এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শাসক নন, বাংলার সেবক – দাবি ফিরহাদ হাকিমের

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শাসক নন, বাংলার সেবক – দাবি ফিরহাদ হাকিমের



গতকাল, তৃণমূল ডিজিটাল সেল আয়েজিত ফেসবুক লাইভ অনুষ্ঠানে এসে রাজ্যের গুরুত্ত্বপূর্ন মন্ত্রী ফিরহাদ হেকিম বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শাসক নন, বাংলার সেবক। দেশকে সাম্প্রদায়িক বাতাবরণ মুক্ত করতে তৃণমূলই একমাত্র শক্তি, যার নেত্রী মুখ্যমন্ত্রী স্বয়ং। এই পঞ্চায়েত ভোট শুধুমাত্র রাজ্যের বিষয় নয়, গোটা দেশের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। কেননা মমতা সরকারের গ্রামীণ উন্নয়ন রাজ্যের সীমানা ছাড়িয়ে জাতীয় স্তরে মডেল হয়ে গিয়েছে। তাঁর একটাই কারণ, তৃণমূল নেত্রী মানুষের সেবক। একমাত্র মানুষের কাছেই তিনি দায়বদ্ধ। তাই তাঁর উন্নয়নের অভিমুখ রাজ্যের সর্বস্তরের মানুষ।

মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়নের কথা তুলে ধরার পাশাপাশি তিনি তীব্র কটাক্ষ করেন বিরোধীদের। তিনি বলেন, এরাজ্যের বিরোধীদের পড়াশুনা না করা পড়ুয়াদের মতো অবস্থা। অন্যদিকে, সারা বছর তৃণমূল মানুষের পাশে থাকে। মুখ্যমন্ত্রী সর্বক্ষণ মানুষের উন্নয়ন নিয়ে কাজ করেন। তাই পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে তাঁদের কোনও দিনই উদ্বেগ ছিল না। মানুষের থেকে বিচ্ছিন্ন বিরোধীরা তাই পঞ্চায়েত ভোট এড়াতে চেয়েছিল। আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল। আসলে গত সাত বছরে রাজ্যের সামাজিক ও অর্থনৈতিক যে উন্নয়ন হয়েছে, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলার অবকাশ নেই। তাই নির্বাচনে তাদের পরিণতি কী হবে, তাই ভেবে অশান্তি শুরু করে বিরোধীরা। মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য নিজের লক্ষ্যে অবিচল রয়েছেন। যার সুবাদে দেশের মানুষ দেখতে পাচ্ছে, এই ক’বছরে রাজ্যের হাল কতটা বদলে ফেলেছে তৃণমূল সরকার। গ্রামীণ উন্নয়নের পাশাপাশি রাজ্যের সর্বত্র পরিকাঠামো উন্নয়নে দেশের মধ্যে প্রথম স্থান বাংলার।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!