এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > “যারা গুলি চালিয়েছে, নাম বের করেছি। ছেড়ে কথা বলবো না” শীতলকুচির ঘটনায় সরব মমতা!

“যারা গুলি চালিয়েছে, নাম বের করেছি। ছেড়ে কথা বলবো না” শীতলকুচির ঘটনায় সরব মমতা!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –চতুর্থ দফার নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রক্তাক্ত হয়ে উঠেছে রাজ্য। যেখানে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে 5 জন ব্যক্তির প্রাণ চলে গেছে। যার মধ্যে চারজন তৃণমূল কর্মী বলে দাবি করছে শাসক দল। আর এই ঘটনার পর থেকেই রাজ্যজুড়ে বিজেপির বিরুদ্ধে প্রতিবাদে নামার উদ্যোগ নিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। সোচ্চার হয়েছেন তৃণমূল নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আর আজ রানাঘাটের সভা থেকে এই ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিলেন তৃণমূল নেত্রী। যেখানে যারা গুলি চালিয়েছে, তাদের নাম তিনি বের করে নিয়েছেন বলে জানিয়ে দিতে দেখা গেল তাকে। পাশাপাশি গোটা ঘটনায় বিজেপির বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর, আজ এই ব্যাপারে রানাঘাটের সভা থেকে কড়া ভাষায় বিজেপিকে আক্রমণ করেন তৃণমূল নেত্রী। বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, “যারা গুলি চালিয়েছিল সিআইএসের থেকে নাম বের করে নিয়েছি। আমি কিন্তু এই ঘটনায় ছেড়ে কথা বলব না। আমাকে অত বোকা ভাবার কোনো কারণ নেই। সব যোগাড় করেছি, আরও করব। লজ্জা করে না, কেন্দ্রীয় বাহিনীকে প্ররোচনা দিতে? বুলেটের বদলে আমরা বুলেট চাই না, আমরা ব্যালট চাই।”

একাংশের মতে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই মন্তব্যের মধ্যে দিয়ে বুঝিয়ে দিলেন, তিনি যদি এবার ক্ষমতায় আসেন, তাহলে এই ঘটনার বিচার করবেন। পাশাপাশি যারা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত, তাদের যে কোনোভাবেই ছাড়া হবে না, তা নির্বাচনী জনসভা থেকে নিজের মন্তব্যের মধ্যে দিয়ে বুঝিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেন তৃণমূল নেত্রী। যা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

পর্যবেক্ষকদের দাবি, শীতলকুচির ঘটনায় 4 তৃণমূল কর্মীর মৃত্যুর পরেই রাস্তায় নেমেছে তৃণমূল কংগ্রেস। যেখানে বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হয়ে বিভিন্ন জায়গায় আন্দোলন করতে দেখা যাচ্ছে শাসক দলকে। নির্বাচনের মরসুমে এই ধরনের ঘটনা এবং তার প্রতিবাদে বিজেপিকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিবাদ অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। আর এই পরিস্থিতিতে চতুর্থ দফার নির্বাচনের পর যখন পঞ্চম দফার নির্বাচনের দিকে এগোচ্ছে রাজ্য, তখন প্রচারপর্ব থেকে সেই ব্যাপারে রীতিমত হুঁশিয়ারি দিলেন তৃণমূল নেত্রী।

বিজেপির পক্ষ থেকে একের পর এক নেতারা এই শীতলকুচির ঘটনায় বিতর্কিত মন্তব্য করায় পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হতে শুরু করেছে‌। তবে তিনি যে গোটা বিষয়টি সম্পর্কে অবগত এবং যারা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত, তাদের নাম যে তিনি খতিয়ে দেখছেন, তা রানাঘাটের জনসভা থেকে বুঝিয়ে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!