এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > আদালতের রায়ে বড় ধাক্কা খেলো রাজ্য সরকার

আদালতের রায়ে বড় ধাক্কা খেলো রাজ্য সরকার



পাহাড়ের গন্ডগোল নিয়ে ফেসবুকের বিরুদ্ধে রাজ্যের করা মামলায় নিম্ন আদালতের রায় খারিজ করে ফেসবুকের পক্ষে রায় দিলো হাইকোর্ট। কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সিদ্ধার্থ চট্টোপাধ্যায় জানান, রাজ্য যে পদ্ধতিতে ফেসবুককে পোষ্ট সরাতে বলে তা সঠিক ‌নয়। তাই‌ নিম্ম আদালতের রায় খারিজ করা হল।দার্জিলিং‌ ক্রনিক্যাল ‌নামে একটি গণমাধ্যম‌ গত বছর পাহাড়ে বন্ধের নানা অশান্তির ছবি তাদের ফেসবুক ওয়ালে পোষ্ট করে।লালবাজারের সাইবার ক্রাইম সেল বিষয়টি জানার পরই‌‌ ফেসবুক‌ কর্তৃপক্ষকে ওই‌ গণমাধ্যম ব্লক করে দেওয়ার অনুরোধ জানান কিন্তু তাতে কোন উত্তর দেয়নি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। এরপরই সাইবার ক্রাইম‌ সেলর‌‌ পক্ষে কলকাতা নগর দায়ারা আদালতে মমলা করা হয়‌। মমলার বিচারক স্বাতী মুখোপাধ্যায় পাহাড়ে ঝামেলা সংক্রান্ত ওয়েবলিংক বন্ধ করার রায় দেন এবং কন্দ্রীয় সরকারের তথ্য প্রযুক্তি দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত অফিসারকে নির্দেশ দেওয়া হয় বিষয়টিকে দেখার জন্য। এই‌ ঘটনার পরই সেই নির্দেশের চ্যালেঞ্জে হাইকোর্টে মমলা দায়ের করে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।
২০১৭ সালের জুনে ফেসবুকের করা মমলায় ১৯ জুলাই বিচারপতি‌ জয়মাল্য বাগচি নিম্ম আদালতের রায়ের ওপর অন্তরবর্তী স্থগিতাদেশ দেন যা পরবর্তীতে আরও আট সপ্তাহ বৃদ্ধি করা হয়। কেন্দ্র ও‌ রাজ্যকে নির্দেশ দেওয়া হয় যে তারা যেন চার সপ্তাহের মধ্যে এ‌বিষয়ের হলফনামা জমা‌দেন। উল্টোদিকে ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে তার দু সপ্তাহের মধ্যে জবাবি হলফনামা জমা দেওয়ার কথ বলেন হাইকোর্ট।
তবে পোষ্ট সরিয়ে ফেলার যে নির্দেশ রাজ্য ফেসবুককে দিয়েছে সেই নির্দেশকে ভুল বলো দাবি করেছে ফেসবুক। ফেসবুকের বক্তব্য নির্দিষ্ট নিয়ম‌ মেনে তদেরকে পোষ্ট সরাতে বলেনি, বরং আদালতে মমলা করেছে। ওই‌ নির্দেশ দেবার কোন অধিকার আদালতের‌ নেই।  এদিন বিচারপতি সাফ জানান, নোডল অফিসার নিয়োগ করা হয়নি। কোন তদন্ত না করে কীভাবে অভিযোগ করল রাজ্য? সেই সঙ্গে রাজ্যের করা নিম্নআদালতের রায় খারিজকরেন বিচারপতি এবং‌ একই ‌সঙ্গে ১১ টি ওয়েব লিংক ফের চালু‌ করারও‌ নির্দেশ দেন। তবে রায়‌ নিয়ে কোন পক্ষেরই‌ কোন জবাব পাওয়া যায়নি।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!