এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > হাই ব্লাড প্রেসার আছে? করোনা আবহে হতে পারে মারাত্মক! অযথা ঘাবড়ে না গিয়ে সাবধানে থাকতে জানুন

হাই ব্লাড প্রেসার আছে? করোনা আবহে হতে পারে মারাত্মক! অযথা ঘাবড়ে না গিয়ে সাবধানে থাকতে জানুন



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –  রক্তচাপ বলতে ধমনীতে রক্তের সঞ্চলনকে বোঝায়, যা কিনা হার্টের রক্ত সঞ্চালন কে নিয়ন্ত্রণ করে। হাই ব্লাড প্রেসার বা উচ্চরক্তচাপ বলতে একটি নির্দিষ্ট রক্তচাপের মাত্রা কে বোঝায় যা সাধারণত ১২০/৮০ mmHg হয়। এর থেকে বেশি বা কম রক্তচাপ শরীরের পক্ষে ক্ষতিকর বলেই ডাক্তারি ভাষায় প্রমাণিত। সুতরাং যারা বেশি রক্তচাপের সমস্যায় ভোগেন, তাদের ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞরা অতিরিক্ত সর্তকতা অবলম্বন এর কথাই বলে থাকেন।

কেন্দ্রীয় সরকারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশের প্রায় কুড়ি কোটি মানুষ উচ্চ রক্তচাপে ভোগেন। যাদের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের রয়েছেন ১ কোটি মানুষ। এদের মধ্যে কতসংখ্যাক যে ডাক্তার দেখান তা জানা নেই। ডাক্তারদের মতে উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে না রাখলে স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাক, কিডনি ফেইলিওর এর মত গুরুতর সমস্যা হতে পারে। তাই নিয়মিত ওষুধ খাওয়া এবং চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া প্রয়োজন। যেখানে উচ্চরক্তচাপ করোনা সংক্রমনের মাত্রাকে অনেক বেশি বাড়িয়ে দেয়, সেখানে আপনার উচ্চরক্তচাপ থাকলে কি কি করবেন আসুন জেনে নিন —

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

প্রথমত: চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন।
দ্বিতীয়তঃ চিকিৎসক যে ওষুধগুলো দিয়েছেন সেগুলো নিয়মিত খেতে হবে।
তৃতীয়তঃ বাড়িতে খুব বেশি উত্তেজনা বা টেনশান নেবেন না।
চতুর্থত:  হাই ব্লাড প্রেসার থাকলে সাধারণত আমরা নুনখাওয়া একেবারে বন্ধ করে দিই। সে ক্ষেত্রে গরমকালে ঘাম এর সঙ্গে শরীর থেকে নুন বেরিয়ে গেলে ডিহাইড্রেশনের ফলে নানা সমস্যা হতে পারে।
পঞ্চমত: যদি আপনি ওষুধ বন্ধ করার কথা ভাবেন তবে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে তা করা উচিত।

তবে কিভাবে বশে রাখবেন রক্তচাপ? আসুন জেনে নিন–

সবার প্রথমে আপনার ওজন বাড়ছে কিনা সেদিকে নজর রাখতে হবে। সেক্ষেত্রে প্রথমেই আসে খাবারের কথা। প্রতিদিনের খাবারে যেমন প্রচুর পরিমাণে জল, সবুজ শাকসবজি, ফল এসব রাখতে হবে। সেই সঙ্গে বাদ দিতে হবে তেল মশলা চর্বি যুক্ত খাবার। সঙ্গে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে হালকা ব্যায়াম বা ফ্রিহ্যান্ড করা যেতে পারে।

শুধু শরীরের দিকে নয়, খেয়াল রাখতে হবে মনেরও। মন ভালো থাকলে যে শরীর ভালো থেকে তা সকলেই জানেন। সেক্ষেত্রে নিয়মিত ৮ ঘণ্টার ঘুম, হালকা মেজাজ নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারে আপনার মানসিক স্বাস্থ্য কে। ঘুমের ওষুধ খাবার অভ্যেস থাকলে সেটা কমিয়ে ফেলাই ভালো। সেই সঙ্গে ধূমপান মদ্যপানের মত অভ্যেস ও করোনার সঙ্গে ব্লাড প্রেশার বাড়ার সম্ভাবনা বৃদ্ধি করে। তাই ডাক্তারি পরামর্শ মেনে সুস্থ থাকুন, নিরাপদে থাকুন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!