এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পঞ্চায়েতের আগে বীরভূমে আরো শক্তিবৃদ্ধি তৃণমূল কংগ্রেসের

পঞ্চায়েতের আগে বীরভূমে আরো শক্তিবৃদ্ধি তৃণমূল কংগ্রেসের



আগামী পঞ্চায়েত ভোটের আগে ফের রাজ্যে দলবদল। এবারে পাল্লা ভারী হলো রাজ্যের শাসকদলের। এদিন নলহাটি ২ পঞ্চায়েতের সভাপতি সিপিএমের রেজাউল হক সহ আরও বেশ কয়েকজন নেতা তৃণমূলের ছত্রছায়ায় এলেন। এদিন রামপুরহাটের পর্যবেক্ষক ত্রিদিব ভট্টাচার্য বলেন,‘‘জেলার ১৯টি ব্লকের সব ক’টিই পঞ্চায়েত সমিতিই এ বার আমাদের দখলে এল।’’ পঞ্চায়েত ভোটের আগে এমন রদবদলে খুশি রাজ্য নেতৃত্ব। দলবদল নিয়ে প্রশ্ন উঠলে রেজাউল জানান,‘‘যতটুকু দেখেছি রাজ্যের শাসকদলের মাধ্যমেই এলাকায় উন্নয়ন সম্ভব। তাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গী হতে তৃণমূলে যোগ দিয়েছি।’’সিপিএমের লোহাপুর এরিয়া কমিটির সম্পাদক দুলাল সরকার এদিন এ বিষয় জানান, “রেজাউল দলের কোনও বৈঠকে ইদানীং আসতেন না। গুরুত্বপূর্ণ কাজেও ভূমিকা নিতেন না।সেই কারণে দলবিরোধী কার্যকলাপে ১ মার্চ রেজাউল হককে সাসপেন্ড করেছেন নেতৃত্ব।’’ জানা গেছে ২০১৩ এর পঞ্চায়েত নির্বাচনে নোলহাটির অধীনস্ত বারা ১, বারা ২, ভদ্রপুর ১, ভদ্রপুর ২, নওয়াপাড়া ও শিতলগ্রামের একটিতেও নির্বাচিত হয়নি তৃণমূল। কিন্তু গত লোকসভা ও বিধানসভা নির্বাচনের পর তৃণমূলের ঝুলিতে আসে মোট ৩৪ জন সদস্য। এখন আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনে নলহাটি ২ পঞ্চায়েতে তৃণমূলের অবস্থান নিয়ে আশাবাদী ঘাসফুল শিবির।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!