এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > জোড়াবাগানের সংঘর্ষে বিজেপি সমর্থকদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করল কলকাতা পুলিশ

জোড়াবাগানের সংঘর্ষে বিজেপি সমর্থকদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করল কলকাতা পুলিশ



১২জানুয়ারি জোড়াবাগানে তৃনমূল-বিজেপি সংঘর্ষের জল গড়ালো আদালত পর্যন্ত। ওই দিনের ঘটনায় বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের বিরুদ্ধে একাধিক জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা করে কোলকাতা পুলিশের ওসি সুবলচন্দ্র মণ্ডল ও তৃনমূল। বিজেপি যুব মোর্চার আয়োজিত ‘প্রতিরোধ সংকল্প অভিযান’-কে কার্যত রণভূমির চেহারা নেই জোড়াবাগান এলাকা। পুলিশ সূত্রে খবর, অভিযুক্ত বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের বিরুদ্ধে বেআইনি জমায়েত, খুনের চেষ্টা(৩০৭), সরকারি সম্পত্তি ধ্বংস (৩পি ডি পি পি ),শ্লীলতাহানি(৩৫৪) এবং হাঙ্গামা বাঁধানো,সরকারি কর্মীদের মারধর ও কাজে বাধাদানের মতো একাধিক জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।উল্লেখ্য, ওইদিন ৪টি মামলা দায়ের হয়েছে ৩টি বিজেপির বিরুদ্ধে এবং একটি তৃনমূলের এক অজ্ঞাতপরিচয় কর্মীর বিরুদ্ধে।শ্লীলতাহানির অভিযোগ করেন বিজেপি কাউন্সিলর মিনা দেবী পুরোহিত জোড়াবাগান থানায় তৃনমূলের এক কর্মীর বিরুদ্ধে । ওইদিন সংঘর্ষের মধ্যে থেকে চার বিজেপি কর্মীকে আটক করে কলকাতা পুলিশ। অভিযুক্তদের শনিবার ব্যাংকশাল আদালতে তোলা হলে বিচারক তাদের ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন। বুধবার আদালত চত্ত্বরে ধৃত বিজেপি কর্মীদেরকোমরে দড়ি বেঁধে আনা হলে তা নিয়ে তীব্র উত্তেজনা ছড়ায় ।বিজেপির তরফ থেকে অভিযোগ করা হয়েছিল প্রথম থেকেই এই কর্মসূচিতে বাধা দিচ্ছে শাসকদল। এদিন জোড়াবাগানে বিজেপির কর্মী-সমর্থিকরা জমায়েত হলে তাদের বিরুদ্ধে চড়াও হয় তৃনমূল।অন্যদিকে পাল্টা অভিযোগ করেছে তৃনমূল, তাঁদের সমর্থকদের ওপর হামলা করেছে বিজেপি। জোড়াবাগান ঘটনায় শাসকদলের সঙ্গে বিজেপির সংঘর্ষে কলকাতা পুলিশের তরফে মামলা দায়ের হওয়ায় বিরোধীদের অন্দরে বিতর্কের ঝড় উঠেছে। বিজেপির তরফে প্রথম থেকে শাসকদলকে নিশানা করা হলেও তাদের বিরুদ্ধে কেন মামলা হলনা ?তা নিয়েও শোরগোল পড়েছে রাজনৈতিক মহলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!