এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান > বারবার তিনবার হবে কি? হুগলির দুই হেভিওয়েট তৃণমূল প্রার্থীকে ঘিরে আশা- আশঙ্কার দোলাচল

বারবার তিনবার হবে কি? হুগলির দুই হেভিওয়েট তৃণমূল প্রার্থীকে ঘিরে আশা- আশঙ্কার দোলাচল



গতকাল কালীঘাটে নিজের বাসভবনে রাজ্যের 42 টি কেন্দ্রে দলীয় প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।আর সেখানেই দেখা গেছে, বিগত বছরগুলোর মতো এবারও শ্রীরামপুরে কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং হুগলিতে রত্না দে নাগ তৃণমূলের হয়ে প্রার্থী হয়েছেন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত 2001 সালে সক্রিয় রাজনীতিতে নেমে সেই বছরই বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের টিকিটে জয়লাভ করেন আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তারপর পরবর্তীতে 2006 সালে বিধানসভা নির্বাচনে তিনি হেরে গেলেও তৎকালীন বাম সরকারের বিরুদ্ধে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সিঙ্গুর সহ একাধিক গুরুত্বপূর্ণ মামলায় তৃণমূলের হয়ে হাইকোর্ট এবং সুপ্রিম কোর্টে লড়াই করে ধীরে ধীরে নেত্রীর ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠেন শ্রীরামপুরের এই তৃনমুল সাংসদ।

এদিকে গত 2009 সালের লোকসভা নির্বাচনে শ্রীরামপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হয়ে তিনি 1 লক্ষ 34 হাজার ভোটে জিতে পরবর্তীতে 2014 সালের লোকসভা নির্বাচনে সিপিএমের প্রার্থীকে 2 লক্ষ 52 হাজার 526 ভোটে পরাজিত করে সাংসদ কল্যাণবাবু। কিন্তু যেখানে রাজ্যে ঘাড়ের উপর নিঃশ্বাস ফেলছে বিজেপি, সেখানে এবছর এই শ্রীরামপুর কেন্দ্রে জয়লাভ কি তার পক্ষে সম্ভব হবে?


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে শ্রীরামপুরের তৃণমূল প্রার্থী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “রাজ্য সরকার ও সাংসদ উন্নয়নের বরাদ্দ টাকার কাজকে সামনে রেখেই আমরা সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে যাব। আমার আশা, গতবারের মতো এবারও শ্রীরামপুর লোকসভা কেন্দ্রের মানুষ তৃণমূলকে বিপুল সমর্থন দেবেন। 16 ই মার্চ থেকে আমি ব্লক ভিত্তিক কর্মী বৈঠকের মাধ্যমে প্রচার শুরু করব।” এদিকে হুগলির কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী রত্না দে নাগ গত 2001 সালে শ্রীরামপুর বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূলের বিধায়ক হিসেবে নির্বাচিত হয়ে সক্রিয় রাজনীতিতে আসলে পরবর্তীতে 2006 সালে ফের বিধায়ক হিসেবে তিনি নির্বাচিত হন। এরপরই গত 2009 সালের লোকসভা নির্বাচনে হুগলিতে তৃণমূল প্রার্থী হিসেবে জয় লাভ করে গত 2014 সালের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের সদস্য হিসেবে সংসদে যান তিনি।

আর এহেন রত্নাদেবীকে গতকাল ফের হুগলি লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেছেন জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আসন্ন লোকসভা নির্বাচনেও হুগলি লোকসভা কেন্দ্রে জয়লাভের ব্যাপারে আশাবাদী তৃণমূল প্রার্থী রত্না দে নাগ এদিন বলেন, “10 বছর ধরে আমি নিয়মিত এলাকায় ঘুরে ঘুরে মানুষের জন্য কাজ করছি। তাই নির্বাচন বলে সেক্ষেত্রে আলাদা কোনো প্রস্তুতির ব্যাপার নেই। আমার আশা, হুগলির মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বপ্নকে সার্থক করতে ঘাসফুলের প্রার্থীদেরই জয়ী করবেন।”

সব মিলিয়ে এবার হুগলির দুই তৃণমূল প্রার্থী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রত্না দে নাগের এবারের লোকসভা ভোটে জয়লাভ নিয়ে নানা দোলাচল থাকলেও এখন থেকেই সাধারণ মানুষের কাছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের বার্তাকে পৌঁছে দিয়ে প্রচার শুরু করে দিতে চান এই দুই হেভিওয়েট তৃনমূল প্রার্থী।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!