এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > বিজেপি > কার নেতৃত্বে হতে চলেছে 2021 এর নির্বাচন? মুকুল না দিলীপ? জল্পনা তুঙ্গে

কার নেতৃত্বে হতে চলেছে 2021 এর নির্বাচন? মুকুল না দিলীপ? জল্পনা তুঙ্গে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনে বাংলার ক্ষমতা দখল করতে বিজেপি উঠে পড়ে লেগেছে, তা কার্যত স্পষ্ট সকলের কাছে‌। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তার দলকে কিভাবে বাংলার ক্ষমতার মসনদ থেকে সরানো যাবে, তার জন্য ইতিমধ্যেই বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব ব্লু প্রিন্ট তৈরি করতে শুরু করেছে। তৃণমূলের প্রাক্তন সেকেন্ড-ইন-কমান্ড মুকুল রায়ের পরিকল্পনায় গত লোকসভা নির্বাচনের ওপর ভর করে জয় লাভ করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। আর তারপর যত সময় গিয়েছে, ততই এই রাজ্যে শক্তি বৃদ্ধি করতে শুরু করেছে তারা। সম্প্রতি সেই মুকুল রায়কে সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে সহ-সভাপতির দায়িত্ব দিয়েছে গেরুয়া শিবির।

আর এই পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার বিজেপি রাজ্য নেতাদের নিয়ে বাংলার আগামী বিধানসভা নির্বাচনের প্রস্তুতির ব্যাপারে বৈঠক করতে চলেছে বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্ব। তবে বিজেপির এই বৈঠককে কেন্দ্র করে এবার রাজনৈতিক মহলে নানা প্রশ্ন তৈরি হয়েছে। যার মধ্যে প্রধান প্রশ্ন, আগামী 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসকে সরাতে বিজেপির প্রধান সেনাপতি কে হবেন? দিলীপ ঘোষ নাকি মুকুল রায়? কেননা দিলীপ ঘোষ বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপির সভাপতি। অন্যদিকে ভোট রাজনীতি বোঝা মুকুল রায়কে সম্প্রতি সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তাই কার নেতৃত্বে বিজেপি আগামী দিনে বিধানসভা নির্বাচনের বৈতরণী পার করবে, তা এই বৈঠক থেকেই বেরিয়ে আসতে পারে বলে মনে করছেন বিজেপির একাংশ।

সূত্রের খবর, সকলে মিলে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে আগামী বিধানসভা নির্বাচনের জন্য একটি কমিটি গঠন করে দিতে পারে বিজেপি কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। যেখানে সেই কমিটির মাথায় রাখা হতে পারে সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায়কে। কিন্তু তৃণমূলের প্রাক্তন সেকেন্ড-ইন-কমান্ড মুকুল রায়কে বিধানসভা নির্বাচনের কমিটিতে রাখবে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব, আর বাংলার বিজেপি নেতারা তা কি অতি সহজেই মেনে নেবেন? অনেকে বলছেন, বিজেপির সর্বভারতীয় চাণক্য তথা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ খুব ভালো করেই উপলব্ধি করেছেন যে, মুকুল রায়ের প্ল্যানিং ছাড়া গত লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি কোনোমতেই বাংলায় সাফল্য পেত না।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

তাই সেই মুকুল রায়কে সম্প্রতি সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে দায়িত্ব দিয়ে বিধানসভা নির্বাচনের মূল দায়িত্ব তার কাধেই দিতে চাইছেন অমিত শাহ। সেদিক থেকে দিলীপ ঘোষ বাংলার রাজ্য সভাপতি হলেও, পদের দিক থেকে অনেকটাই সম্মানজনক জায়গায় রয়েছেন মুকুল রায়। তিনি সর্বভারতীয় স্তরে দায়িত্বে রয়েছেন। আর বাংলায় যখন তিনি দীর্ঘদিন ধরে রাজনীতি করেছেন এবং ভোটের ফর্মুলা অতি সহজেই বোঝেন, তাই তার কাঁধে দায়িত্ব দিয়ে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে সাফল্য পেতে চাইছে ভারতীয় জনতা পার্টি বলে দাবি বিশেষজ্ঞদের। আর তাই নতুন কমিটি গঠন করা হলে সেখানে মুকুল রায়কেই প্রধান সেনাপতি করা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

এদিন এই প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপির এক নেতা বলেন, “এটা পরিষ্কার যে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব মুকুলবাবুর রাজনৈতিক ওজন ও মর্যাদা বাড়াতে সক্রিয়। বিশেষ করে গতকাল দিল্লি বিমানবন্দরে তাকে অভ্যর্থনা জানাতে যেভাবে দুই সাংসদকে পাঠিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব, তার মধ্যেই সেই বার্তা রয়েছে। অন্য রাজনৈতিক দলে এই রিতী নেই। বিজেপিতেও এমন ঘটনার পূর্ব দৃষ্টান্ত বিশেষ নেই।” অনেকে বলছেন, বাস্তবিক অর্থেই তাই। বিজেপিতে অনেকেই দায়িত্ব পেয়েছেন। কিন্তু সেভাবে তাদেরকে সংবর্ধনা দেওয়ার রেওয়াজ দেখা যায়নি।

কিন্তু মুকুল রায় সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে দায়িত্ব পাওয়ার পর দিল্লি যেতে না যেতেই যেভাবে দুই সাংসদকে পাঠিয়ে তাকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে, তাতে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে মুকুল রায়ের গুরুত্ব যে বৃদ্ধি পেতে চলেছে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। তাই বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে বিজেপির বৃহস্পতিবারের বৈঠকে সেই মুকুল রায়কে শীর্ষে রাখা হতে পারে বলে নিশ্চিত একাংশ। এখন গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!