এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > গেরুয়া শিবিরের প্রার্থী তালিকা প্রকাশের দেরী কেন? কোন সমীকরণ বুঝে নেওয়ার পালা? জল্পনা তুঙ্গে

গেরুয়া শিবিরের প্রার্থী তালিকা প্রকাশের দেরী কেন? কোন সমীকরণ বুঝে নেওয়ার পালা? জল্পনা তুঙ্গে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – শুক্রবার সকাল থেকেই তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশের ইঙ্গিত মিলেছিল। পাশাপাশি একই দিনে গেরুয়া শিবির এবং সংযুক্ত মোর্চার তালিকা প্রকাশের কথা শোনা গিয়েছিল। কথা অনুযায়ী তৃণমূল দুপুরের দিকে সাংবাদিক বৈঠক করে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করে দেয়। এর পরেই সংযুক্ত মোর্চাও প্রথম দু দফার প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করে। কিন্তু গেরুয়া শিবিরের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হয়না। শুক্রবার দিন গড়াতেই স্পষ্ট হয়ে ওঠে কোনোভাবেই এদিন বিজেপির প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হচ্ছেনা। শুক্রবার 291 টি আসনের প্রার্থী ঘোষণা করেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি বিজেপির প্রার্থী তালিকা প্রকাশের এত দেরি হচ্ছে কেন, তা নিয়ে কিন্তু ইতিমধ্যে প্রশ্ন উঠেছে।

গেরুয়া শিবিরের গোষ্ঠীকোন্দল এর অন্যতম কারণ নাকি বিজেপি অপেক্ষা করছিল তৃণমূলের প্রার্থী ঘোষণার। সেক্ষেত্রে রাজনৈতিক ভাবে পাল্লা দেওয়ার প্রসঙ্গটিও আসছে। পাশাপাশি তৃণমূল শিবিরের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হতেই প্রকাশ্যে এসে গিয়েছে তৃণমূলের দলীয় কোন্দল। অনেকেই রাতারাতি দল ছাড়ছেন। মনে করা হচ্ছে, বিক্ষুব্ধ তৃণমূল নেতা নেত্রীরা অনেকেই গিয়ে গেরুয়া শিবিরে যোগদান করবেন। অন্যদিকে আগামী 7 মার্চ কলকাতায় আসতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ব্রিগেডে মহাসভা হতে চলেছে বিজেপির। সেই দিন গেরুয়া শিবিরে যোগদানের সম্ভাবনা আছে অনেকের। সূত্রের খবর, মোদীর সভার পরেই আসন্ন বিধানসভা ভোটের জন্য গেরুয়া শিবিরের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হতে পারে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তবে প্রশ্ন উঠেছে, তৃণমূল যেখানে 291 টি আসনের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করে দিল এবং সংযুক্ত মোর্চার তরফ থেকে বামেরাও প্রথম দু’দফার আংশিক তালিকা ঘোষণা করে দিয়েছে, সেখানে বিজেপি কেন প্রার্থী তালিকা ঘোষণার জন্য অতিরিক্ত সময় নিচ্ছে? সেক্ষেত্রে মনে করা হচ্ছে, গেরুয়া শিবিরের আদি ও নব্য বিজেপির মধ্যে ব্যাপক রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব বর্তমান। প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হলে এই দ্বন্দ্ব বাড়বে বৈ কমবেনা বলেই ধরে নেওয়া হচ্ছে। আর তাই দলীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে, প্রধানমন্ত্রী আসার আগেই যদি প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হয়, তাহলে তা ব্রিগেডের সভায় ছাপ ফেলতে পারে।

আর তাই প্রার্থী তালিকা দেরী করে প্রকাশের এই সিদ্ধান্ত বলে মনে করা হচ্ছে। জানা যাচ্ছে, বহু কেন্দ্রে ইতিমধ্যেই বিজেপির একাধিক প্রার্থী মনোনয়ন পেতে চাইছেন। সেক্ষেত্রে নব্য বিজেপি এবং আদি বিজেপির মধ্যে যে রাজনৈতিক জমি দখলের লড়াই চলছে, তা স্পষ্ট। আপাতত রাজনৈতিক মহলের নজর গেরুয়া শিবিরের প্রার্থী তালিকার দিকে। বিজেপির প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হলেই বোঝা যাবে তৃণমূলের শিবিরের সঙ্গে লড়াইতে গেরুয়া শিবির থেকে কোন কোন দক্ষ সেনা ময়দানে নামছেন।

 

আপনার মতামত জানান -

ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!