এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > হাওড়ার বিস্তৃত বিধানসভা জুড়ে তৃণমূলের “সন্ত্রাস” নিয়ে কমিশনে বিজেপি, পাল্টা দিল তৃণমূলও

হাওড়ার বিস্তৃত বিধানসভা জুড়ে তৃণমূলের “সন্ত্রাস” নিয়ে কমিশনে বিজেপি, পাল্টা দিল তৃণমূলও



বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনে রাজ্যের অনেক এলাকাতেই শাসক দলের নেতাকর্মীদের প্ররোচনায় লাগাতার সন্ত্রাস হয়েছে বলে দীর্ঘদিন ধরেই অভিযোগ তুলতে দেখা যেত রাজ্যের বিরোধী দলগুলিকে। আর সেইমতো আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে কড়া করার আবেদন বারে বারে নির্বাচন কমিশনের কাছে জানিয়েছে সেই বিরোধী রাজনৈতিক দলের সদস্যরা। আর এবারে হাওড়া জেলার দুটি লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত পাঁচটি বিধানসভা কেন্দ্রে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের সন্ত্রাস নিয়ে নির্বাচন কমিশনের কাছে নালিশ জানাল জেলা বিজেপির নেতৃত্বরা।

প্রসঙ্গত, এখনও পর্যন্ত হাওড়ার দুটি লোকসভা কেন্দ্রে বিজেপি তাদের প্রার্থীই ঘোষণা করেনি। ফলে প্রার্থী ঘোষণার আগেই কিভাবে তারা সন্ত্রাসের শিকার হল তা নিয়ে এবার বিজেপির বিরুদ্ধে পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসও। তবে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়ে ঠিক কী অভিযোগ করেছে গেরুয়া শিবির?

জানা গেছে, বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিজেপির করা অভিযোগের মূলে থাকা এই পাঁচটি বিধানসভা কেন্দ্রতে ব্যাপক সন্ত্রাসের অভিযোগ উঠেছিল শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। আর এই পাঁচটি বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে রয়েছে, উদয়নারায়নপুর, বাগনান, আমতা, ডোমজুড় এবং জগৎবল্লভপুর।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর এই সমস্ত কেন্দ্রগুলিতে বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনে শাসকদলের ব্যাপক সন্ত্রাসের ঘটনা তুলে ধরে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে এই সমস্ত কেন্দ্রে যাতে নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে আরও আঁটোসাঁটো করা যায় তার জন্য নির্বাচন কমিশনের কাছে শাসকদলের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছে বিজেপি। আর বিজেপির এহেন সন্ত্রাসের বিষয় তুলে ধরা নিয়ে এবার পাল্টা গেরুয়া শিবিরকে খোঁচা দিয়ে শাসক দল তৃণমূলের প্রশ্ন, যদি এই সমস্ত এলাকাতে সন্ত্রাসই হয়ে থাকে তাহলে কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপস্থিতিতে গত বছর জানুয়ারি মাসে হওয়া লোকসভা উপনির্বাচনে এই আমতা, বাগনান এবং উদনারায়ণপুরে কেন বিজেপি প্রার্থীর থেকে লক্ষাধিক ব্যবধানে লিড নিল তৃণমূল!

তবে বিজেপির তরফে করা এই অভিযোগের ভিত্তিতে অবশ্য এই পাঁচটি বিধানসভা কেন্দ্রে বিশেষ নজরদারি চালানোর জন্য জেলা প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছে কমিশন। আর এতেই কিছুটা হলেও বিরোধীদের জয় দেখছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ। এদিন এই প্রসঙ্গে জেলা বিজেপির সভাপতি অনুপম মল্লিক বলেন, “এই এলাকায় তৃণমূলের জল্লাদ বাহিনী কি ভাবে সন্ত্রাস করে তা সাধারন মানুষ জানে। গত পঞ্চায়েতে মানুষ সব দেখেছে। তাই আমরা আসন্ন লোকসভা নির্বাচন যাতে সুষ্ঠুভাবে হয় তার জন্য নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ করেছি। আশা করি এবার মানুষ অবাধ ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোট দিতে পারবে।”

অন্যদিকে বিজেপির সুরে সুর মিলিয়ে শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছে কংগ্রেস। এদিন এই প্রসঙ্গে জেলা কংগ্রেসের অন্যতম নেতা তথা বিধায়ক অসিত মিত্র বলেন, “পঞ্চায়েত নির্বাচনে আমাদের উপর আক্রমণ হয়েছে। কোনো প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দিতে পারেনি।” তবে শাসকদলের বিরুদ্ধে করা অভিযোগকে সম্পূর্ণরূপে উড়িয়ে দিয়েছেন জেলা তৃণমূলের সভাপতি পুলক রায়।

এদিন তিনি বলেন, “লোকসভার উপ-নির্বাচনে কেন্দ্রীয় বাহিনী দিয়ে ভোট হয়েছিল। তারপরও আমরা পাচ লক্ষের বেশি ব্যবধানে জয়ী হয়েছিলাম। এখনও এখানে বিজেপি প্রার্থী ঘোষণা করতে পারেনি। আসলে এটা যদি পঞ্চায়েত ভোট হত তাহলে ওরা বলতো শাসকের সন্ত্রাসের জন্য প্রার্থী দিতে পারছি না। ভাড়া করা লোক দিয়ে কি আর সব কিছু করা যায়!” সব মিলিয়ে এবার আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে হাওড়া লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত পাঁচটি বিধানসভায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করার জন্য শাসকদলের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হল গেরুয়া শিবির।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!