এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > কাজ সেরে ফেরার সময় মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় মৃত্যু দুই তৃণমূল কর্মীর! শোকের ছায়া ঘাসফুল শিবিরে

কাজ সেরে ফেরার সময় মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় মৃত্যু দুই তৃণমূল কর্মীর! শোকের ছায়া ঘাসফুল শিবিরে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – আজ ২৮ শে আগস্ট শুক্রবার তৃণমূল ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবস। এই দিবসের অনুষ্ঠানে রাজ্যজুড়ে তৃণমূলের একটি ভার্চুয়াল সভার আয়োজন করা হয়েছে শাসক দলের পক্ষ থেকে। আর এই ভার্চুয়াল সভার আয়োজন কর্মে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন তৃণমূল ছাত্র পরিষদের বিভিন্ন নেতা ও সদস্যরা। সমস্ত জেলায় এই আয়োজনের জন্য তাদের বিশেষ প্রস্তুতি চলছে গত দু, এক দিন ধরে।

প্রসঙ্গত বীরভূম জেলাতেও চলছে এরকমই প্রস্তুতি। বীরভূম জেলার রামপুরহাট অঞ্চলে এককম একটি ভার্চুয়াল সভার আয়োজনে ব্যস্ত ছিলেন তৃণমূল তৃণমূল ছাত্র পরিষদের দুই নেতা ও সদস্য। অনুষ্ঠানের আয়োজন শেষে বাড়ি ফেরার পথে পথ দুর্ঘটনায় অকস্মাৎ মৃত্যু হল এই দুই তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্যর।

গতকাল রাতে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ দলের এই ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের কাজ সেরে বাড়ি ফেরার পথে পথদুর্ঘটনায় পড়েন ২৪ বছর বয়স্ক আখতার আলি ওরফে রকি। যিনি রামপুরহাট পুরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা তাঁর সঙ্গেই বছর তিরিশের স্বাধীন শেখ, যিনি রামপুর শহরের নিকটবর্তী বগটুই গ্রামের বাসিন্দা। দুজনেই দুঘটনার কবলে পড়েন। এদের দুজনের মধ্যে রকি ছিলেন তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জনৈক নেতা, সেইসঙ্গে রামপুরহাট কলেজের প্রাক্তন জিএস ও রামপুরহাট যুব তৃনমূলের রামপুরহাট শহরের ফিল্ড ইউনিট সদস্য। স্বাধীন শেখও তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জনৈক সদস্য ছিলেন।

প্রসঙ্গত গতকাল রাতে ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠানের কাজে তারা নলহাটিতে অপর এক তৃণমূল ছাত্র পরিষদ সদস্যের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গিয়েছিলেন। তার বাড়ি থেকে রাতে বাইক অনুমান চালিয়ে তাঁরা বাড়ি ফিরছিলেন। স্বাধীন শেখ ছিলেন বাইকের সামনে। পুলিশের  অনুমান বিপরীত দিক থেকে আসা কোন দুরন্তগতির গাড়ির সঙ্গে হয়তো তাদের মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে ছিল। যদিও তেমন কোন গাড়িকে ইতিমধ্যে শনাক্ত করা পুলিশের পক্ষে সম্ভব হয়ে ওঠেনি।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

গতকাল ঠিক রাত বারোটা নাগাদ রামপুরহাট থানা পুলিশের একটি টহলদাড়ি ভ্যান রক্তাক্ত অবস্থায় দুজনকে পথের ধারে পড়ে থাকতে দেখে। ভল্লা ক্যানেল মোড়ে রানিগঞ্জ-মোড়গ্রাম জাতীয় সড়কের ধারে তাদের পাওয়া যায়। তাদের থেকে অল্প কিছুদূরেই ভাঙাচোরা অবস্তায় পরে ছিল তাদের বাইকটি। দুজনের কারোরই মাথায়ই কোন হেলমেট ছিল না।

এ কারণেই তাদের আঘাত ছিল ভয়াবহ। শেষপর্যন্ত আহত অবস্থায় পুলিশ তাদের চিনতে পারে ও তাদের উদ্ধার করে রামপুরহাট হাসপাতালে নিয়ে আসে। রামপুরহাট হাসপাতালের চিকিৎসকরা রকিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। স্বাধীনের অবস্থা তখন প্রচন্ড আশঙ্কাজনক। চিকিৎসকরা তাকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজে ভর্তি হবার নির্দেশ দেন।

এরপর গত রাতে বর্ধমান মেডিকেল কলেজে তাকে নিয়ে যাওয়া অসম্ভব বলে মনে করে স্বাধীনের পরিবারের সদস্যরা তাকে রামপুরহাটের একটি নার্সিংহোমে ভর্তি করেন। আজ সকালে সেখানে তার মৃত্যু হয়। তাদের অকাল মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে শোকের ছায়া নেমে আসে সমগ্র এলাকায়। তাদের পুলিশি ময়না তদন্ত শেষ হবার পর দুজনের মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হয় রামপুরহাট কলেজে শেষ শ্রদ্ধা জানবার উদেশ্যে।

তৃণমূল ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবসের দিন এই ছাত্র পরিষদের এক নেতা ও এক সদস্যকে হারিয়ে শোকার্ত হয়ে পড়েছে শাসক দল। তাদের এই অকাল মৃত্যুতে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে শোক বার্তা প্রকাশ করেছেন রাজ্যের তৃণমূলের যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেইসঙ্গে এই ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন সংশ্লিষ্ট রামপুরহাট এর বিধায়ক তথা রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দোপাধ্যায়। বীরভূম জেলার তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি সুরঞ্জন চট্টোপাধ্যায় তাদের প্রতি স্মৃতিচারণ ও শোক জ্ঞাপন করে বলেছেন, ” রকি অত্যন্ত দক্ষ সংগঠক ছিলেন। তাঁর চলে যাওয়ায় সংগঠনের ক্ষতি হল। “

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!