এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > ইসলামপুরে স্কুল কান্ডে পুলিশ নয়, গুলি চালিয়েছে বহিরাগত- সামনে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য

ইসলামপুরে স্কুল কান্ডে পুলিশ নয়, গুলি চালিয়েছে বহিরাগত- সামনে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য



উর্দু শিক্ষক স্কুলে যোগ দেওয়া নিয়ে গন্ডগোল। পরে হাতাহাতি, গুলি, অবশেষে তরতাজা দুটি প্রান চলে যাওয়া। বৃহস্পতিবার উত্তর দিনাজপুর জেলার ইসলামপুরের দাড়িভিট হাইস্কুলের ঘটনায় গুলিতে আইটিআই ছাত্র রাজেশ সরকারের মৃত্যুর পর এবার প্রান হারাল ইসলামপুর কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের অপর ছাত্র তাপস বর্মন। পুলিশি গুলিতেই এই মৃত্যু বলে ইতিমধ্যেই শাসকের বিরুদ্ধে ময়দানে নেমে পড়েছে বিরোধীরা। ছাত্র মৃত্যুকে ঘিরে উত্তাল হয়ে উঠেছে রাজ্য রাজনীতিও।

কিন্তু বিরোধীরা এই ঘটনায় প্রশাসনকে দায়ী করলেও ভিডিও ক্লিপিংয়ে দেখা গেছে অন্য দৃশ্য। সূত্রের খবর, এই ভিডিও ক্লিপ দেখে ইসলামপুর নিয়ে নবান্নে একটি বৈঠকে বসে স্বরাষ্ট্র সচিব অত্রি ভট্টাচার্য এবং ডিজি বীরেন্দ্র উত্তর দেনাজপুর জেলা প্রশাসনের সাথেও আলোচনা করেন। আর এরপরেই রাজ্য দাবি করে যে, পুলিশ গুলি চালায়নি। দুটি গোষ্টীর দ্বন্দ্বেই এই ছাত্র মৃত্যু। তবে এই ঘটনায় কোনো রাজনৈতিক যোগ রয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখছে প্রশাসন। তবে এই ঘটনায় সিবিআই তদন্ত করলে সবকিছু বোঝা যাবে বলে প্রথম থেকে দাবি জানিয়ে এসেছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

অন্যদিকে বহিরাগতর তত্ত্ব খাড়া করে উত্তর দিনাজপুর জেলার সিংহভাগ তৃনমূল নেতাই বলেন, “যে বহিরাগতরা বাঁশ লাঠি নিয়ে হামলা চালিয়েছে তাঁদেরকে দেখে প্রশিক্ষিত মনে হয়েছে।” শাসকদলের আরও দাবি যে, কোনো রাজনৈতিক দল থেকেই এই বহিরাগত আনা হয়েছে। অন্যদিকে এই প্রসঙ্গে উত্তর দিনাজপুর জেলা বিজেপির সাধারন সম্পাদক সুরজিৎ সেন এদিন বলেন, “এটা গনক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ। বিভিন্ন দলের সমর্থক থাকতেই পারে। কিন্তু এতে বিজেপির কোনো যোগ নেই।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর এই অভিযোগ পাল্টা অভিযোগের মাঝে শুক্রবার এই ইসলামপুরের ঘটনায় ছাত্র মৃত্যু নিয়ে মুখ খুলল জেলা প্রশাসন। এদিন জেলার পুলিশ সুপার সুমিত কূমার বলেন, “জেনেছি ওখানে বহিরাগত ঢুকেছে। কিছু অস্ত্রও জমা করা আছে। এখন সেই বহিরাগত কারা তা জানতে তদন্ত হচ্ছে।” ঘটনায় এক পুলিশকর্মীরও গুলিবিদ্ধ হওয়ার কথা জানান তিনি। সব মিলিয়ে এখন পুলিশি গুলি নাকি বহিরাগতর হামলাতেই ছাত্র মৃত্যু সেই ঘটনার তদন্তে উত্তর দিনাজপুর জেলা প্রশাসন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!