লিফলেটগুলিতে। লিফলেটে লেখা হয়েছে, কোলাঘাট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের পুরনো ক্যাজুয়াল ও পেরিনিয়্যাল শ্রমিকদের অপসারিত করে দিয়ে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রর জেনারেল ম্যানেজারের কৃষ্ণেন্দু চক্রবর্তী নতুন করে শ্রমিক নিয়োগ করেছেন।

অভিযোগ করা হয়েছে, তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের টারবাইন শাটডাউনের কাজের জন্যে নিয়োজিত পুরনো শ্রমিকদের বের করে দিয়ে বাইরে থেকে নতুন ১০০ জন শ্রমিককে আনা হয়েছে। এই তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের কর্মরত দুটি বিশেষ কোম্পানির ঠিকা শ্রমিকদেরকে অন্যায় ভাবে বসিয়ে দিয়ে নতুন শ্রমিকদের কাজে নেওয়া হয়েছে। অভিযোগ করা হয়েছে পুরনো সমস্ত শ্রমিক, অফিসারদের ঠিকাদার দিয়ে হেনস্থা পর্যন্ত করিয়েছেন তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের জেনারেল ম্যানেজার কৃষ্ণেন্দু চক্রবর্তী।

এছাড়া অভিযোগ করা হয়েছে, তাপবিদ্যুৎর পুরোনো শ্রমিকদের বঞ্চিত করে কেন্দ্রের নতুন শ্রমিক নেতা দিব্যেন্দু রায় কাটমানি নিয়েছেন। এই লিফলেটটিতে লেখা আছে, ” প্রচারে তৃণমূল কংগ্রেস ট্রেড ইউনিয়ন।”তবে, কোলাঘাট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের জেনারেল ম্যানেজার কৃষ্ণেন্দু চক্রবর্তী লিফলেট পাবার বিষয়টি পুরো অজানা বলে দাবি করেছেন। এ প্রসঙ্গে তাঁকে বলতে শোনা গেল, ” ‘‘লিফলেট ছড়ানোর কথা জানি না।”


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার তৃণমূল কংগ্রেস ট্রেড ইউনিয়নের সভাপতি ও সেইসঙ্গে কোলাঘাট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র শ্রমিক সংগঠনের পর্যবেক্ষক দিব্যেন্দু রায়কেও এই লিফলেট পাবার বিষয়টিকে সম্পূর্ণভাবে নস্যাৎ করতে দেখা গেল। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘‘ আমাদের সংগঠনের মধ্যে ভাঙন ধরাতে কেউ এ ধরনের কাজ করছেন। আমরা তদন্ত করে এর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেব। তা ছাড়া লিফলেটে যে সমস্ত অভিযোগ আনা হয়েছে তা ভিত্তিহীন। ’’

তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রটির ভিতরে এভাবে আচমকা লিফলেট মেলায় নানা রকম জল্পনা শুরু হয়েছে, প্রশ্ন উঠেছে একাধিক। প্রসঙ্গত, গত ২০১০ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত কোলাঘাট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের শ্রমিক সংগঠন কোলাঘাট থার্মাল পাওয়ার স্টেশন ন্যাশনালিস্ট ঠিকা শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যকরী সভাপতি ছিলেন দিবাকর জানা।

চলতি ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের বেশকিছু আধিকারিককে হেনস্থার অভিযোগ এনে তাঁকে সভাপতির পদ থেকে অপসারণ করা হয়। তাঁর স্থলাভিষিক্ত হন শুভেন্দু অধিকারীর বিশেষ দিব্যেন্দু রায়, অসিত বন্দ্যোপাধ্যায় ও শিবনাথ সরকার। তাই তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে এই লিফলেট বিলির ঘটনায় পূর্বোক্ত সভাপতির অনুগামীদের হাত থাকতে পারে বলে অনেকের অনুমান।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!