এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > করোনা আবহে গরীবের ‘মসিহা’ হয়ে ওঠা সোনু সুদের অর্থের উৎস কি? দেশজুড়ে উঠে গেল বড়সড় প্রশ্ন!

করোনা আবহে গরীবের ‘মসিহা’ হয়ে ওঠা সোনু সুদের অর্থের উৎস কি? দেশজুড়ে উঠে গেল বড়সড় প্রশ্ন!



 প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট- মানুষ ঈশ্বরকে স্বচক্ষে দেখতে না পেলেও মানুষের কাছে ভালো কাজ করা ব্যক্তিটি নিজের অজান্তেই অনেকসময় মানুষের মনে ঈশ্বরের স্থান অধিকার করে নেয়। তাই উপকার করলে সহজেই মানুষের মনে জায়গা করে নেওয়া সম্ভব হয়। তবে সেই জায়গায় যদি হয় কোনো পপুলার ব্যক্তিত্ব, তাহলে তো কথাই নেই। তাকে নিয়ে মানুষের মনে জায়গা তৈরি হবেই। সেই সঙ্গে সোশাল মিডিয়া সরগরম হয়ে উঠবে সেটা বলাই বাহুল্য।

সম্প্রতি অভিনেতা সোনু সুদের নাম সেই তালিকায় সবার আগে উঠে এসেছে। সিনেমায় ভিলেনের অভিনয় করলেও সেটা যে তাঁর কেবল কাজের একটা অংশ, অভিনয় মাত্র, সেটা বরাবরই প্রমাণ করে দিয়েছেন। মানুষ হিসেবে তাঁর কাজ প্রত্যেকের মন ছুঁয়ে গেছে। পরিযায়ী শ্রমিক থেকে ভিনদেশে আটকে পড়া ভারতীয়, নানাজনকে নানাভাবে সাহায্য করেছেন তিনি। কখনো খাবার পৌঁছে দেওয়া, কখনো স্কুল তৈরি করে দেওয়া, আবার কখনো আর্থিক সাহায্য, সবসময়ই তাঁর কাজে মন ভরেছে দেশবাসীর। তবে এখানে স্বভাবতই একটা প্রশ্ন আসে যে, এই সব কাজের জন্যই প্রয়োজন প্রচুর অর্থের। তবে তাঁর সেই অর্থের উৎস কোথায়, সেই নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, বলিউড ছবির জগতে তিনি প্রায় ২১ বছর কাটিয়ে ফেলেছেন। সেইসঙ্গে বলিউডের পাশাপাশি প্রচুর দক্ষিণী ছবিতেও কাজ করেছেন তিনি। বর্তমানে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম দামি অভিনেতা হিসেবেই তিনি পরিচিত। তাই তাঁর দাবি এই সমস্ত ব্যবস্থাই তিনি নিজের সঞ্চিত অর্থ থেকেই নাকি করেছেন। বর্তমানে তিনি ১৩০ কোটি টাকার মালিক। সেইসঙ্গে ছবির পাশাপাশি একাধিক কোম্পানির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাস্যাডরও তিনি। ফলে ভগবানের কৃপায় তাঁকে ইন্ডাস্ট্রিতে আসার পর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। তাই নিজের এই সঞ্চিত অর্থই এখন নানা সমাজসেবামূলক কাজে লাগাচ্ছেন তিনি। তবে এই ব্যাপারে তিনি পরিবার ও বন্ধুদেরও পাশে পেয়েছেন বলেই জানিয়েছেন অভিনেতা।

তবে নিঃশব্দেই কাজ করে যাওয়ার পক্ষপাতী তিনি। তাই নিজের কাজের সম্পর্কে কিছুই তিনি নিজে মুখে বলেননি। মানুষের অনেক ভালোবাসা আর আশীর্বাদ নিয়েই এভাবেই কাজ করে যেতে চান তিনি। তাই খারাপ পরিস্থিতিতে ছোট্ট একটা মেসেজ, আর মুশকিল আসান হতে হাজির হবেন তিনি। অফুরন্ত দায়িত্বনিজের কাঁধে তুলে নেওয়া এই অভিনেতা বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ায় নেট জনতার মন কেড়েছে সহজেই।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!