এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রীর দিকে অভিযোগের আঙুল তুলে রাজ্য ছাড়ছেন ২০০ কোটির উদ্যোগপতি!

রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রীর দিকে অভিযোগের আঙুল তুলে রাজ্য ছাড়ছেন ২০০ কোটির উদ্যোগপতি!



মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলায় বাম শাসনের অবসান ঘটিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর কুর্সিতে বসা ইস্তক আম-বাঙালি যে জিনিসটি ‘পাখির চোখের’ মত তাঁর কাছে প্রত্যাশা করছেন – তা হল শিল্পায়ন ও কর্মসংস্থান। সেই লক্ষ্যে, তিনি বিদেশ সফর থেকে শুরু করে বিশ্ব বঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলন কোনো কিছুরই খামতি রাখেননি।

এমনকি, সেই প্রসঙ্গে তিনি ফলাও করে কোটি-কোটি টাকার মৌ-চুক্তি বা তার ফলে লাখের সীমা ছাড়িয়ে কোটিতে কর্মসংস্থান হয়েছে বলেও ঘোষণা করেছেন। কিন্তু, বিরোধী মহলের অভিযোগ, সেইসব কর্মসংস্থান বা শিল্পায়ন হয়েছে নাকি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘কল্পনায়’, বাস্তবে তার দেখা মেলে নি।

এমনকি, বাংলায় তীব্র গেরুয়া উত্থানের পিছনে এই কর্মসংস্থানের অভাব বড় কারণ বলে মনে করছেন কোনো কোনো রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ। মোদ্দা কথায় বাংলায় শিল্পের করুন অবস্থা বলেই মনে করা হচ্ছে বিরোধী মহল থেকে। আর এইসবের মাঝ্যেই রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী গৌতম দেবের দিকে আঙুল তুলে এবার বাংলা ছাড়ার হুমকি দিলেন ২০০ কোটির এক উদ্যোগপতি।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, শিলিগুড়ি সংলগ্ন ফুলবাড়ির ‘গ্রিনজেন বায়ো প্রাইভেট লিমিটেড’-এর কর্ণধার শিল্পদ্যোগী রমাকান্ত বর্মন জানিয়েছেন, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে কারখানায় অশান্তি সৃষ্টি করছেন রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব। এভাবে চলতে থাকলে দুশো কোটি টাকার বিনিয়োগ গুটিয়ে ভিন রাজ্যে চলে যেতে বাধ্য হবেন।

এমনকি, এই নিয়ে দ্রুত হস্তক্ষেপের জন্য তিনি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দ্বারস্থ হয়েছেন বলেও দাবি করেছেন। তাঁর দাবি, উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন হাসপাতাল ও নার্সিং হোমের বর্জ্য তিনি প্রক্রিয়াকরণের কাজ করেন। যা বন্ধ হলে, মারাত্মক সংক্রমণ ছড়ানোর বিপদ রয়েছে।

রমাকান্তবাবুর অভিযোগ, সেই কাজে বারেবারে তাঁকে অসুবিধার মধ্যে ফেলার চেষ্টা হচ্ছে, যার পিছনে রয়েছেন রাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী গৌতম দেব। এমনকি, বৃহস্পতিবার তাঁর ভাই শশিকান্ত বর্মন ও সংস্থার এক সুপারভাইজার মণিকান্ত রায়কে অপহরণ করে আমবাড়িতে তুলে নিয়ে মারধর করা হয়। যদিও এই ব্যাপারে গৌতমবাবু জানিয়েছেন, বিষয়টি নিয়ে পুলিশে অভিযোগ দায়ের হয়েছে, আমি কোনও মন্তব্য করব না।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!