এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > জিওকে টেক্কা দিতে একের পর এক ধামাল BSNL-এর! স্বাধীনতা দিবসে লঞ্চ হতে চলেছে একগুচ্ছ প্ল্যান

জিওকে টেক্কা দিতে একের পর এক ধামাল BSNL-এর! স্বাধীনতা দিবসে লঞ্চ হতে চলেছে একগুচ্ছ প্ল্যান



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্টলকডাউন সময়কে কাজে লাগাতে একের পর এক মোবাইল কোম্পানিগুলি নিয়ে এসেছে আকর্ষণীয় প্ল্যান। কিন্তু সবাইকে টেক্কা দিয়ে এতদিন পর্যন্ত সর্বক্ষেত্রে ওপরে উঠে আসছিল রিলায়েন্স জিওর নাম। কিন্তু এবার সরকারি টেলিকম সংস্থা বিএসএনএল একের পর এক দুর্দান্ত অফার নিয়ে এসে রীতিমতন জিওকে টক্কর দিচ্ছে মোবাইল দুনিয়ায়। স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে এবার বিএসএনএল ঘোষণা অনুযায়ী নিয়ে আসছে আরো একটি দুর্ধর্ষ প্ল্যান। জানা যাচ্ছে, এই প্ল্যানটির বৈধতা হলো 80 দিন এবং এই প্ল্যানের অন্তর্গত হতে গেলে গ্রাহককে খরচ করতে হবে 399 টাকা।

প্ল্যান অনুযায়ী লোকাল, এসটিডি কিংবা আউটগোয়িং রোমিং যেকোন কল করা যাবে প্রতিদিন 250 মিনিট পর্যন্ত। পাশাপাশি এই প্ল্যানে প্রতিদিন 1 জিবি করে হাই স্পিড ডেটা এবং 100 এসএমএস ফ্রি পাওয়া যাবে। আগামীকাল বিএসএনএল তাঁদের এই প্ল্যানটি দেশব্যাপী চালু করছে বলে জানা গেছে। অন্যদিকে বেশ কিছুদিন আগে বিএসএনএল নিয়ে এসেছে দু’টি work-from-home অফার। যেখানে 151 ও 251 টাকার দুটি ট্যারিফ প্ল্যান নিয়ে আসা হয়েছে। যাদের নাম দেওয়া হয়েছে Work From Home Data Special Tariff Plan।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

30 দিনের বৈধতা সমেত 151 টাকা রিচার্জ করলে এই পরিষেবায় গ্রাহকরা পাবেন 40 জিবি ইন্টারনেট। এবং 251 টাকা রিচার্জ করলে পাওয়া যাবে 70 জিবি হাই স্পিড ইন্টারনেট। বিএসএনএল এই প্ল্যানদুটি রিচার্জের ক্ষেত্রে একটি সুবিধা এনেছে। যদি গ্রাহকরা রিচার্জ করতে চান তাহলে এসএমএস এর মাধ্যমে হয় তাদেরকে লিখতে হবে ‘DATA151’ কিংবা ‘DATA 251’। এবং লিখে পাঠাতে হবে 123 নাম্বারে। তবে এই প্ল্যানে শুধুমাত্র ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবে অন্য কোন সুবিধা পাওয়া যাবে না বলে জানানো হয়েছে সংস্থার তরফ থেকে।

বিশেষজ্ঞদের মতে,দেরিতে হলেও সরকারি টেলিকম সংস্থা বিএসএনএল যেভাবে একের পর এক চমক নিয়ে আসছে টেলি দুনিয়ায়, তা অন্যান্য সংস্থাকে রীতিমত চাপের মুখে ফেলছে বলে মনে করা হচ্ছে। অন্যদিকে সরকারি সংস্থা হওয়াতে অন্যান্য বেসরকারি টেলিকম সংস্থার থেকে খরচের পরিমাণ অনেকটাই কম বিএসএনএলের। তাই মনে করা হচ্ছে এক্ষেত্রে গ্রাহকরাও অনেকটাই উপকৃত হবেন খরচের দিক থেকে। আপাতত টেলিকম দুনিয়ায় প্রতিযোগিতায় বিএসএনএল যে ধীরে ধীরে সামনের সারিতে এগিয়ে আসছে, সে কথা স্পষ্ট।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!