এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ব্রেকিং নিউজ – উল্টে গেল দিলীপ ঘোষের রাজ্যাভিষেকের ছক? কড়া বার্তা কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের?

ব্রেকিং নিউজ – উল্টে গেল দিলীপ ঘোষের রাজ্যাভিষেকের ছক? কড়া বার্তা কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া এক্সক্লুসিভ – গত কয়েকদিন ধরেই বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হতে থাকে – বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের ‘পারফরম্যান্সে’ কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব নাকি এতটাই খুশি, যে তাঁকে শুধু ২০২১ সাল পর্যন্ত রাজ্য সভাপতি পদেই রাখা হচ্ছে না। দিলীপবাবুকে মুখ করেই বিধানসভা নির্বাচনে লড়তে চলেছে গেরুয়া শিবির। আর সেই উপলক্ষে আজ কলকাতায় এক সাংগঠনিক বৈঠক ডাকা হয়েছে – যেখানে সংগঠনের শীর্ষ পদাধিকারীরা উপস্থিত থাকতে চলেছেন।

একই সঙ্গে খবর প্রকাশ হতে থাকে, এই বৈঠকে বঙ্গ-বিজেপিতে শুধু দিলীপ ঘোষের কর্তৃত্ত্বই মেনে নেওয়া হবে – তাই নয়, একইসঙ্গে সরিয়ে দেওয়া হবে কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয়বর্গীয়কে। তাঁর স্থলাভিষিক্ত হতে চলেছেন বাংলার সহ-পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন। ফলে, এইসব ঘটনাপ্রবাহকে সত্যি ধরে নিয়ে গেরুয়া শিবিরের অন্দরমহলে যেমন জল্পনা ছড়িয়েছিল, তেমনই আজকের বৈঠকের দিকে সাগ্রহে নজর রাখছিলেন বিরোধী দলের নেতা-নেত্রী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষও।

কিন্তু, গেরুয়া শিবিরেরই এক গোপন সূত্রের খবর অনুযায়ী, দিলীপবাবুর এই বৈঠকের জন্য কেন্দ্রীয় নেতৃত্ত্বের কোনো অনুমোদনই নাকি ছিল না। এমনকি, এই বৈঠক সম্পর্কে সম্পূর্ণ অন্ধকারে ছিলেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্ত্ব। এতদিন মোটামুটি যা প্রচার করা হচ্ছিল, কেন্দ্রীয় নেতৃত্ত্ব দিলীপবাবুকে নিয়ে যারপরনাই খুশি আর তাই কেন্দ্রীয় নির্দেশেই সরকারিভাবে দিলীপবাবুর বঙ্গ-বিজেপিতে পুনরায় কর্তৃত্ত্ব প্রতিষ্ঠা হতে যাচ্ছে – তা নাকি পুরোপুরি ভ্রান্ত! আজকের বৈঠক সম্পূর্ণরূপে, দিলীপবাবুর ঘনিষ্ঠ এক কেন্দ্রীয় নেতা ও দিলীপবাবুর নিজের মস্তিস্ক প্রসূত।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

ফলত, এই বৈঠক ঘিরে যারপরনাই চটেছে গেরুয়া শিবিরের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ত্ব। এই নিয়ে দিলীপবাবুর কাছে জবাবদিহিও চাওয়া হতে পারে বলে জানা গেছে। সবথেকে বড় কথা, এই বৈঠক সম্পর্কে নাকি বাংলার কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয়বর্গীয় কিছুই ‘জানেন’ না! ফলে বৈঠকে থাকছেন না তিনি। শুধু তাই নয়, আজকে সকালের বিমানে কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র কলকাতায় আসার কথা ছিল দলীয় কাজে। কিন্তু, কোনো এক ‘অজ্ঞাত কারণে’ তা বাতিল করে তিনি আসছেন সন্ধ্যের বিমানে – যখন দিলীপবাবুদের বৈঠক নির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী শেষ হয়ে যাওয়ার কথা! সংশ্লিষ্ট মহলের বক্তব্য, কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র এহেন ‘পদক্ষেপেই, বার্তা স্পষ্ট! এমনকি এই বৈঠক সম্পর্কে জানা নেই বঙ্গ বিজেপির আরেক গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র মুকুল রায়েরও, ফলে তিনিও নাকি থাকছেন না এই বৈঠকে।

আর তাই, গেরুয়া শিবিরের একাংশ জানাচ্ছে, লোকসভা নির্বাচনের পরে দিলীপ ঘোষের যা পয়েন্ট বেড়েছিল কেন্দ্রীয় নেতৃত্ত্বের কাছে, এই এক পদক্ষেপে তার অনেকটাই কাটা গেল! ‘স্বঘোষিত’ যে রাজ্যাভিষেকের খবর বিগত বেশ কিছুদিন বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে ঘুরছিল – তা নাকি রাজ্য বিজেপির ভাবমূর্তিতে বড়সড় আঘাত হেনেছে! ফলে, এই নিয়ে আগামীদিনে দিলীপবাবুর জবাব যুক্তিসঙ্গত না হলে, তাঁর বিরুদ্ধে কড়া মনোভাব দেখাতে পারে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ত্ব। আর তাই সবমিলিয়ে, গেরুয়া শিবিরের যে বৈঠক ঘিরে বিগত বেশ কিছুদিন ধরে তুমুল জল্পনা চলছে, তা শেষমুহূর্তে এসে বড় মোড় নিল বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!