এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > জঙ্গলমহলে সংগঠনে কি রদবদল হতে চলেছে, শিক্ষামন্ত্রীর মন্তব্য ঘিরে জল্পনা

জঙ্গলমহলে সংগঠনে কি রদবদল হতে চলেছে, শিক্ষামন্ত্রীর মন্তব্য ঘিরে জল্পনা



সম্প্রতি নেতাজি ইনডোরে দলের কোর কমিটির বর্ধিত সভায় দলীয় সংগঠনকে চাঙ্গা করতে রাজ্যের অনেক জেলার নেতাদেরকেই ধমক দিয়েছেন খোদ তৃণমূল সুপ্রিমো তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর যার মধ্যে মুখ্যমন্ত্রীর সবচেয়ে বেশি রোষের মুখে পড়েছিল জঙ্গলমহলের জেলাগুলি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনের ফলাফল দেখা গেছে যে, জঙ্গলমহলের জেলাগুলি মূলত ঝাড়গ্রামে শাসকদল তৃণমূলের ঘাড়ের উপর নিঃশ্বাস ফেলেছে বিজেপি। এমনকি এখানকার বেশ কয়েকটি অঞ্চলে সেই তৃণমূলকেও টপকে গিয়েছে তারা। আর রাজ্যের পক্ষ থেকে প্রভূত উন্নয়ন হওয়া সত্ত্বেও কেন এই অঞ্চলগুলিতে বিজেপির এত বাড়বাড়ন্ত হলো তা নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণও করেছিল তৃণমূলের তোপসিয়া ভবন।

আর যেখানে দেখা গেছে যে এই অঞ্চলগুলিতে দলীয় নেতাদের জন্যেই শাসকদলের এহেন খারাপ ফলাফল হয়েছে। যদিও বা তৃণমূলের পক্ষ থেকে প্রকাশ্যে তা স্বীকার করা হয়নি। তবে এবারে সেই ঝাড়গ্রামে খারাপ ফলাফলের জন্য দলের নেতাদের একাংশকেই দায়ী করলেন তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব তথা শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর, রবিবার ঝাড়গ্রামে তৃণমূল কংগ্রেসের বিজয়া সম্মেলনি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তৃনমূল মহাসচিব তথা শিক্ষামন্ত্রী। আর সেইখানেই বক্তব্য রাখতে উঠেই পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “এলাকায় কোন বিজেপি নেই। দলের লোকেরাই অন্যদিকে গিয়ে বিজেপি হয়েছে। অতি উৎসাহী কিছু মানুষ দলের শৃঙ্খলা নষ্ট করছে। মাথায় রাখবেন, সাতটা বাজে ঘোড়ার থেকেও 10 টা ভালো ঘোড়া ভালো।”

পাশাপাশি এদিনের এই সভা থেকে দলের পুরোনো লোকেদেরও গুরুত্ব দেওয়ার বার্তা দেন তিনি। অন্যদিকে বিজেপি রথযাত্রার নিয়েও এদিন কটাক্ষের সুর শোনা যায় পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গলায়। তিনি বলেন, “আপনারা এত বিজেপি বিজেপি করবেন না। একটা রথ চালাতে গিয়ে পাঁচবার ডেট চেঞ্জ করছে। এখন আবার বলছে গঙ্গাসাগর মেলা শেষ করে ওরা নাকি গঙ্গায় ডুব দেবে।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

রাজনৈতিক মহলের মতে, এদিনের সভায় শিক্ষামন্ত্রীর গলায় বিজেপি বিরোধী তার সুর থাকলেও আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে ঝাড়গ্রামের ভোটব্যাঙ্ক ফেরাতে দলীয় নেতাদেরই বেশি করে শৃঙ্খলাপরায়ণ হওয়ার বার্তা দিলেন তিনি। তবে দলীয় নেতাদের উদ্দেশ্যে তৃণমূল মহাসচিবের এই টনিক আদৌ কতটা কাজে দেয় এখন সেদিকেই তাকিয়ে বিশেষজ্ঞ মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!