এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ” জয় শ্রী রাম মন্ত্র উচ্চারণ করেই দিন শুরু করা উচিত।” – বিজেপিতে যোগদানের পর টুইট মহাগুরুর

” জয় শ্রী রাম মন্ত্র উচ্চারণ করেই দিন শুরু করা উচিত।” – বিজেপিতে যোগদানের পর টুইট মহাগুরুর



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – গতকাল প্রধানমন্ত্রীর ব্রিগেডে উপস্থিত হয়ে বিজেপিতে যোগদান করেছেন অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে তাঁর বিজেপিতে যোগদান শোরগোল ফেলে দিয়েছে রাজ্যের রাজনৈতিক মহলে। বিজেপিতে যোগদান করার পর তিনি জানিয়েছেন, তাঁর বহুদিনের স্বপ্ন এবার সত্যি হতে চলেছে। আবার দাপুটে মেজাজ নিয়ে বিজেপির হয়ে প্রচারে নামছে চলেছেন তিনি। এই আবহে আজ একটি টুইট করলেন তিনি।

বিজেপিতে যোগদানের পর আজ টুইট করে অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী জানিয়েছেন যে, জয় শ্রীরাম মন্ত্র উচ্চারণ করেই দিন শুরু করা উচিত। আগামী ১২ ই মার্চ থেকে বিজেপির হয়ে প্রচারে নামছে চলেছেন অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। অভিনেতা জানিয়েছেন, একজন আদর্শ নেতাকে পাশে পেয়েছেন বলেই গরীব মানুষের পাশে দাঁড়াবার তাঁর বহুদিনের স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে। তাঁকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, তিনি কি বাংলার পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হবেন? এই প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানিয়েছেন, “ওয়েট অ্যান্ড ওয়াচ।”

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত, গতকাল মঞ্চে উঠে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল সম্পর্কে কোন বক্তব্য রাখেন নি অভিনেতা। তবে মঞ্চের পেছনে গিয়ে তাঁকে বলতে শোনা গেছে যে, বাংলার খুব খারাপ অবস্থা চলছে, তাঁর তৃণমূলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত একেবারেই ভুল ছিল। আবার, একটা সময় সিপিএম নেতা জ্যোতি বসু, সুভাষ চক্রবর্তীর ঘনিষ্ঠ ছিলেন অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। একসময় তৃণমূলের সঙ্গেও জড়িত ছিলেন তিনি। তৃণমূলের সাংসদ হয়েছিলেন তিনি। তবে সারদা কেলেঙ্কারিতে নাম জড়িয়ে যাবার পর, ক্ষুব্ধ হয়ে তৃণমূলের সঙ্গ ত্যাগ করেছিলেন তিনি। এবার তিনি যোগদান করলেন বিজেপিতে।

নির্বাচনের পূর্বে অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীর বিজেপিতে যোগদানের প্রসঙ্গে রাজনৈতিক বিশ্লেষক বিশ্বনাথ চক্রবর্তী জানিয়েছেন যে, বাংলা ও বাঙালির আইকন যদি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় হন, তাহলে দ্বিতীয় স্থানে মিঠুন চক্রবর্তীও কিছু কম যান না। অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী জনস্বার্থে প্রচুর কাজ করেছেন। বহু হাসপাতাল নির্মাণ করেছেন, মানুষের সেবা করেছেন, এমনকি বহু উন্নয়ন মূলক কাজও তিনি করেছেন।

বিশ্বনাথ চক্রবর্তী জানালেন, একসময়ে তৃণমূল থেকেও মিঠুন চক্রবর্তীকে ডাকা হয়েছিল। সেসময় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিনেতার যথেষ্ট প্রশংসা করেছিলেন। কিন্তু সারদাকাণ্ডে যেভাবে অভিনেতার নাম জড়িয়ে পড়ে, তাতেই অভিমানী হয়ে মনে আঘাত পেয়েছিলেন অভিনেতা। তাঁর মনে হয়েছিল, তৃণমূল তাঁকে কোণঠাসা করে দিয়েছে। তাই এখন বিজেপি দলের প্রচারে যোগদান করলেন তিনি।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!