এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > কার্গিল গার্লের কঠিন চরিত্রে কেমন করলেন শ্রীদেবী কন্যা জাহ্নবী? কি জানাচ্ছে নেট দুনিয়া?

কার্গিল গার্লের কঠিন চরিত্রে কেমন করলেন শ্রীদেবী কন্যা জাহ্নবী? কি জানাচ্ছে নেট দুনিয়া?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –সমাজে পুরুষ এবং নারীর অধিকার সামনে সমান। পুরুষ যা করতে পারে, একজন নারী হিসেবে সেই কাজের কমতি হয়না। তবে আমরা যতই এই কথা মুখে বলিনা কেনো, কতজন যে মনে মনে সেটা মেনে নিই সেটাই আসল কথা। পিতৃতান্ত্রিক সমাজে সেই মন তৈরি হওয়া বড্ড কঠিন। একটি মানুষের জীবনের প্রথম শিক্ষা আসে তার পরিবার থেকে। সেই গোড়ায় গলদ কে কাটিয়ে কজন মানুষের মধ্যে নারীর অধিকার নিয়ে প্রশ্ন ওঠে?

তবে সেই যুদ্ধে যে পিছিয়ে পড়তে রাজি নয় মেয়েরা সেটা বহুবার প্রমাণিত হয়েছে। এমনই একটি মেয়ে গুঞ্জন সক্সেনা, যাকে নিয়ে বলিউডে তৈরি হয়ে গেল নতুন বায়োপিক। সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন শরণ শর্মা। অভিনয়ে গুঞ্জনের চরিত্রে কাজ করেছেন জাহ্নবী কাপুর। আর তাঁর বাবার চরিত্রে পঙ্কজ ত্রিপাঠী। সম্প্রতি অনলাইন মুক্তি পাওয়া এই ছবির প্রসঙ্গে বলে নেওয়া যাক গুঞ্জন সক্সেনার কথা।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

গুঞ্জন শক্সেনার জন্ম লখনৌ এর এক আর্মি পরিবারে। বাবা অবসরপ্রাপ্ত লেফেন্যান্ট কর্নেল এবং ভাইও ভারতীয় সেনার কর্মী। সেখানে মেয়ে হিসেবে পিছিয়ে থাকেননি তিনি। দেশের দশের হয়ে কাজ করতে এগিয়ে গেছেন। হয়েছেন ভারতীয় বিমান বাহিনীর কর্মী এবং হেলিকপ্টার পাইলট। কিন্তু এখানেই আসল ঘটনা। ১৯৯৯ সালে কর্গিলের যুদ্ধে যখন মেয়ে হিসেবে তাঁকে পিছনে রাখার চেষ্টা করা হয়, তখন সেই মেয়েই নিজের সাহসে ভর করে প্রায় ৯০০ জনেরও বেশি মানুষকে সরিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করেন। এবং তাঁর কাজের জন্য প্রথম মহিলা হিসেবে পান শৌর্য চক্র পুরস্কার। দেখিয়ে দেন পুরো দুনিয়াকে যে হাম কিসিসে কম নহি।

সেই বীর কন্যার চরিত্রে কেমন অভিনয় করলেন শ্রীদেবী কন্যা? সমালোচকদের মতে তিনি তাঁর দিক থেকে অভিনয়ে কোনো খামতি না রাখলেও, আরও কোনো স্ট্রং অ্যাক্টরের প্রয়োজন ছিল। দুষ্টু মিষ্টি হাসি আর সুন্দরী মুখের মাঝে চরিত্রের দৃপ্ততা যেনো কিছুটা কমে গেছে। তবে সেক্ষেত্রে তাঁর বাবা এর চরিত্রে অভিনয় করে নজর কেড়েছেন পঙ্কজ ত্রিপাঠী। একজন মেয়েকে সমাজের সঙ্গে লড়াই করার মত করে মানসিকতা তৈরী করতে একজন আদর্শ বাবার চরিত্রে তিনি অনবদ্য। তবে চিত্রনাট্যের দিক থেকেও কিছুটা এলোমেলো মনে হয়েছে অনেকের। সেক্ষেত্রে গল্পের বুনোট আরও মজবুত হতে পারতো। তবে শেষ পর্যন্ত সিনেমাটি নেটিজেনদের কাছে কতটা গ্রহণযোগ্য হবে সেই আশায় রয়েছেন সবাই।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!