এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > তিন বছরেই মুখ্যমন্ত্রীর সম্পত্তি বৃদ্ধি চোখে পড়ার মতো, গুজরাটে প্রবল অস্বস্তিতে বিজেপি

তিন বছরেই মুখ্যমন্ত্রীর সম্পত্তি বৃদ্ধি চোখে পড়ার মতো, গুজরাটে প্রবল অস্বস্তিতে বিজেপি



প্রধানমন্ত্রী হওয়ার আগে নরেন্দ্র মোদী দাবী করেছিলেন, ‘না খাউঙ্গা, না খানে দুঙ্গা’, অর্থাৎ তিনি নিজে তো দুর্নীতি করবেনই না অন্য কাউকেই দুর্নীতি করতে দেবেন না। এখনো পর্যন্ত সরাসরি কেন্দ্র সরকারের গায়ে কোনো দুর্নীতির ছাপ লাগেনি, যদিও বিরোধীদের দাবী নোটবন্দী আদতে এদেশের ‘বৃহত্তম’ আর্থিক দুর্নীতি, ঠিকঠাক তদন্ত হলেই তা সামনে আসবে। এরইমধ্যে গুজরাট বিধানসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আর্থিক দুর্নীতি নিয়ে অস্বস্তিতে বিজেপি।
গতকাল রাজকোট পশ্চিম কেন্দ্রের জন্য বিজেপি প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানী। আর নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া তাঁরই হিসাব থেকে দেখা যাচ্ছে, মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে গত তিন বছরে তাঁর সম্পত্তি ২১ শতাংশ বেড়েছে। আর এই তথ্য সামনে আসতেই যথারীতি বিরোধীরা দুর্নীতি ইস্যুতে বিজেপিকে চেপে ধরতে মরিয়া। মুখ্যমন্ত্রীর এই পরিমান সম্পত্তি বৃদ্ধিতে তাঁদের বক্তব্য ‘গুজরাট গৌরব’ নয় আসলে বিজেপি নেতাদের ‘পকেটের গৌরব’ হয়েছে। যদিও মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানী এক ফুঁয়ে উড়িয়ে দিয়েছেন বিরোধীদের বক্তব্য। তিনি জানিয়েছেন, আমরা উন্নয়নের রাজনীতি করছি। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নরেন্দ্র মোদীর তিন বছরের শাসনকালে উন্নয়নের রাজনীতি গতি পেয়েছে। কংগ্রেস শুকিয়ে গিয়েছে। আর তাই এইসব অহেতুক অভিযোগ আনছে। রাজনৈতিক মহল এখন দেখতে মুখিয়ে শেষপর্যন্ত জয় হয় কিসের – বিরোধীদের তোলা দুর্নীতির দাবীর নাকি মুখ্যমন্ত্রীর তোলা উন্নয়নের দাবীর। উত্তরটা পাওয়া যাবে আগামী ১৮ ই ডিসেম্বর, গুজরাটের নির্বাচনের ব্যালট বক্স খুললে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!