এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > আবার ঝড় বৃষ্টি আছড়ে পড়তে চলেছে বাংলায়! আবার কি ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডব? কি বলছেন আবহাওয়াবিদরা?

আবার ঝড় বৃষ্টি আছড়ে পড়তে চলেছে বাংলায়! আবার কি ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডব? কি বলছেন আবহাওয়াবিদরা?



গত ৪৮ ঘন্টার মধ্যেই ফের বাংলায় কালবৈশাখীর সম্ভাবনা রয়েছে। সুপার সাইক্লোন আমফানের দাপটে তছনছ হয়ে গিয়েছে বাংলা। এর পর ফের কালবৈশাখী হতে পারে বলে জানাচ্ছেন আবহাওয়াবিদরা। গত বুধবার সর্বনাশা ঝড় আমফান দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলাকে লন্ডভন্ড করে দিয়ে গেছে। রাজ্যের বহু এলাকা নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ভেঙে গেছে বহু ঘরবাড়ি, বৈদ্যুতিক খুঁটি।

ঘূর্ণি ঝড়ের দাপটে উপরে পড়েছে বহু পুরনো বড় বড় গাছ। পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে বেশ সময় লেগেছে রাজ্যের। এমনকি এখনো পর্যন্ত অনেক জায়গায় বৈদ্যুতিক তার সমেত গাছ উপরে পড়ে থাকার খবর মিলেছে। জানা গেছে রাজ্যের বহু জেলার একাধিক অংশ এখনো জলমগ্ন। ঘূর্ণিঝড় আমফান তাণ্ডব চালিয়ে যাওয়ার পর কেটে গেছে সাতটা দিন।

এখনো পর্যন্ত রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় বৈদ্যুতিক সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে রয়েছে। ঘূর্ণি ঝড়ের দাপটে উপরে পড়েছে বহু বৈদ্যুতিক খুঁটি। কার্যত এখনো পর্যন্ত খোদ কলকাতা শহরের অনেক এলাকায় বিদ্যুৎ পরিষেবা বাইরে। এর ফল স্বরূপ জল কষ্ট ভুগতে হচ্ছে জনসাধারণকে। অনেক জায়গায় বিদ্যুৎ পরিষেবা স্বাভাবিক হলেও মিলছে না সঠিকভাবে জলের সরবরাহ। সমগ্র বিষয়গুলি নিয়ে বহু এলাকায় ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে রাস্তা অবরোধ, বিক্ষোভ ইত্যাদি।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে বৈদ্যুতিক পরিষেবা পেলেও স্বাভাবিক হয়নি টেলিভিশনের পরিষেবা। এমনকি বিপর্যস্ত হয়ে রয়েছে ফোনের নেটওয়ার্ক পরিষেবাও। কার্যত এখনো পর্যন্ত খারাপ পরিস্থিতির চরম শিখরে পৌঁছেছে রাজ্যবাসী। এরই মধ্যে আবার ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনার কথা জানানো হলো আবহাওয়া দফতরের তরফে। জানা গেছে চলতি সপ্তাহের শেষের দিকে ফের ভারী বৃষ্টিপাত সহ কালবৈশাখী হতে পারে।

তবে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে অনুযায়ী ‘নিসর্গ’ নামের ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কা ছড়িয়েছে তার সাথে এই কালবৈশাখীর কোন সম্পর্কই নেই বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তরের তরফে। জানা গেছেআগামী দিনে ঘূর্ণিঝড় এলে তার কি নাম হবে তা আগে থেকেই ঠিক করে রাখা থাকে। আগামী ঘূর্ণিঝড়ের ক্ষেত্রে ‘নিসর্গ’ নামটি বাংলাদেশ ঠিক করেছে বলে জানা গেছে। তবে চলতি সপ্তাহের শেষের দিকে কলকাতায় এবং শহরতলী অঞ্চলগুলিতে যে ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে তার সাথে নিসর্গ-র কোনো সম্পর্কই নেই বলে জানা গেছে।

এমনকি আবহাওয়া দফতরের আধিকারিকরা জানিয়েছেন আগামী কয়েকদিনের মধ্যে ঘূর্ণিঝড় তৈরি হওয়ার কোন সম্ভাবনাই নেই। গত কয়েকদিন ধরেই রাজ্যের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় ৩° কম ছিল। মূলত মেঘলা আকাশ এবং হাওয়া প্রবাহের জন্য তাপমাত্রা খুব একটা বৃদ্ধি পায়নি বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। গত মঙ্গলবার রাজ্যে ঘন্টায় ১৮ থেকে ২২ কিলোমিটার বেগে দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে হাওয়া প্রবাহিত হয়েছে বলে জানা গেছে।

আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর আগামী কয়েকদিন এই আবহাওয়া অব্যাহত থাকবে। জানা গেছে উত্তর ও পশ্চিম ভারতে যেখানে তাপপ্রবাহ চলছে সেই পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গের তাপমাত্রা ৩২ ডিগ্রি আশেপাশে ঘোরাফেরা করছে যা স্বাভাবিকের তুলনায় তিন ডিগ্রি পড়লে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। এরই মধ্যে কালবৈশাখী হলেও কোনরকম ঘূর্ণিঝড় আবার থাবা বসাবে না বলেই নিশ্চিত করেছে আবহাওয়া অফিস।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!