এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > পঞ্চায়েত নিয়ে আদালতের যুগান্তকারী রায়ে বড় ধাক্কা নির্বাচন কমিশনের, পিছোচ্ছে ভোট?

পঞ্চায়েত নিয়ে আদালতের যুগান্তকারী রায়ে বড় ধাক্কা নির্বাচন কমিশনের, পিছোচ্ছে ভোট?



পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের যুগান্তকারী রায়ের ফলে হাসি চওড়া বামপন্থীদের, ফলে বিশ বাঁও জলে চলে গেল আগামী ১৪ মে পঞ্চায়েতের ভোটগ্রহণ। আজ কলকাতা হাইকোর্টে সিপিএমের করা মামলার পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি ঐতিহাসিক রায়ে জানিয়ে দিলেন বামপ্রার্থীদের ইমেলে পাঠানো মনোনয়ন বৈধ, ফলে নির্বাচন কমিশনকে স্বীকৃতি দিতে হবে সেই সব মনোনয়নের। আদালতের রায়ের ফলে আবার মুখ পুড়ল কমিশনের।

সিপিএমের দাবি, শাসকদলের ‘সন্ত্রাসের’ কারণে বিভিন্ন আসনে প্রার্থী দিতে পারে নি তারা, ফলে নির্বাচন কমিশনকে প্রায় হাজার খানেক মনোনয়ন ইমেল করে পাঠানো হয়। আদালতের রায়, সিপিএমের এই দাবি ন্যায্য, ফলে এখন ইমেল থেকে ওই সংখ্যক মনোনয়ন বের করে নতুন করে স্ক্রুটিনি করতে হবে কমিশনকে। আর তারপরে, নতুন করে ছাপতে হবে সংশ্লিষ্ট বুথের বা বুথগুলির ব্যালট পেপার। মনোনয়ন প্রত্যাহার পর্বের শেষে নির্বাচন কমিশনের হিসেবে অনুযায়ী প্রায় ৩৪% আসনে শাসকদল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতে গিয়েছিল, ফলে ভোট হত না প্রতি ১১ হাজার বুথে। এমনকি বহু জায়গায় জয়ের শংসাপত্রও শাসকদলের ‘জয়ীদের’ হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু আদালতের এই রায়ের ফলে বদলে গেল সব সমীকরণ। আর তাই ১৪ মে পঞ্চায়েত ভোটগ্রহণের প্রক্রিয়া স্বাভাবিকভাবেই পিছিয়ে যেতে বাধ্য বলে মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!