এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরসভার ‘অন্যায়ের’ প্রতিবাদ করে পদ খোয়ালেন যুব- সভাপতি,’অন্য’ যুক্তি যুব সভাপতির

পুরসভার ‘অন্যায়ের’ প্রতিবাদ করে পদ খোয়ালেন যুব- সভাপতি,’অন্য’ যুক্তি যুব সভাপতির



হালিশহর পুরসভায় জলনিকাশি ব্যবস্থা এবং নর্দমা তৈরি নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ জানানোর ২৪ ঘন্টা কাটতে না কাটতেই তৃণমূল সভাপতির পদ খোয়াতে হল প্রণব লৌহকে।এই ঘটনার খবর প্রকাশ্যে আসায় তীব্র শোরগোল শুরু হয়েছে গোটা এলাকায়। তিনি নাকি পুরসভার বেহাল পরিষেবা নিয়ে নালিশ জানাতে গিয়ে ‘তান্ডব’ করেছেন এরকম অভিযোগের ভিত্তিতেই নাকি তাকে রাতারাতি সরিয়ে দেওয়া হল তৃণমূল কাউন্সিলার পদ থেকে। এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে প্রণববাবু বললেন যে,তিনি শুধু প্রতিবাদ করতে গিয়েছিলেন পুরসভার অফিসে। কোনো তান্ডব করতে যাননি। তাকে অন্যায় ভাবে সরানো হয়েছে পদ থেকে। এটা নিয়ে তিনি উওর ২৪ পরগনার জেলা তৃণমূলের সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে এবং জেলার যুব সভাপতি পার্থ ভৌমিকের কাছে জানতে চাওয়া হলেও তাঁরা নাকি যুক্তসংগত উওরই দিতে পারেননি। এরপর তিনি প্রতিবাদে সরব হয়ে আরো জানান যে,তিনি যদি কোনো অন্যায় করেই থাকেন তবে চেয়ারম্যানের উচিৎ ছিল তাকে একবার সূচিত করা। কিন্তু উনি তা না করে সরাসরি থানায় রিপোর্ট করে এলেন। এটা করে উনি আসলে দলটাকেই অপমান করলেন একরকম। এরপর তিনি গর্জে উঠে আরো জানালেন যে তাঁর জন্যে যদি শাস্তি বিধান হয়ে থাকে তবে শাস্তির যোগ্য চেয়ারম্যানও। প্রসঙ্গত,এ বিষয়ে হালিশহর পুরসভার চেয়ারম্যান অংশুমান রায়ের মতামত জানার জন্য ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন তোলেনি বলেই জানা গেছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তবে এ প্রসঙ্গে ‘অন্যায় অপসারণ’ তত্ত্ব সম্পূর্ণই অস্বীকার করলেন উত্তর ২৪ পরগনা জেলার যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি পার্থ ভৌমিক। তিনি সাফাই দিয়ে বলেন যে,পুরসভার অফিসে ঝামেলা পাকানোর জন্য প্রণববাবুকে সরানো হয়নি। ঘটনাটিকে ‘কাকতালীয়’ বলেও ব্যাখ্যা করলেন তিনি। এছাড়া জানান যে, যুব সভাপতির পদ থেকে সরানো হলেও প্রণববাবুকে মূল দলে অবিলম্বে ফিরিয়ে আনা হবে। একই সঙ্গে ফিরিয়ে আনা হবে কাঁচরাপাড়ার যুব সভাপতি মিন্টু সামন্তকেও।
উল্লেখ্য, কেএমডিএ -এর তত্ত্বাবধানে হালিশহর পুরসভায় নর্দমা তৈরি এবং নিকাশির কাজ চলছে বর্তমানে। গত সপ্তাহের শেষের দিকে, এলাকার তৃণমূল কাউন্সিলার প্রণব লৌহ তাঁর দলবলদের নিয়ে পুরসভায় যান এবং অভি্যোগ করে আসেন যে রাস্তা তৈরি কাজের নাম করে দুর্নীতি চালাচ্ছে পুরসভা আধিকারিকরা। পিচের রাস্তা খুঁচে খুঁচে মাটির রাস্তা করা হয়েছে। এতে চরম দুর্ভোগে রয়েছে এলাকাবাসীরা তাছাড়া নর্দমার কাজটাও নাকি নিম্নমানের করা হচ্ছে। এরপরই প্রণববাবুর বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে যে,তিনি নাকি পুরসভায় নালিশ জানাতে এসে সরকারি ইঞ্জিনিয়ারকে হেনস্থা করেন। এর পাশাপাশি চেয়ার টেবিল,দরকারী কাগজপত্র সব উল্টে পাল্টে দিয়ে আসেন। তারপরই তাঁর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেন পুরসভার কর্তারা। আর এর জেরেই হইচই পড়ে যায় গোটা এলাকায়। এমনটাই জানা যাচ্ছে জেলা সূত্রের খবর থেকে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!