এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > পশ্চিমবঙ্গ ছাড়াও আরও ১৪ রাজ্যে প্রার্থী দেবে তৃণমূল, হেভিওয়েট নেতাদের জোর হিন্দি শিক্ষায়

পশ্চিমবঙ্গ ছাড়াও আরও ১৪ রাজ্যে প্রার্থী দেবে তৃণমূল, হেভিওয়েট নেতাদের জোর হিন্দি শিক্ষায়



গত বছরের ২১ শে জুলাইয়ের মঞ্চ থেকেই তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছিলেন আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বাংলা থেকে ৪২ টির মধ্যে ৪২ টি আসনই তাঁর দলের চায়। আর বর্তমানে তো একধাপ এগিয়ে, তৃণমূলে কংগ্রেসের সর্বোচ্চ নেতৃত্বের দাবি – বাংলা থেকে ৪২ টি আসন পেলেই নাকি কেন্দ্র থেকে নরেন্দ্র মোদির সরকারকে উৎখাত করে সরকার গড়বে আঞ্চলিক দলগুলির জোট – আর সেই জোটের প্রধামন্ত্রী হবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল কংগ্রেসের অগণিত সমর্থক এখন এই স্বপ্নের পিছনেই ছুটছেন।

আর এবার তাঁদের ‘জোশ’ আরও বাড়িয়ে দিতে বড়সড় ঘোষণা করতে পারেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, আসন্ন নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের লড়াই শুধুমাত্র বাংলাতেই সীমাবদ্ধ থাকবে না – বাংলার শাসকদল প্রার্থী দিতে পারে দেশের মোট ১৪ টি রাজ্যে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হতে চলেছে – আসাম, ত্রিপুরা সহ উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলি, বিহার, ঝাড়খন্ড, গোয়া, উত্তরপ্রদেশ ও পাঞ্জাব। এখনও সরকারিভাবে এই নিয়ে কোনো ঘোষণা তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে পাওয়া যায় নি।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তবে, সূত্রের খবর, ডেরেক ও’ব্রায়েন, ফিরহাদ হাকিম, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের মত প্রথম শ্রেণীর নেতারা এই ভিন রাজ্যের প্রার্থীদের হয়ে প্রচারের দায়িত্ব পাবেন। আর বিশেষ করে উত্তর ভারত ও হিন্দিভাষী রাজ্যগুলির কথা মাথায় রেখে – প্রচারে ঝড় তুলতে নাকি রীতিমত হিন্দি শিক্ষার চর্চা চলছে ঘাসফুল শিবিরের হেভিওয়েট নেতাদের মধ্যে। কেননা, এইসব রাজ্যে প্রচার সারতে গেলে বাংলা বা ইংরেজি নয় – কাজে আসবে হিন্দি ভাষায়।

তবে, ভিন রাজ্যে প্রার্থী দিলেও সেখানে সাফল্য কতটা আসবে – তা নিয়ে সন্দিহান দলেরই একটা অংশ। কেননা, ২০১৪ সালেও ভারতের একাধিক রাজ্যে প্রার্থী দিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস। কিন্তু, বাংলা বাদে সব জায়গাতেই সেইসব প্রার্থীদের জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছিল। তাছাড়া, কিছুদিন আগেই আসামের পঞ্চায়েত নির্বাচনে বা ত্রিপুরার বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী দিয়েও মুখ পুড়েছে দলের। সেই ধারা যদি একইভাবে বজায় থাকে এবং বাংলাতেও তুলনামূলক খারাপ ফল হয় – তা নিয়ে চিন্তিত অনেক নেতাই।

তবে, দলেরই আরেকাংশের মতে – বর্তমানে দেশে নরেন্দ্র মোদির সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জারের নাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় – সুতরাং, বাংলার বাইরে শক্তি প্রদর্শনের সময় এসে গেছে দলের। কেননা, তৃণমূল নেত্রী সদ্য সমাপ্ত কোর কমিটির বৈঠকে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, আগামীদিনে সর্বভারতীয় শক্তি হিসাবে উঠে আসবে ঘাসফুল শিবির। সুতরাং, এটাই নাকি উপযুক্ত সময় – বাংলার বাইরে নিজেদের শক্তি প্রদর্শনের। আর সত্যিই যদি, তৃণমূল কংগ্রেস বাংলার বাইরে প্রার্থী দেয় – তাঁরা কি ফল করেন সেদিকে নজর থাকবে বাংলার আমজনতার।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!