এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > জ্যোতিরাদিত্যের পর এবার কি বিজেপিতে কি এই হেভিওয়েট নেতা ! জোর জল্পনা!

জ্যোতিরাদিত্যের পর এবার কি বিজেপিতে কি এই হেভিওয়েট নেতা ! জোর জল্পনা!



 

পথ দেখিয়েছেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। সম্প্রতি কংগ্রেস ত্যাগ করে ভারতীয় জনতা পার্টিতে নাম লিখিয়ে হাত শিবিরকে প্রবল অস্বস্তিতে ফেলে দিয়েছেন তিনি। সিন্ধিয়া রাজবংশের সন্তান জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া বিজেপিতে যোগদানের পরেই তার পথ ধরে অনেকেই কংগ্রেস ছেড়ে ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগদান করতে পারেন বলে জল্পনা ছড়িয়েছে। সেদিক থেকে নাম উঠে আসছে রাজস্থানের শচীন পাইলটের।

কেননা মধ্যপ্রদেশে যেমন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার কথা থাকলেও, পরবর্তীতে কংগ্রেসের তরফে মুখ্যমন্ত্রী করা হয় কমলনাথকে। আর তা নিয়ে ক্ষুব্ধ হন বর্তমান এই বিজেপি নেতা এবং তার কারণেই দলবদল। ঠিক তেমনই রাজস্থানে একই ঘটনা ঘটেছিল রাজস্থানে। একাংশের দাবি, গত 2018 সালের রাজস্থান বিধানসভায় বিজেপিকে পিছনে ফেলে কংগ্রেসের জয়ের পেছনে প্রধান কৃতিত্ব ছিল শচীন পাইলটের।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অনেকেই মনে করেছিল, তাকেই কংগ্রেস মুখ্যমন্ত্রী করবে। কিন্তু তার বদলে সেখানে মুখ্যমন্ত্রী করা হয়েছিল অশোক গেহলটকে। আর এরপর থেকেই সেই রাজ্যে দুই নেতার দুই গোষ্ঠীর মধ্যে তৈরি হয়েছিল বিবাদ। তবে এবার মধ্যপ্রদেশের জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার বিজেপিতে যোগদানের পর সেই একই পথে যেতে পারেন শচীন পাইলট বলে দাবি করলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তবে এক্ষেত্রে কিছুটা জল্পনা জিইয়ে রেখেছেন তিনি।

সূত্রের খবর, এদিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গজেন্দ্র শেখাওয়াত বলেন, “জ্যোতিরাদিত্য ও সচিন ভালো বন্ধু। দুজনেই নামী পরিবারের সন্তান। রয়েছে দুজনের ঘনিষ্ঠ ব্যাক্তিগত সম্পর্ক। কিছুটা অপেক্ষা করুন। কারন অপেক্ষার ফল মিষ্টি হয়।” বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই অপেক্ষার কথা বলতে গিয়ে শচীন পাইলটের বিজেপি যোগের সম্ভাবনা বাড়িয়ে দিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। এখন গোটা পরিস্থিতি কোন দিকে এগোয়, জ্যোতিরাদিত্য পথ ধরেই কি হাঁটেন শচীন পাইলট! সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!