এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > আতঙ্কের রাত্রির সাক্ষী থাকল কর্ণাটক। সমবেদনা জানালেন প্রধানমন্ত্রী।

আতঙ্কের রাত্রির সাক্ষী থাকল কর্ণাটক। সমবেদনা জানালেন প্রধানমন্ত্রী।



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – সময়টা ছিল বৃহস্পতিবার রাত ১০:২০ মিনিট। শীতের কাঁপুনির মাঝে রাতে বাড়িতে শোবার তোড়জোড় করছিলেন কর্ণাটকের শিবমোগার মানুষজন। ঠিক সেই সময়ই হঠাৎ জোরালো বিস্ফোরণ এর শব্দ শুনতে পান মানুষ। প্রবল শব্দের সঙ্গে কেঁপে ওঠে কর্নাটকের শিবমোগা। ভূমিকম্পের আশঙ্কায় মানুষের রাতের ঘুম ছুটে যায়। বস্তুত, শিবমোগার হুনাসোদু গ্রামের কাছে ডিনামাইট বিস্ফোরণই এই ঘটনার আসল কারণ হিসেবে সামনে আসে।

গতকালের এই ঘটনায় আপাতত মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে আটজনের। সেইসঙ্গে সংখ্যাটা আরও বাড়তে পারে বলেই আশঙ্কা করা হচ্ছে। তথ্য সূত্রে জানা গেছে সেই বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই বেশি ছিল যে পার্শ্ববর্তী চিকমাগালুর এবং দাভানগেরে জেলাতেও কম্পন অনুভূত হয়। পিটিআই সূত্রে জানা যায়, বিস্ফোরণের তীব্রতায় রাস্তা এবং বাড়িতে ফাটল ধরেছে। সেইসঙ্গে একাধিক বাড়িতে জানলার কাচ ভেঙে পড়েছে।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

পরবর্তীকালে পুলিশ সূত্রে পিটিআইকে জানান হয় যে, খনন কার্যের জন্য একটি লরিতে করে জিলাটিন নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। আর সেই সময়ই বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণে ওই দুর্ঘটনা গ্রস্ত লরিটি দুমড়ে-মুচড়ে গেছে বলেও জানা গেছে। সেইসঙ্গে লরিতে থাকা মানুষজন ছিন্নভিন্ন হয়ে যায়। বিস্ফোরণের মাত্রা এতটাই তীব্র ছিল যে নিহতদের কাউকে চিহ্নিত করা যাচ্ছিল না।

এরপর ঘটনার খবর পেয়ে শিবমোগার পুলিশ সুপার-সহ জেলা প্রশাসন এবং পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্তারা ঘটনাস্থলে যান। অন্যদিকে, এই ঘটনায় শোকপ্রকাশ করতে দেখা গেছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে। এই ঘটনার পর তিনি বলেন শিবমোগায় প্রাণহানির খবরে তিনি ব্যথিত। সেইসঙ্গে আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনাও করেছেন তিনি। এই ঘটনায় রাজ্য সরকারের তরফে যাবতীয় সহায়তা প্রদান করা হবে বলেও আশ্বাস দিতে দেখা গেছে তাঁকে। সেইসঙ্গে দুর্ঘটনা গ্রস্ত শোকাহত পরিবারগুলিকে তিনি সমবেদনা জানিয়েছেন।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!