এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > মুখ্যমন্ত্রীকে বড়সড় প্রশ্ন ছুঁড়লেন পিকে! নির্বাচনের আগে বাড়ছে অস্বস্তি!

মুখ্যমন্ত্রীকে বড়সড় প্রশ্ন ছুঁড়লেন পিকে! নির্বাচনের আগে বাড়ছে অস্বস্তি!



সম্প্রতি বেশ কিছুদিন আগে জেডিইউ থেকে বহিষ্কৃত হয়েছেন বিশিষ্ট নির্বাচনী রননীতিকার প্রশান্ত কিশোর। দলের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে মতানৈক্যের জন্য বিহারের মুখ্যমন্ত্রী তথা জেডিইউ সুপ্রিমো নিতিশ কুমার ভোটগুরু বলে পরিচিত প্রশান্ত কিশোরকে দল থেকে বহিষ্কারের কথা ঘোষণা করেন। আর বিভিন্ন নির্বাচনে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলকে সাফল্য পাইয়ে দেওয়া এই ব্যক্তি জেডিইউ থেকে বহিষ্কৃত হয়ে যাওয়ার পরেও, কোনরূপ মুখ খোলেননি।

যার ফলে তার রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নিয়ে তৈরি হয়েছিল জল্পনা। অনেকেই ভেবেছিলেন, প্রশান্ত কিশোর ধৈর্য ধরছেন। ধীরে ধীরে প্রকৃত সময়ে তিনি জেডিইউ নেতৃত্বের বিরুদ্ধে বোমা ফাটাবেন। অবশেষে এল সেই সময়। দীর্ঘদিন নীরবতা পালন করবার পর এবার নিজের মনের কথা প্রকাশ করলেন জেডিইউয়ের প্রাক্তন সহ সভাপতি তথা তৃণমূল কংগ্রেসের রণনীতিকার প্রশান্ত কিশোর। সূত্রের খবর, এদিন এক সাংবাদিক সম্মেলনে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, “আপনি কিভাবে একইসঙ্গে গান্ধী এবং গডসে দুটোই হতে পারেন। বিহারের এমন একজন নেতা প্রয়োজন যিনি বলিষ্ঠ পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারে।”

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এদিকে এই ঘটনার পরেই বিহারে যা উন্নয়ন হওয়ার কথা ছিল, তা এখনও হয়নি বলে নিজের প্রাক্তন নেতা নীতীশ কুমারকে কাঠ গড়ায় তোলেন প্রশান্ত কিশোর। তবে এদিন জেডিইউ সুপ্রিমো নিতিশ কুমারকে উদ্দেশ্য করে বেশি আক্রমণ করেননি ভোটগুরু‌। তিনি বলেন, “আমি নীতীশজীকে অত্যন্ত সম্মান করি। তিনি কেন আমাকে দল থেকে বহিষ্কার করেছেন, সেই নিয়ে আমি কোনো প্রশ্ন করব না। বরঞ্চ বিহারকে দেশের প্রথম দশটি সেরা রাজ্যের মধ্যে আমি দেখতে চাই।” সব মিলিয়ে এবার জেডিইউ থেকে বহিষ্কার হওয়ার পর প্রথম মুখ খুলে নরমে-গরমে নিজের প্রাক্তন নেতা নীতীশ কুমারকে প্রশ্নচিহ্নের মুখে ফেলে দিলেন বিশিষ্ট নির্বাচনী রননীতিকার প্রশান্ত কিশোর।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!