এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া > জঙ্গলমহলে বিজেপিতে ভাঙন! রয়েছে চমক – গেরুয়া শিবিরের পাল্টা বিস্ফোরক দাবি

জঙ্গলমহলে বিজেপিতে ভাঙন! রয়েছে চমক – গেরুয়া শিবিরের পাল্টা বিস্ফোরক দাবি



এরাজ্যে বিজেপির তেমন কোনো সংগঠন ছিল না বললেই চলে। কিন্তু সাম্প্রতিককালে রাজ্যের পঞ্চায়েত নির্বাচনে মৃলত জঙ্গলমহলের জেলাগুলিতে শাসকদল তৃনমূলকে পেছনে ফেলে সামনে সারিতে উঠে এসেছিল বিজেপি। যা নিয়ে আগামী লোকসভায় বঙ্গ জয়ের স্বপ্ন দেখেছেলেন নরেন্দ্ল মোদী-অমিত শাহরা। কিন্তু গেরুয়া শিবিরের নেতাদের সেই স্বপ্নে ছাই ফেলে বৃহস্পতিবার এই জঙ্গলমহলেরই ঝাড়গ্রামের জেলা বিজেপির সাত নেতা কর্মী তৃনণলে যোগ দিতে চেয়ে  জেলা তৃনমূলের চেয়ারম্যান সুকুমা হাঁসদা সাথে কোলকাতায় গিয়ে দেখা করে এসেছেন দলের মহাসচিব তথা শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

এমনকী এই ছবি সোশাল মিডিয়ায়ও ছড়িয়ে পড়ে। যেখানে রয়েছেন সুশীল ঘোষ, ঝাড়গ্রামের বিজেপির প্রাক্তন সহসভাপতি অজয় সেন, কৃষ্নপদ প্রধান, জেলা বিজেপি নেতা বলে পরিচিত অমলকুমার কর, নিখিলেশ পাল, স্বপন মাহাতো, দীপঙ্কর ধর এবং বেলপাহাড়ির দীনবন্ধু কর্মকার ও নারায়নচন্দ্র মার্ডি।

এরা প্রত্যেকেই বিজেপি ছেড়ে তৃনমূলে যোগ দেওয়ার কথা জানিয়েছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়কেএমনটাই দাবি তৃণমূলের। বিজেপি ছেড়ে তৃনমূলে যোগদানের পক্ষে বক্তব্য রেখে অজয় সেন বলেন, “দলের সাংগঠনিক কাজকর্ম ভালো লাগছিল না। তাই বিজেপির সব পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়নের শরিক হতেই আমরা তৃনমৃলে যোগ দেব।” তবে বিজেপির পক্ষ থেকে এদের প্রত্যেককেই বহিস্কৃত কর্মী বলে দাবি করা হয়েছে। এদিন ঝাড়গ্রামের বিজেপির জেলা সভাপতি সুখময় শতপধী বলেন, ” তৃনমৃল যাদের দলে নেওয়ার দাবি করছে তাঁদের আনেক আগেই দলবিরোধী কাজের জন্য বিজেপি থেকে বহিস্কার করা হয়েছে।”

 এদিকে জঙ্গলমহলের খারাপ ফলাফলের জন্য দলীয় সংগঠনকে চাঙ্গা করতে সুকুমার হাঁসদাকে দায়িত্ব দেওয়ার পর তাঁর হাত ধরে ঝাড়গ্রামেল এই বিজেপি কর্মীদের তৃনমূলে যোগদানে বাড়তি অক্সিজেন পাচ্ছে ঘাসফুল শিবিরও। অনেকেরই মনে চাপা প্রশ্ন, এইভাবে দল ভাঙিয়ে আদৌ কি কোনো লাভ হবে? তবে সব মিলিয়ে বিজেপি কর্মীদের তৃনমূলে যোগদান নিয়ে ঘাসফুল বনাম পদ্মফুলের অভিযোগ পাল্টা অভিযোগে সরগরম রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!