এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > দড়ি টানাটানি অব্যাহত, পিছিয়ে গেলো কর্নাটকে জোট সরকারের মন্ত্রীত্ব বন্টন

দড়ি টানাটানি অব্যাহত, পিছিয়ে গেলো কর্নাটকে জোট সরকারের মন্ত্রীত্ব বন্টন



অনেক টালমাটাল পরিস্থিতি পেরিয়ে কর্নাটকের রাশ কংগ্রেস-জেডিএস জোটের কাছে এলেও নতুন সমস্যা আরেকটা তৈরি হয়েই গেলো। কর্নাটকের অর্থ মন্ত্রক সহ স্বরাষ্ট্র,পিডাব্লিউডি,সেচ,নগরোন্নয়ন দপ্তরের একগাদা মন্ত্রীপদের দায়িত্ব কোন দলের কাছে থাকবে তাই নিয়ে তৈরি হল প্রশ্ন। কংগ্রসে জেডিএস দুই তরফই দাবী করছে অর্থ মন্ত্রক। কংগ্রস দাবী করছে কারণ গত বছরগুলোতে জোটসরকারের অর্থমন্ত্রক কংগ্রেসের দখলে ছিল তাই। ২৩ মে মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ গ্রহন করেন জেডিএসেরর পক্ষের কুমারস্বামী এবং উপমুখ্যমন্ত্রী পদের দায়িত্বে আসেন কংগ্রেসের জি পরমেশ্বরা। তারপর থেকে অর্থমন্ত্রক নিয়ে একরকম দড়ি টানাটানি চলছে দু পক্ষের ভিতর।তবে সামনাসামনি তর্কাতর্কি না জুড়ে কংগ্রেসের চোখ রয়েছে জেডিএসের নেতাদের দিকে যে তাঁরা এ বিষয়ে কী সিদ্ধান্ত নেন। এই ব্যাপারটা নিয়ে জোটসরকারের দলীয় নেতারা প্রকাশ্যে কিছু স্বীকার না করলেও একরকম ঠান্ডা লড়াই ই চলছে দলের অন্দরে। এমনটাই জানা যাচ্ছে রাজনৈতিক সূত্রের খবর থেকে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

তবে এরই ভিতর স্থির হয়ে গেছ সংখ্যাগরিষ্ঠতার ভিত্তিতে কংগ্রেসের ঝুলিতে আসবে ২১ টি মন্ত্রীসভার পদ অন্যদিকে জেডিএসের তরফে থাকবে ১১ টি মন্ত্রীত্ব। এই বিষয়টি নিয়ে কংগ্রেসের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী তথা কংগ্রেস নেতা সিদ্দারামাইয়া বৈঠক করেছেন কংগ্রস সভপতি রাহুল গান্ধীর সঙ্গে। তবে মন্ত্রীপদ কার দিকে কতটা থাকবে তা আপাতত বিশ বাও জলে। কারণ স্থগিত হয়েছে নবগঠিত জোট সরকারের মন্ত্রীত্ব বন্টনের প্রক্রিয়া। কারণ, আপাতত দেশে থাকতে পারছেন না হাতপার্টির মুখ রাহুল গান্ধী এবং সোনিয়া গান্ধী। সোনিয়াজীর চিকিৎসার স্বার্থে বিদেশে উড়ে যেতে হচ্ছে তাঁদের। জানা যাচ্ছে, জুন মাসের ৪,৫ তারিখ নাগাধ এই মন্ত্রীসভার বন্টন প্রক্রীয়াকে সঠিক দিশা দিতে বৈঠকে বসবেন জোট সরকারের শীর্ষ নেতৃত্বরা। এ ব্যাপারে সঠিক সিদ্ধান্তে আসতে পারলেই কংগ্রেস জেডিএস দলে ফাটল ধরবে না বলেই আশা করছেন দেশের রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞেরর একাংশ।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!