এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > জলপাইগুড়িতে কিশোরী পরিচারিকার ওপরে শারীরিক নিগ্রহের বিস্ফোরক অভিযোগ জনৈক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে

জলপাইগুড়িতে কিশোরী পরিচারিকার ওপরে শারীরিক নিগ্রহের বিস্ফোরক অভিযোগ জনৈক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – জলপাইগুড়ি জেলার ধূপগুড়িতে বাড়ির কিশোরী পরিচারিকার ওপর শারীরিক অত্যাচারের বিস্ফোরক অভিযোগ উঠেছে এলাকার এক ব্যবসায়ী পার্থ সরকারের বিরুদ্ধে। যার স্ত্রী পঞ্চায়েত সমস্যা। তাঁদের বাড়িতে ও দোকানে বিভিন্ন ধরনের কাজ করতেন খলাই গ্রাম স্টেশন পাড়ার এক কিশোরী। যার ওপর শারীরিক নিগ্রহের অভিযোগ উঠেছে।

অভিযুক্ত ব্যবসায়ী পার্থ সরকারের বাড়িতে ও দোকানে বিভিন্ন কাজ করতো এই নিগৃহীতা। তার বাবা, মা দুজনেই সাফাইকর্মী। অভিযোগ উঠেছে, ব্যবসায়ী পার্থ সরকার তাঁর দোকানে অবৈধভাবে মদের কারবার করতেন। কিছুদিন আগে তার বাড়িতে কাজ করতে যান নিগৃহীতা। অভিযোগ উঠেছে, বাড়িতে গেলে তাঁকে জোর করে নগ্ন করে ভিডিও করার ইচ্ছা প্রকাশ করেন পার্থ সরকার। স্ত্রী বাধা দিতে গেলেও তিনি জোর করেই সে কাজ করেন।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অভিযোগ উঠেছে, এরপর স্ত্রী ও কিশোরীকে জোর করে মদ খাইয়ে দেন পার্থ সরকার। এরপর কিশোরীকে পোশাক খুলে ফেলার নির্দেশ দেন তিনি। তাতে রাজি না হওয়ায় নিগৃহীতাকে চড়- থাপ্পড় করেন তিনি। এরপরও রাজি না হলে প্রবল মারধরের হুমকি দেন। শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়ে নিজের পোশাক খুলতে শুরু করেন। এরপর তাকে জোর করে হাসতে বাধ্য করেন তিনি। এই ভিডিও মোবাইলে তুলে রাখেন পার্থ সরকার।

পার্থ সরকার জানান, এসব কথা কেউ জানবে না। কিন্তু এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় কোনওভাবে ছড়িয়ে যায়। এরপর থেকেই অভিযোগ, নিগৃহীতাকে নিয়ে শুরু হয় কাটাছেঁড়া, তার চরিত্র নিয়ে শুরু হয় টিপ্পনী। জানা যায়, কিছু বখাটে ছেলে কুপ্রস্তাব দিতেও শুরু করে। এর ওপর পঞ্চায়েত সমস্যার স্বামী তথা মালিকের ভয়। তাই কখনো পাশের বাড়ির বারান্দা, কখনো জঙ্গলে রাত কাটাতে বাধ্য হন নিগৃহীতা।

শেষ পর্যন্ত প্রাণ বাঁচাতে পুলিশের দ্বারস্থ হন নিগৃহীতা। গত শুক্রবার রাতে ধূপগুড়ি থানায় তিনি অভিযোগ করেছেন। তাঁর অভিযোগ সামনে আসতেই এলাকাজুড়ে পড়ে গেছে শোরগোল। মদ খাইয়ে বাড়ির কিশোরী পরিচারিকাকে অর্ধনগ্ন করে এমন নিগ্রহর ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়েছেন বহু এলাকাবাসী। অনেকেই এর প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তবে এখনো পর্যন্ত এই ঘটনায় কাউকে গ্রেপ্তার করতে দেখা যায়নি ধুপগুড়ি থানার পুলিশকে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!