এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > জম্মু ও কাশ্মীর বিষয়ে বিশেষ বার্তা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

জম্মু ও কাশ্মীর বিষয়ে বিশেষ বার্তা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – স্বাধীনতার পর থেকে দীর্ঘ সময় ধরে জারি ছিল সংবিধানের ৩৭০ ধারা ও ৩৫ এ ধারা। যেখানে জম্মু-কাশ্মীরকে বেশ কিছু বাড়তি সুবিধা দেওয়া হয়েছিল। তাই, অন্যান্য রাজ্যগুলি থেকে অনেকটাই পৃথক ছিল জম্মু-কাশ্মীর। সেখানে প্রতিরক্ষা, যোগাযোগ, বিদেশনীতি ও অন্যান্য কিছু ক্ষেত্রে নিজেরাই সিদ্ধান্ত নেবার অধিকারী ছিল। আলাদা পতাকা পর্যন্ত ছিল জম্মু-কাশ্মীরের। এরপর গত ৫ ই আগস্ট ২০১৯ সালে ৩৭০ ধারা বিলোপ করে জম্মু কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা তুলে দেয় কেন্দ্রীয় সরকার।

৩৭০ ধারা বিলোপের সঙ্গে সঙ্গে জম্মু-কাশ্মীরকে বিভক্ত করে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করা হয়। জম্মু-কাশ্মীরের উপরে কেন্দ্রের এই পদক্ষেপকে বারবার সমালোচনা করতে দেখা যায় বিরোধীদের। বিরোধী পক্ষ থেকে নানা অভিযোগ করা হয় এই ইস্যুতে। গতকালও লোকসভা সরগরম হয়েছিল এই বিষয়ে। সে সময়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত জানালেন যে, যখন কাশ্মীরকে বিভক্ত করা হয়েছিল, তখন কোথাও লেখা ছিল না যে, ভূস্বর্গকে রাজ্যের মর্যাদা দেয়া হবে। তবে, সঠিক সময়ে রাজ্যের মর্যাদা ফিরিয়ে দেয়া হবে জম্মু-কাশ্মীরকে জানালেন তিনি।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

বস্তুত, ৩৭০ ধারা বিলোপের পর কাশ্মীরে দীর্ঘদিন ধরে সুবিধা ভোগ করে আসা ওমর আব্দুল্লাহ, মেহেবুবা মুফতি থেকে শুরু করে দেশের একাধিক বিরোধী নেতৃত্ব জম্মু কাশ্মীরের বিশেষ সুবিধার বিলোপ নিয়ে বারবার বাকবিতণ্ডা করেছেন সংসদে। গতকাল লোকসভায় এ বিষয়ে বিতর্ক উঠে। কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে বিরোধীরা প্রশ্ন করেছিলেন যে, ৩৭০ ধারা বিলোপ করে দেবার পর ও রাজ্য ভাগ করে দেবার পর কি এমন উন্নতি ঘটেছে জম্মু-কাশ্মীরের?

বিরোধীদের এই প্রশ্নের জবাবে গতকাল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ স্পষ্ট জানিয়েছেন যে, মাত্র ১৭ মাস অতিক্রান্ত হয়েছে জম্মু-কাশ্মীর বিভক্ত করার এর। এতো কম সময়ের মধ্যে এই প্রশ্ন তোলার কোন যুক্তি আছে কি? তিনি জানান, এই প্রশ্ন তাঁদের করা প্রয়োজন, যারা প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে কাশ্মীরের শাসনভার পেয়েছিলেন। তিনি প্রশ্ন তোলেন ৭০ বছরে কতটুকু উন্নতি হয়েছে কাশ্মীরের? তিনি জানান, কাশ্মীরের উন্নতির খতিয়ান দিতে দায়বদ্ধ তিনি। কিন্তু যারা এই প্রশ্ন তুলছেন, তাঁরা নিজেদের একবার প্রশ্ন করে দেখলেই, পাল্টা প্রশ্ন করার গ্রহণযোগ্যতা স্পষ্ট হয়ে যাবে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জম্মু-কাশ্মীর বিষয়ে রাজনীতি না করার অনুরোধ করেছেন বিরোধী শিবিরকে।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!