এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিজেপির সঙ্গে কি দূরত্ব বাড়ছে মুকুল রায়ের? শুরু তীব্র জল্পনা!

বিজেপির সঙ্গে কি দূরত্ব বাড়ছে মুকুল রায়ের? শুরু তীব্র জল্পনা!



তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগদানের পর তিনি ভূমিকম্প তুলবেন বঙ্গ রাজনীতিকে বলে মনে করেছিল একাংশ। কেননা তার নেতৃত্বেই একসময় তৃণমূল কংগ্রেস রাজ্যে সাফল্য দেখেছিল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূলের প্রধান মুখ হলেও, অনেকেই তৃণমূল কংগ্রেসকে তৃণমুকুল কংগ্রেস বলে অভিহিত করত।

তবে সেই মুকুল রায় বেশ কয়েক বছর হল ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগ দিয়েছেন। আর তৃণমূলের এই নেতা বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর বিজেপি তাকে যথেষ্ট পরিমাণে ব্যবহার করবে এবং দলে সাফল্য আনবে বলে অনেকেই মনে করেছিল। কিন্তু না তা তো হয়ইনি, উল্টে মুকুল রায়ের সাংগঠনিক দাপটে কিছুটা হলেও ভীত হয়ে নিজের রাজনৈতিক উত্থান যাতে কমে না যায়, তার জন্য মুকুলবাবুর বিরুদ্ধে দলের অন্দরে অভিযোগ জানাচ্ছিলেন দিলীপ ঘোষের অনুগামীরা বলে খবর।

বেশ কয়েক বছর হল বিজেপিতে যোগ দিলেও, এখনো পর্যন্ত কোনো সেরকম পদ পাননি তিনি। কিন্তু তা সত্ত্বেও দাঁতে দাঁত চিপে ধৈর্যের পরীক্ষা দিচ্ছেন মুকুল রায়। কিন্তু রাজনীতিকে সৌজন্যতা থাকবে এটাই তো স্বাভাবিক। যেখানে বিরোধী দলের নেতা-নেত্রীদের শাসক দলের নেতা-নেত্রীরা জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান, সেখানে কেন বিজেপি নেতা মুকুল রায় বঙ্গ বিজেপির তরফে জন্মদিনের শুভেচ্ছা পেলেন না!


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তা নিয়েই নানা মহলে উঠতে শুরু করেছে প্রশ্ন। আর এখানেই অনেকে বলছেন, তাহলে কি মুকুল রায়ের সঙ্গে বঙ্গ বিজেপি দূরত্ব বাড়তে শুরু করেছে! সূত্রের খবর, বুধবার ছিল বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের জন্মদিন। যেখানে তার অনেক অনুগামী নেতা-কর্মী-সমর্থক থেকে শুরু করে দিল্লি বিজেপির অনেক নেতা তাঁকে অভিনন্দন জানালেও, রাজ্যের তরফে কোনও বিজেপি নেতা তাকে অভিনন্দন জানাননি।

সূত্রের খবর, এদিন সকালে মুকুল রায়ের এলগিন রোডে ফ্ল্যাটে গিয়ে তাকে শুভেচ্ছা জানান পশ্চিমবঙ্গের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়। এমনকি দিল্লির প্রথম সারির অনেক বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে ফোন করে তার জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। কিন্তু দিল্লির নেতারা মুকুলবাবুকে শুভেচ্ছা জানালেও, কেন সেই জায়গায় বাংলায় রাজনীতি করা মুকুল রায়কে বাংলার বিজেপি নেতারা শুভেচ্ছা জানালেন না?

তাহলে কি বঙ্গ বিজেপির নেতাদের সঙ্গে মুকুল রায়ের বনিবনা হচ্ছে না! বিশ্লেষকরা বলছেন, মুকুল রায় যদি তার কর্মকাণ্ড শুরু করেন এবং তাকে যদি হাত খুলে খেলতে দেওয়া হয়, তাহলে তিনি বঙ্গ বিজেপির নেতাকে হার মানিয়ে দেবে। আর তাইতো সেভাবে তাকে বাংলার নেতারা এখন গুরুত্ব দিতে চাইছেন না।

কিন্তু কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব মুকুল রায়ের ক্যারিশমা জানেন। আর তাই মুকুল রায়ের জন্মদিনে সৌজন্যতা দেখাল কেন্দ্রীয় বিজেপি। তবে সেভাবে বাংলার বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের প্রতি শুধুমাত্র কি রাজনৈতিক বৈরিতার কারণে শুভেচ্ছাবার্তা জ্ঞাপন করলেন না বঙ্গ বিজেপি নেতারা! এখন তা নিয়ে প্রশ্নটা থেকেই যাচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!