এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > বিজেপি > “কান টানলে মাথা আসবে” কেডি সিংয়ের গ্রেপ্তারিতে ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য শুভেন্দুর! জেনে নিন

“কান টানলে মাথা আসবে” কেডি সিংয়ের গ্রেপ্তারিতে ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য শুভেন্দুর! জেনে নিন



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের পর থেকেই নিজের প্রাক্তন দল তৃণমূল কংগ্রেসের অস্বস্তি বাড়িয়েই চলেছেন শুভেন্দু অধিকারী। “তোলাবাজ ভাইপো হটাও” থেকে শুরু করে নানা বিষয়ে মন্তব্য করে তৃণমূল কংগ্রেসকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেছেন তিনি। আর এবার তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ কেডি সিং গ্রেপ্তারের পর ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য করতে দেখা গেলেও বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীকে। সূত্রের খবর, এদিন ভগবানপুরের অর্জুননগরে বিজেপির তপশিলি মোর্চার জনসভায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে কড়া ভাষায় আক্রমণ করতে দেখা যায় তাকে। যেখানে “কান টানলে মাথা আসবে” বলে মন্তব্য করতে দেখা যায় তৃণমূলের প্রাক্তন মন্ত্রীকে। স্বাভাবিক ভাবেই তিনি এই মন্তব্য করে কি বোঝাতে চাইলেন! এখন তা নিয়েই জল্পনা ক্রমশ বাড়তে শুরু করেছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বেআইনি আর্থিক লেনদেন মামলায় তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ কেডি সিংকে এদিন দিল্লিতে গ্রেফতার করা হয়। ইডির পক্ষ থেকে তাঁকে গ্রেপ্তারের পর আদালতে তোলা হলে আগামী 16 ই জানুয়ারি পর্যন্ত তার হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আর এই প্রসঙ্গে এদিন প্রশ্ন করা হয় বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীকে। যার উত্তরে শুভেন্দুবাবু বলেন, “পশ্চিমবঙ্গের প্রায় 70 লক্ষ পরিবার প্রতারিত হয়েছে অ্যালকেমিস্টের দ্বারা। তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা ও প্রাক্তন রাজ্যসভার সাংসদের হাতে সর্বস্ব খুইয়েছেন প্রান্তিক গরিব মানুষ। শুধু গ্রেপ্তারি নয়, কেডি সিংয়ের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে টাকা ফেরতের ব্যবস্থা করা হোক।”


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

আর এরপরই কান টানলে মাথা তো আসবেই বলে জানিয়ে দিতে দেখা যায় তাকে। একাংশ বলছেন, শুভেন্দু অধিকারী এই মন্তব্য করে বুঝিয়ে দিতে চাইলেন যে, শুধু কেডি সিং নয়, আরও অনেকেই এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত! তাহলে কি তিনি তাঁর প্রাক্তন দল তৃণমূল কংগ্রেসের কোনো নেতাকে এই ব্যাপারে বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করলেন! এখন তা নিয়ে জল্পনা ক্রমশ বাড়তে শুরু করেছে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, সারদা থেকে নারদা বিভিন্ন ঘটনায় তৃণমূলের অনেক নেতা থেকে মন্ত্রীর নাম জড়িয়ে পড়েছে। সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে শুরু করে মদন মিত্রের মত হেভিওয়েট নেতারা শ্রীঘর পর্যন্ত গিয়েছেন। স্বাভাবিকভাবেই এককালে নারদের ভিডিও ফুটেজে শুভেন্দু অধিকারীর মত বিজেপিতে যোগদানকারী নেতাকেও প্রকাশ্যে টাকা নিতে দেখা গেছে। যে ঘটনা ক্রমশ প্রাসঙ্গিক শুরু করেছে।

সেই শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগদান করার পর তৃণমূলের পক্ষ থেকে তাকে কটাক্ষ করে দুর্নীতির জাল থেকে বাঁচতে শুভেন্দুবাবু বিজেপিতে যোগদান করেছেন বলে পাল্টা আক্রমণ করা হচ্ছে।আর এই পরিস্থিতিতে তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ কেডি সিং গ্রেপ্তার হতে না হতেই “কান টানলে মাথা আসে” বলে মন্তব্য করে তৃণমূলের শীর্ষস্তরের কাউকে নাম করে নাম না করে বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করলেন শুভেন্দু অধিকারী বলে দাবি করছেন বিশেষজ্ঞরা। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!